রাফালের দ্রুত ডেলিভারির ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে IAF-র এই অফিসারের, জেনে নিন

এয়ার কমোডোর হিলাল আহমেদ রাথারের রয়েছে ৩০০০ ঘণ্টা ওড়ার অভিজ্ঞতা। উড়িয়েছেন মিগ ২১, মিরেজ ২০০০, কিরনের মতো বিমান। ফাইটার কমব্যাট লিডার ও ফ্লাইং ইনস্ট্রাক্টর হিসেবে বায়ুসেনায় কাজ করেছেন হিলাল।

Edited By: সিকান্দর আবু জ়াফর | Updated By: Jul 28, 2020, 06:05 PM IST
রাফালের দ্রুত ডেলিভারির ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে IAF-র এই অফিসারের, জেনে নিন
ছবি-টুইটার

নিজস্ব প্রতিবেদন: লাদাখ সীমান্তে চিন-ভারত উত্তেজনা তুঙ্গে। এরকম এক অবস্থায় বায়ুসেনার হাতে জরুরি ভিত্তিতে আসছে ৫টি রাফাল ফাইটার জেট।

বায়ু সেনার হাতে দ্রুত ওই যুদ্ধ বিমান আসার পেছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন ভারতীয় বায়ুসেনার এয়ার কমোডোর হিলাল আহমেদ রাথার। বর্তমানে তিনি ফ্রান্সে এয়ার অ্যাটাসে হিসেবে কর্মরত। তাঁর নেতৃত্বেই রাফালকে দ্রুত অস্ত্রে সজ্জায় উপযুক্ত করে তোলা হয়েছে। রাফাল জেটগুলি ভারতের উদ্দেশ্যে যাত্রা করার আগে এয়ার কমোডোর হিলাল আহমেদকে দেখা গিয়েছে ফ্রান্সে ভারতের রাষ্ট্রদূত জাভেদ আশরফের সঙ্গে।

আরও পড়ুন-দল বিরোধী কাজের জন্য কালো সোনা মন্ডল ও পলাশ মিত্রকে বহিষ্কার করল বীরভূম বিজেপি

ফান্সের দাসোঁ-র সঙ্গে ৩৬ বিমান কেনার চুক্তির পর এতদিনে ভারতের হাতে আসছে ৫টি রাফাল জেট। আগামিকাল ওই জেটগুলি আম্বালা বায়ুসেনা ঘাঁটিতে পৌঁছে যাবে। জেটগুলি ভারতের আকাশসীমার নিরাপত্তার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

কে এই হিলাল আহমেদ রাথার?

জম্মু ও কাশ্মীরের অনন্তনাগ জেলায় জন্ম হিলাল আহমেদ রাথারের। সৈনিক স্কুল থেকে পাস করে গ্রাজুয়েট হয়েছেন ডিফেন্স সার্ভিস স্টাফ কলেজ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এয়ার ওয়ার কলেজ থেকে। সেখানে অত্যন্ত ভালো ফল করেন হিলাল।

ভারতীয় বায়ুসেনার এই অফিসারের ঝুলিতে রয়েছে বায়ু সেনা মেডেল। ২০১০ সালে উইং কমান্ডার হিসেবে উল্লেখযোগ্য কাজ করার জন্য তাঁকে ওই সম্মান দেওয়া হয়। ২০১৬ সালে তিনি পান বিশিষ্ট সেবা মেডেল। এনডিএ-তে থাকাকালীন তিনি পেয়েছিলেন সোড অব অনার। ১৯৮৮ সালে ভারতীয় বায়ু সেনায় যোগ দেন হিলাল।

আরও পড়ুন-'কলকাতায় কমছে করোনার সংক্রমণ', ফের শুরু হচ্ছে Rapid টেস্টিং, ৪০ মিনিটেই রেজাল্ট

এয়ার কমোডোর হিলাল আহমেদ রাথারের রয়েছে ৩০০০ ঘণ্টা ওড়ার অভিজ্ঞতা। উড়িয়েছেন মিগ ২১, মিরেজ ২০০০, কিরনের মতো বিমান। ফাইটার কমব্যাট লিডার ও ফ্লাইং ইনস্ট্রাক্টর হিসেবে বায়ুসেনায় কাজ করেছেন হিলাল।