ভারতের কাছ থেকে শেখা উচিত্ পাকিস্তানের, বললেন শোয়েব মালিক

এশিয়া কাপ জয়ের মিশনে নামার আগে ভারতীয় মডেলই অনুসরণ করতে চায় পাকিস্তান। অন্তত সে রকমই ইঙ্গিত দিলেন চলতি এশিয়া কাপে পাকিস্তানের সব চেয়ে সফল ব্যাটসম্যান শোয়েব মালিক।

Updated By: Sep 26, 2018, 01:19 PM IST
ভারতের কাছ থেকে শেখা উচিত্ পাকিস্তানের, বললেন শোয়েব মালিক

নিজস্ব প্রতিবেদন : এশিয়া কাপে ভারতের কাছে পর পর দুটো ম্যাচে হারের পর সরফরাজের দলকে নিয়ে রীতিমতো সমালোচনায় মুখর হয়েছেন প্রাক্তন পাক ক্রিকেটাররা। ওয়াসিম আক্রম থেকে শোয়েব আখতার এমনকী সেলিম মালিক পর্যন্ত পাক ক্রিকেটারদের সমালোচনা করেছেন। শুধু যে প্রাক্তন ক্রিকেটাররাই ক্ষুব্ধ, তা নয়। ভারতের কাছে এই বিপর্যয় নিয়ে পাকিস্তানে ক্রিকেটপ্রেমীদের মধ্যেও বেশ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। কোচ মিকি আর্থার এবং অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদের যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এই অবস্থায় পাকিস্তানের সামনে রাস্তা একটাই। বাংলাদেশকে হারিয়ে ফাইনালে যাওয়া। এবং শুক্রবার ভারতকে হারিয়ে এশিয়া কাপটা জেতা।

আরও পড়ুন - Asia Cup 2018: আবুধাবিতে আজ ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে মুখোমুখি বাংলাদেশ-পাকিস্তান

এশিয়া কাপ জয়ের মিশনে নামার আগে ভারতীয় মডেলই অনুসরণ করতে চায় পাকিস্তান। অন্তত সে রকমই ইঙ্গিত দিলেন চলতি এশিয়া কাপে পাকিস্তানের সব চেয়ে সফল ব্যাটসম্যান শোয়েব মালিক। এশিয়া কাপ খেলতে আসার আগে পাকিস্তানের বোলিং নিয়ে অনেক চর্চা হয়েছে। বিশেষ করে মহম্মদ আমির, হাসান আলিদের পেস আক্রমণ বার বার উঠে এসেছে আলোচনায়। কিন্তু মাঠে নেমে চূড়ান্ত ব্যর্থ তাঁরা। এ প্রসঙ্গে বলছেন, "দেখুন, এমন হওয়া তো সম্ভব নয় যে কেউ প্রতিদিন ভাল খেলবে। তবে হ্যাঁ, আমাদের সমস্যা হচ্ছে। সেটাই ঠিক করতে হবে।"সঙ্গে তিনি যোগ করেন, "ভারতের যশপ্রীত বুমরা এবং ভুবনেশ্বর কুমার কিন্তু খুব ভাল বল করে চলেছে। আমাদের বুমরা এবং ভুবনেশ্বরের বোলিং ভাল করে লক্ষ্য করতে হবে। ওরা কোথায় বলটা ফেলছে, সেটা দেখতে হবে। সবার কাছ থেকেই শেখা যায়। এমনকী যে পাঁচটা ম্যাচ খেলেছে, তার কাছ থেকেও শিখতে পারে দুশো ম্যাচ খেলা ক্রিকেটার।"

শুধুমাত্র ভারতের পেস-মডেল অনুকরণ করার ইচ্ছে নয়, শোয়েবের কথায় পরিষ্কার, ভারতের ক্রিকেট কাঠামোতেও নজর রয়েছে পাকিস্তানের। শোয়েব বলেন, "আমাদের ভারতীয় দলটাকে দেখতে হবে। কী ভাবে ভারত তরুণ ক্রিকেটার তুলে আনে, সেটাও মাথায় রাখতে হবে।" বুধবার বাংলাদেশের কাছে হেরে বিদায় নিলে পাকিস্তান ক্রিকেটারদের যে দেশে ফিরে তোপের মুখে পড়তে হবে, তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই।