ভাইপো কেন? আমার নাম নিয়ে বলার বুকের পাটা নেই প্রধানমন্ত্রীরও: অভিষেক

মানসিকভাবে বিচলিত হয়ে এই ধরনের মন্তব্য করছেন, পাল্টা কৈলাস বিজয়বর্গীয়র।     

Updated By: Nov 29, 2020, 05:30 PM IST
ভাইপো কেন? আমার নাম নিয়ে বলার বুকের পাটা নেই প্রধানমন্ত্রীরও: অভিষেক

নিজস্ব প্রতিবেদন: সরাসরি নাম করে বলার ক্ষমতা নেই। ভাইপো-ভতিজা বলে আক্রমণ করছে সিপিএম-কংগ্রেস-বিজেপি। এই প্রথমবার 'ভাইপো' কটাক্ষের জবাব দিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়। সাতগাছিয়ার জনসভায় দেশের প্রধানমন্ত্রীকে রীতিমতো চ্যালেঞ্জ ছুড়ে বললেন,''আমার নাম নিয়ে বলার বুকের পাটা নেই ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রীরও।'' রাজ্যে বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়র প্রতিক্রিয়া, ওঁর ঘনিষ্ঠ কোল মাফিয়াদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করেছে সিবিআই ও আয়কর দফতর। মানসিকভাবে বিচলিত হয়ে এই ধরনের মন্তব্য করছেন।    

সম্পর্কে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো অভিষেক। সেই সম্পর্ক টেনে ডায়মন্ড হারবারের সাংসদের নাম না করে 'ভাইপো' বলে অহরহ নিশানা করে বিজেপি নেতৃত্ব। এতে সরাসরি নাম নিয়ে অভিযোগের যে আইনি ঝক্কি থাকে, তা সুকৌশলে এড়ানো যায়। এ দিন সেটাই বোঝাতে চাইলেন অভিষেক। বলেন,''ডায়মন্ড হারবারে সভা করেছিলেন নরেন্দ্র মোদী। বলেছিলেন, ভতিজাকা বাত্তি গুল হোনে বালা হ্যায়। ভতিজা, ভাইপো বলে আমায় আক্রমণ করে। সিপিএম, কংগ্রেস ও বিজেপি নেতাদের আক্রমণের কেন্দ্র ভাইপো। নাম নিতে পারেন না। আমার নাম নিয়ে বলার বুকের পাটা ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রীরও নেই। আমাকে যত বার আক্রমণ করেছে আমি আইনানুগ ব্যবস্থা নিয়েছি।''

কী আইনি ব্যবস্থা নিয়েছেন, সে কথাও মনে করিয়ে দেন অভিষেক। বলেন,''মুকুল রায় বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর প্রথম সভায় আক্রমণের কেন্দ্রবিন্দু অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেছিলেন, বিশ্ব বাংলার মালিক অভিষেক। হাইকোর্টে হারিয়েছি। দিলীপ ঘোষ, রাহুল সিনহা, নরেন্দ্র মোদী নাম ধরে বলেছে। আইনানুগ ব্যবস্থা নিয়েছি।

তৃণমূল সাংসদের হুঁশিয়ারি, এখন আর সরাসরি নাম নিতে পারছে না। ভাববাচ্যে নাম নেন। অভিষেক বলে দেখান। আমি বাংলার বীর সন্তান। আমি তো নাম নিয়ে বলছি, কৈলাস বিজয়বর্গীয় বহিরাগত। দিলীপ ঘোষ গুন্ডা, মাফিয়া। নাম করে বলছি, অমিত শাহ বহিরাগত। সুনীল দেওধর বহিরাগত। আকাশ বিজয়বর্গীয় গুন্ডা। কেন এদের বহিরাগত বলব না! মার্চ মাস থেকে লকডাউন শুরু হয়েছিল। ক'বার এসেছেন অমিত শাহ, ক'বার এসেছেন নরেন্দ্র মোদী, কৈলাস বিজয়বর্গীয়? একমাত্র রাস্তায় নেমেছেন আমাদের দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।''

রাজ্যে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় Zee ২৪ ঘণ্টাকে বলেন,''ওঁর ঘনিষ্ঠ কোল মাফিয়াদের বাড়িতে-অফিসে তল্লাশি চালিয়েছে সিবিআই ও আয়কর দফতর। সে কারণে বিচলিত হয়ে এসব বলছেন। এই ধরনের মন্তব্যের জবাব দিতে চাই না। ওঁর প্রতিক্রিয়া স্বাভাবিক। মানসিকভাবে বিচলিত হলেই এই ধরনের শব্দ ব্যবহার করে লোকে। আমার সহানুভূতি থাকল।'' 

তাঁকে গুন্ডা বলে অভিহিত করেছেন অভিষেক। তার পাল্টা বিজেপির রাজ্য সভাপতির প্রতিক্রিয়া,''একসময় ওরা গুন্ডামি করেছে। এখন আমাদের সময় এসেছে। হ্যাঁ, দিলীপ ঘোষ গুন্ডা। তোমার কি যায় আসে। ডিসেম্বরে সব বুঝে যাবে। দেওয়াল ভাঙবে। সময় সব বলবে, এফআইআর হবে।''

আরও পড়ুন- 'মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সঙ্গে গদ্দারির উত্তর মানুষ দেবে', নাম না করে শুভেন্দুকে বিঁধলেন কল্য়াণ