পৃথ্বি-র ছবি ব্যবহার করায় দিতে হবে ১ কোটি টাকা! নোটিস পেল সুইগি, ফ্রিচার্জ

নোটিস পাওয়ার পর নিজেদের অ্যাকাউন্ট থেকে পৃথ্বির ছবি ব্যবহার করে তৈরি করা ক্রিয়েটিভগুলো তুলে নেয় তাঁরা। ডিলিট করা হয় সোশ্যাল পোস্টও। গোটা বিষয়টি-ই খতিয়ে দেখছে মুম্বই পুলিস।

Updated By: Oct 10, 2018, 10:54 AM IST
পৃথ্বি-র ছবি ব্যবহার করায় দিতে হবে ১ কোটি টাকা! নোটিস পেল সুইগি, ফ্রিচার্জ

নিজস্ব প্রতিবেদন: একে তো না বলে কয়ে ছবি নেওয়া, আবার সেই ছবি ব্যবসায়িক স্বার্থে ব্যবহার করার সাহস দেখানো! সুইগি, ফ্রিচার্জ-কে উচিত শিক্ষা দিল পৃথ্বি শ-এর ব্যবস্থাপনা সংস্থা।

আরও পড়ুন- ‘অবসর নিতে দেয়নি স্ত্রী, ক্রিকেট চালিয়ে যেতে চাপ দিয়েছিল শোয়েব আখতার’

কোনও অনুমতি না নিয়েই অভিষেক টেস্টে শতরান করা সর্বকনিষ্ঠ ক্রিকেটারের ছবি দিয়ে বিজ্ঞাপন তৈরি করায় সুইগি ও ফ্রিচার্জের কাছে ১ কোটি টাকা দাবি করল পৃথ্বি শ-এর ব্যবস্থাপনা সংস্থা। দুই সংস্থাকেই পাঠানো হল আইনি নোটিস।

আরও পড়ুন- প্রথম ভারতীয় মহিলা হিসেবে যুব অলিম্পিকে সোনা জিতলেন মানু

প্রসঙ্গত, রাজকোটে অভিষেক টেস্টেই শতরান করেছেন পৃথ্বি শ। সচিনের পর পৃথ্বি-ই সেই ভারতীয় ক্রিকেটার যিনি মাত্র ১৮ বছর ৩২৯ দিন বয়সেই টেস্ট শতরান করলেন। সচিন জীবনের প্রথম টেস্ট শতরান পেয়েছিলেন ১৭ বছর ১০৭ দিন বয়সে। তবে অভিষেক টেস্টে শতরান অর্জন করা কনিষ্ঠ ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে মুম্বইয়ের পৃথ্বি-ই সর্ব কনিষ্ঠ। উইন্ডিজের বিরুদ্ধে ১৫৪ বলে ১৩৪ রানের ইনিংস খেলেছেন পৃথ্বি। তাঁর এই ইনিংস সাজানো ছিল ১৯টি বাউন্ডারিতে। তার থেকেও বড় কথা মুম্বইয়ের এই তরুণের স্ট্রাইক রেট ছিল নব্বইয়ের কাছাকাছি।

আরও পড়ুন- 'জব উই মেট সিমরণ' কাজলের সঙ্গে সেলফি তুলে উচ্ছ্বসিত এই ক্রিকেটার!

পৃথ্বির এই অনবদ্য ইনিংসের পরই সুইগি, ফ্রিচার্জের মতো ব্যবসায়িক সংস্থা তাঁর ছবি ব্যবহার করে ক্রিয়েটিভ তৈরি করে এবং সেগুলো সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ারও করে। বিষয়টি নজরে আসতেই তড়িঘড়ি পদক্ষেপ নেয় পৃথ্বির ব্যবস্থাপনা সংস্থা। তাঁদের দাবি, সুইগি, ফ্রিচার্জের মতো ব্যবসায়িক সংস্থাগুলো ১৯৯৬ সালের ট্রেডমার্ক আইন লঙ্ঘন করেছে। সেই মর্মেই তাঁদের কাছে ১ কোটি টাকা ‘ক্ষতিপূরণ’ চেয়ে নোটিস পাঠিয়েছে পৃথ্বি শ-এর ব্যবস্থাপনা সংস্থা।

সেই নোটিস পাওয়ার পর নিজেদের অ্যাকাউন্ট থেকে পৃথ্বির ছবি ব্যবহার করে তৈরি করা ক্রিয়েটিভগুলো তুলে নেয় তাঁরা। ডিলিট করা হয় সোশ্যাল পোস্টও। গোটা বিষয়টি-ই খতিয়ে দেখছে মুম্বই পুলিস।