'দুই অক্ষরের দাম ২০০০ কোটি'

'আইপিএল', এই শব্দের আগে বসবে 'ভিভো', আর তার জন্য খরচ করতে হবে ২,১৯৯ কোটি টাকা। হ্যাঁ, আইপিএল'কে 'ভিভো' আইপিএল (VIVO IPL) করার জন্য চাইনিজ কোম্পানি খরচ করল ২,১৯৯ কোটি টাকা। আগামী ৫ বছরের জন্য ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের টাইটেল স্পনসরশিপ কিনে নিল চাইনিজ মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থা ভিভো। ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের সঙ্গে চাইনিজ কোম্পানি ভিভো যে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে তাতে স্পষ্ট বলা হয়েছে, "আইপিএল টাইটেল রাইটস নিজের অধীনেই রাখল ভিভো। ২০১৮ থেকে ২০২২ আইপিএল পর্যন্ত আইপিএল টাইটেল স্পনসরশিপ ভিভো'র দখলে। গত দুবছরের তুলনায় ৫৫৪ শতাংশ বর্ধিত মূল্যে ২,১৯৯ কোটি টাকায় এই সত্ত্ব কিনে নিয়েছে ভিভো"।  

Updated By: Jun 27, 2017, 07:10 PM IST
'দুই অক্ষরের দাম ২০০০ কোটি'

ওয়েব ডেস্ক: 'আইপিএল', এই শব্দের আগে বসবে 'ভিভো', আর তার জন্য খরচ করতে হবে ২,১৯৯ কোটি টাকা। হ্যাঁ, আইপিএল'কে 'ভিভো' আইপিএল (VIVO IPL) করার জন্য চাইনিজ কোম্পানি খরচ করল ২,১৯৯ কোটি টাকা। আগামী ৫ বছরের জন্য ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের টাইটেল স্পনসরশিপ কিনে নিল চাইনিজ মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থা ভিভো। ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের সঙ্গে চাইনিজ কোম্পানি ভিভো যে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে তাতে স্পষ্ট বলা হয়েছে, "আইপিএল টাইটেল রাইটস নিজের অধীনেই রাখল ভিভো। ২০১৮ থেকে ২০২২ আইপিএল পর্যন্ত আইপিএল টাইটেল স্পনসরশিপ ভিভো'র দখলে। গত দুবছরের তুলনায় ৫৫৪ শতাংশ বর্ধিত মূল্যে ২,১৯৯ কোটি টাকায় এই সত্ত্ব কিনে নিয়েছে ভিভো"।  

২০১৬ এবং ২০১৭ আইপিএল টাইটেল কিনতে ভিভো খরচ করেছিল ২০০ কোটি টাকা। প্রতি বছর ১০০ কোটি টাকা, বিগত দু বছর ভিভো'র সঙ্গে এই চুক্তিই চলছে বিসিসিআইয়ের। সেই চুক্তি শেষ হওয়ার পরই নতুন ভাবে চুক্তি করার জন্য নিলামের আয়োজন করে বিসিসিআই। সেই নিলামে ভারতীয় দলের স্পনসর 'অপ্পো' মোবাইলকে টেক্কা দিয়ে আইপিএল টাইটেল সত্ত্ব নিজেদের পকেটে পুরে নিল 'ভিভো'। নিলামে আইপিএল টাইটেল সত্ত্ব কিনে নিতে ১,৪৩০ কোটি টাকা পর্যন্ত দর হেঁকেছিল অপ্পো। কিন্তু দিনের শেষে ভিভোর দেওয়া ২,১৯৯ কোটি টাকার মোটা অঙ্কের সামনে কার্যত দাঁড়াতেই পারেনি আর কোনও সংস্থা। 

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালে যখন প্রথম আইপিএল শুরু হয় তখন টাইটেল স্পনসরশিপ ছিল ডিএলএফ-এর। ২০১২ সালের পর ৩৯৬ কোটি টাকায় সেই সত্ত্ব কিনেছিল সফট ড্রিঙ্কস প্রস্তুতকারক সংস্থা পেপসি।