মঙ্গলবার টেস্ট জিততে গেলে কী করতে হবে ভারতকে?

চেন্নাই টেস্ট জিততে গেলে ভারতের কাছে সহজ সমীকরণ। হাতে মঙ্গলবারের গোটা দিন। ইংল্যান্ডের ১০ উইকেট ফেলতে হবে। আর সেটা না হলে, সিরিজের শেষ টেস্ট হবে ড্র। এ তো গেল মঙ্গলবার কী হতে পারে, সেই কথা। তার আগে জেনে নিন, সোমবার চেন্নাইতে কী কাণ্ডটাই না হল। ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে করা ৪৭৭ রানের জবাবে ব্যাট করছিল ভারত। আজ যখন ভারতীয় দল ব্যাট করতে নামে, তখন বিরাট কোহলির দলের রান ৪ উইকেটের বিনিময়ে ৩৯১। করুন নায়ার অপরাজিত ছিলেন ৭১ রানে এবং মূরলী বিজয় অপরাজিত ছিলেন ১৭ রানে। সেখান থেকে ভারত দিনের শেষে ডিক্লেয়ার করে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ৭৫৯ রান করে! হ্যাঁ, ৭ উইকেটের বিনিময়ে ৭৫৯। এটাই টেস্টে ভারতীয় দলের এক ইনিংসে করা সর্বোচ্চ রান। এতদিন ভারতের সর্বোচ্চ রান ছিল শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ২০০৯-এর মুম্বই টেস্টের ৯ উইকেটে ৭২৬ রান। আর এই দুর্দান্ত কাজটা সম্ভব করলেন যিনি, তিনি খেলছেন জীবনের তৃতীয় টেস্ট। তার আবার তৃতীয় ইনিংস। সেই করুন নায়ারই কিনা আজ প্রথমে করলেন সেঞ্চুরি। এরপর ডাবল সেঞ্চুরি। এবং সবশেষে ট্রিপল সেঞ্চুরি! আরও অবাক করে আউটই হলেন না শেষ পর্যন্ত! অপরাজিত থাকলেন ৩০৩ রান করে! তখনই বিরাট কোহলি ডিক্লেয়ার না করে দিলে, করুন হয়তো ভেঙে দিতেন বীরেন্দ্রে সেহবাগের ৩০৯ রান বা ৩১৯ রানের রেকর্ড। অধিনায়ক বিরাটের কাছে দলের জয়টাই বড় কথা। তাই রেকর্ডের জন্য সময় নষ্ট করতে চাননি হয়তো। না হলে এ দেশের সর্বোচ্চ রানের মালিক হওয়ার সেরা সূযোগ ছিল কর্নাটকের করুনের সামনে। রেকর্ড না ভাঙতে পারলেও, বীরেন্দ্র সেহবাগের পর করুন দ্বিতীয় ভারতীয় হিসেবে টেস্টে ৩০০ রানের ইনিংস খেললেন। সেটাই বা জীবনের তৃতীয় টেস্টে তাও আবার পাঁচ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে, যথেষ্ট নয় কী?

Updated By: Dec 19, 2016, 08:22 PM IST
মঙ্গলবার টেস্ট জিততে গেলে কী করতে হবে ভারতকে?

ওয়েব ডেস্ক: চেন্নাই টেস্ট জিততে গেলে ভারতের কাছে সহজ সমীকরণ। হাতে মঙ্গলবারের গোটা দিন। ইংল্যান্ডের ১০ উইকেট ফেলতে হবে। আর সেটা না হলে, সিরিজের শেষ টেস্ট হবে ড্র। এ তো গেল মঙ্গলবার কী হতে পারে, সেই কথা। তার আগে জেনে নিন, সোমবার চেন্নাইতে কী কাণ্ডটাই না হল। ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে করা ৪৭৭ রানের জবাবে ব্যাট করছিল ভারত। আজ যখন ভারতীয় দল ব্যাট করতে নামে, তখন বিরাট কোহলির দলের রান ৪ উইকেটের বিনিময়ে ৩৯১। করুন নায়ার অপরাজিত ছিলেন ৭১ রানে এবং মূরলী বিজয় অপরাজিত ছিলেন ১৭ রানে। সেখান থেকে ভারত দিনের শেষে ডিক্লেয়ার করে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ৭৫৯ রান করে! হ্যাঁ, ৭ উইকেটের বিনিময়ে ৭৫৯। এটাই টেস্টে ভারতীয় দলের এক ইনিংসে করা সর্বোচ্চ রান। এতদিন ভারতের সর্বোচ্চ রান ছিল শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ২০০৯-এর মুম্বই টেস্টের ৯ উইকেটে ৭২৬ রান। আর এই দুর্দান্ত কাজটা সম্ভব করলেন যিনি, তিনি খেলছেন জীবনের তৃতীয় টেস্ট। তার আবার তৃতীয় ইনিংস। সেই করুন নায়ারই কিনা আজ প্রথমে করলেন সেঞ্চুরি। এরপর ডাবল সেঞ্চুরি। এবং সবশেষে ট্রিপল সেঞ্চুরি! আরও অবাক করে আউটই হলেন না শেষ পর্যন্ত! অপরাজিত থাকলেন ৩০৩ রান করে! তখনই বিরাট কোহলি ডিক্লেয়ার না করে দিলে, করুন হয়তো ভেঙে দিতেন বীরেন্দ্রে সেহবাগের ৩০৯ রান বা ৩১৯ রানের রেকর্ড। অধিনায়ক বিরাটের কাছে দলের জয়টাই বড় কথা। তাই রেকর্ডের জন্য সময় নষ্ট করতে চাননি হয়তো। না হলে এ দেশের সর্বোচ্চ রানের মালিক হওয়ার সেরা সূযোগ ছিল কর্নাটকের করুনের সামনে। রেকর্ড না ভাঙতে পারলেও, বীরেন্দ্র সেহবাগের পর করুন দ্বিতীয় ভারতীয় হিসেবে টেস্টে ৩০০ রানের ইনিংস খেললেন। সেটাই বা জীবনের তৃতীয় টেস্টে তাও আবার পাঁচ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে, যথেষ্ট নয় কী?

আরও পড়ুন বীরেন্দ্র সেহবাগের পর টেস্টে ৩০০ করলেন করুন নায়ার

অন্য ব্যাটসম্যানদরে মধ্যে মূরলী বিজয় ২৯ করে আউট হয়ে যান। করুনকে অবশ্য যোগ্য সঙ্গত করলেন অশ্বিন এবং জাদেজা। রবিচন্দ্রন অশ্বিনের অবদান ৬৭ রান। এবং জাদেজা আউট হন ৫১ রান করে। দিনের একেবারে শেষে ৫ ওভারের জন্য ব্যাট করতে নামে ইংল্যান্ড। চেন্নাই টেস্টের চতূর্থ দিনের শেষ দ্বিতীয় ইনিংসে ইংরেজদের রান বিনা উইকেটে ১২। কুক অপরাজিত রয়েছেন ৩ রানে এবং জেনিংস অপরাজিত রয়েছেন ৯ রান করে। আগামীকাল যদি অশ্বিন, জাদেজা, অমিত মিশ্রারা ভেল্কি দেখাতে পারেন, তাহলে ইংরেজদের মুখের মতো জবাব দেওয়া যাবে। অসম্ভব নয়। কারণ, ইংরেজদের হাতে ১০ উইকেট থাকলেও, তাঁরা পিছিয়ে ২৭০ রানে।

আরও পড়ুন  গ্রেটার কোচবিহারকে সমর্থন আর বিজেপিকে ভোট দেওয়ার শাস্তি জানেন?