বাউন্ডারি মারার পরও দেওয়া হল রান আউট

বাউন্ডারি মারার পরও কেউ রান আউট হতে পারে। জানি বলবেন, 'না'। কিন্তু সেরকমই হল, তাও আবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। আয়ারল্যান্ড-আফগানিস্তান ম্যাচে ঠিক সে রকমই হল। জয়ের জন্য ২৩০ রান করতে নেমে আইরিশ ওপেনার উইলিয়াম পটারফিল্ড-ইডি জয়েশ শুরুটা খারাপ করেননি। জয়েশ একটা বল স্ট্রেট ড্রাইভ মারেন। আফগান ফিল্ডার মহম্মদ নবি বাউন্ডারির একেবারে ধার থেকে বলটা ধরে বোলারকে থ্রো করেন। বাউন্ডারি হয়ে গেছে ধরে নিয়ে ব্যাটসম্যান জয়েশ তখন ক্রিজের মাঝখানে দাঁড়িয়ে।

Updated By: Jul 19, 2016, 07:01 PM IST
বাউন্ডারি মারার পরও দেওয়া হল রান আউট

ওয়েব ডেস্ক: বাউন্ডারি মারার পরও কেউ রান আউট হতে পারে। জানি বলবেন, 'না'। কিন্তু সেরকমই হল, তাও আবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। আয়ারল্যান্ড-আফগানিস্তান ম্যাচে ঠিক সে রকমই হল। জয়ের জন্য ২৩০ রান করতে নেমে আইরিশ ওপেনার উইলিয়াম পটারফিল্ড-ইডি জয়েশ শুরুটা খারাপ করেননি। জয়েশ একটা বল স্ট্রেট ড্রাইভ মারেন। আফগান ফিল্ডার মহম্মদ নবি বাউন্ডারির একেবারে ধার থেকে বলটা ধরে বোলারকে থ্রো করেন। বাউন্ডারি হয়ে গেছে ধরে নিয়ে ব্যাটসম্যান জয়েশ তখন ক্রিজের মাঝখানে দাঁড়িয়ে।

আরও পড়ুন-১২৩ বলে ডবল সেঞ্চুরি, কে করলেন এই বিশ্বরেকর্ড

আম্পায়ারও ভেবেছিলেন বাউন্ডারি বোধহয় হয়ে গিয়েছে। কিন্তু বোলার আউটের আবেদন করার পরই আম্পায়ার ঘাবড়ে যান। ফিল্ডারকে ডেকে এনে আম্পায়ার জিজ্ঞাসা করেন, বাউন্ডারি হয়েছে কি না। ফিল্ডার নবি মাথা নেড়ে বলেন, না তিনি বাউন্ডারি হওয়ার আগেই আটকে দিয়েছেন। তখন সহকারী আম্পয়ারের সঙ্গে কথা বলার পর রান আউট দেওয়া হয় জয়েশকে।

আরও পড়ুন- ধোনি থেকে তিনি কী করে আজকের মাহি হলেন, জানেন?

গন্ডগোলটা বাধে তার পরদিন। স্থানীয় এক সংবাদপত্রে পরিষ্কার করে দেওয়া হয় কিছু ছবি। যাতে দেখা যায় আফগান ফিল্ডার নবি বল বাউন্ডারি লাইনের বাইরে বেরিয়ে যাওয়ার পর কায়দা করে সেটাকে ভিতরে এনে থ্রো করলেন। এই ছবি সামনে আসার পর বিতর্কের ঝড় বয়ে যায়। আইসিসি-কে বিবৃতি পর্যন্ত দেওয়া হয়। কিন্তু আসল ব্যাপার হল বাউন্ডারি মারার পরও রান আউট হয়ে গেলেন ব্যাটসম্যান।