আইপিএল-এর আর্থিক কেলেঙ্কারি ফাঁস! ১২১ কোটির জরিমানা বিসিসিআই-এর

এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের তদন্তে জানা গিয়েছে, ২০০৯ সালে ভারত থেকে উড়িয়ে আইপিএল ম্যান্ডেলার দেশে নিয়ে যাওয়ার জন্য মোটা অঙ্কের টাকা আত্মসাৎ করেছে প্রাক্তন বোর্ড কর্তারা।

Updated By: Jun 1, 2018, 10:15 AM IST
আইপিএল-এর আর্থিক কেলেঙ্কারি ফাঁস! ১২১ কোটির জরিমানা বিসিসিআই-এর

নিজস্ব প্রতিবেদন: ফের প্রকাশ্যে এক আইপিএলকে কেন্দ্র করে বিশাল অঙ্কের আর্থিক কেলেঙ্কারি। আর এবারও বিতর্কের কেন্দ্রে বিসিসিআই-এর প্রাক্তন সভাপতি এন শ্রীনিবাসন। তদন্তকারী সংস্থা ইডি জানিয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকায় আইপিএল করানোর জন্য মোট ২৪৩ কোটি টাকা নিয়েছিলেন প্রাক্তন বিসিসিআই সভাপতি এন শ্রীনিবাসন ও তাঁর সহকারীরা। এবার সেই খেসারত দিতে হবে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডকে। 

আরও পড়ুন- পদত্যাগ করলেন রিয়ালের কোচ জিদান

এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের তদন্তে জানা গিয়েছে, ২০০৯ সালে ভারত থেকে উড়িয়ে আইপিএল ম্যান্ডেলার দেশে নিয়ে যাওয়ার জন্য মোটা অঙ্কের টাকা আত্মসাৎ করেছে প্রাক্তন বোর্ড কর্তারা। বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময় আইন অনুযায়ী যা দণ্ডনীয় অপরাধ। এন শ্রীনিবাসন-সহ প্রাক্তন আইপিএল কর্তা ললিত মোদী এবং বিসিসিআই-এর প্রাক্তন কোষাধ্যক্ষ এমভি পানদোভে প্রত্যক্ষভাবে এই আর্থিক কেলেঙ্কারিতে জড়িত বলেই জানিয়েছে ইডি। যার জন্য এদের প্রত্যেককে আলাদা করে অর্থদণ্ডের নিদান দিয়েছে ইডি।

আরও পড়ুন- ক্রিকেটারদের থেকে বেশি মাইনে পাবেন আম্পায়াররা!

টাইমস অব ইন্ডিয়া প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, বিসিসিআই-কে এর জন্য দিতে হবে ৮২.৬৬ কোটি টাকা। এছাড়াও এন শ্রীনিবাসনের ১১.৫৩ কোটি, ললিত মোদীর ১০.৬৫ কোটি, পানদোভের ৯.৭২ কোটি টাকার জরিমানা করেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। আর এই টাকা সরকারি খাতে জমা দেওয়ার জন্য ৪৫ দিনের সময়সীমাও বেধে দিয়েছে তাঁরা।