তেলেঙ্গানায় জমি শক্ত করতে কংগ্রেস-টিডিপি জোট! দিল্লিতে রাহুলের সঙ্গে বৈঠক চন্দ্রবাবুর

টিডিপির সঙ্গে কংগ্রেসের সম্পর্ক বরাবরই তিক্ত। ১৯৯০ সালে তিনি রাজ্যে বামেদের সঙ্গে জোট করে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে লড়েছিলেন। ১৯৯৯, ২০০৪ ও ২০১৪ সালে তিনি ছিলেন বিজেপির সঙ্গে

Updated By: Nov 1, 2018, 06:08 PM IST
তেলেঙ্গানায় জমি শক্ত করতে কংগ্রেস-টিডিপি জোট! দিল্লিতে রাহুলের সঙ্গে বৈঠক চন্দ্রবাবুর

নিজস্ব প্রতিবেদন: অতীত ভুলে এবার একসঙ্গে লড়াইয়ের ময়দানে নামতে চলেছে টিডিপি ও কংগ্রেস। আসন্ন তেলেঙ্গানা বিধানসভা নির্বাচনে এবার রাজনৈতিক ‘বাধ্যবাধকতার’ জন্যই একই ছাতার তলায় আসছে দুই দল। পাশাপাশি ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে মহাজোট গঠনেও একধাপ এগলো দুই দল। এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

আরও পড়ুন-সঙ্ঘকে নিষিদ্ধ করেছিলেন সর্দার প্যাটেল, সেই বল্লভভাইয়ের বন্দনায় মোদী! কেন?

বৃহস্পতিবার দিল্লিতে রাহুল গান্ধীর সঙ্গে দেখা করেন টিডিপি প্রধান চন্দ্রবাবু নাইডু। কংগ্রসে সভাপতির সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি বলেন, গণতন্ত্রের বাধ্যবাধকতার জন্যই বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে একসঙ্গে লড়াই করতে হচ্ছে। দুই দলের অতীত সম্পর্ক এখন মূল্যহীন। বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই এখন প্রধান বিষয়।

এদিন বৈঠক শেষে রাহুল গান্ধী টিডিপি-কংগ্রেসের তিক্ত সম্পর্ক নিয়ে প্রশ্নের মুখোমুখী হন। রাহুল বলেন, আমাদের দুই দলেরই একটা অতীত রযেছে। কিন্তু ঠিক করেছি তা নিয়ে কোনও কথা হবে না। বরং ভবিষ্যতকে সামনে রেখেই এগনো হবে। মূল বিষয় হল গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে হবে। তাই আমরা একসঙ্গে আসছি। সব বিরোধী দলেরই একজোট হওয়া উচিত।

গত নভেম্বরেই এনডিএ ছাড়েন চন্দ্রবাবু নাইডুর তেলুগু দেশম পার্টি। সম্প্রতি তাঁকে ইউপিএতে যোগ দেওয়ার আহ্বানও জানিয়েছেন কংগ্রেস নেতা বীরাপ্পা মৈলি। এনডিএ ছাড়ার পর রাহুলের সঙ্গে এটাই তাঁর প্রথম বৈঠক। এর আগে কর্ণাটকে কুমারস্বামীর শপথের দিনে তাঁদের দেখা হয়। তবে কোনও কথা হয়নি।

আরও পড়ুন-সিরিজ জিতল ভারত, হাঁটু গেড়ে বসে আত্মসমর্পণ করল ওয়েস্ট ইন্ডিজ

বৃহস্পতিবার চন্দ্রবাবু ফারুক আবদুল্লা ও শরদ পাওয়ারের সঙ্গেও বৈঠক করেন। ফলে মনে করা হচ্ছে লোকসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে একটা মহাজোট গঠনের দিকেও এগোনোর চেষ্টা করছেন চন্দ্রবাবু। আবদুল্লা ও পাওয়ারের সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ভবিষ্যত প্রজন্মকে রক্ষা করতে হবে। দেশের স্বার্থেই আমাদের নতুন পদক্ষেপ নিতে হবে।

উল্লেখ্য, টিডিপির সঙ্গে কংগ্রেসের সম্পর্ক বরাবরই তিক্ত। ১৯৯০ সালে তিনি রাজ্যে বামেদের সঙ্গে জোট করে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে লড়েছিলেন। ১৯৯৯, ২০০৪ ও ২০১৪ সালে তিনি ছিলেন বিজেপির সঙ্গে। ২০০৯ সালে তিনি তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতির সঙ্গে জোট করে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে লড়াই করেন। সেই দল এখন কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বাঁধার পরিকল্পনা করছে।