একদা যুযুধান মুকুলের হাত ধরেই বিজেপিতে অর্জুন

মুকুলের বিজেপিতে যোগদানের পর বারাকপুর শিল্পাঞ্চলে তৃণমূলের দণ্ডমুণ্ডের কর্তা হয়ে উঠেছিলেন অর্জুন। তাঁর ওপর ভরসা করেছিলেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকী দীনেশের বদলে অর্জুনকে বারাকপুরের প্রার্থী করা হতে পারে বলে গুঞ্জনও ছড়ায়।

Updated By: Mar 14, 2019, 12:04 PM IST
একদা যুযুধান মুকুলের হাত ধরেই বিজেপিতে অর্জুন

নিজস্ব প্রতিবেদন: এক সময় দলের ভিতরেই দু'জনের অবস্থান ছিল ২ মেরুতে। মুকুল রায়ের ছায়ায় ঢাকা পড়ে গিয়েছিলেন অর্জুন সিং। সেই মুকুলের হাত ধরেই এবার বিজেপিতে ভাটপাড়ার বিধায়ক।

 

মুকুলের বিজেপিতে যোগদানের পর বারাকপুর শিল্পাঞ্চলে তৃণমূলের দণ্ডমুণ্ডের কর্তা হয়ে উঠেছিলেন অর্জুন। তাঁর ওপর ভরসা করেছিলেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকী দীনেশের বদলে অর্জুনকে বারাকপুরের প্রার্থী করা হতে পারে বলে গুঞ্জনও ছড়ায়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত শিকে ছেঁড়েনি অর্জুনের কপালে। সোমবার নবান্নে অর্জুন ও দীনেশ ত্রিবেদীকে তলব করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জানিয়ে দেন, তাঁর সিদ্ধান্তের কথা। 

সূত্রের খবর, অর্জুনকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, দীনেশ ত্রিবেদীকেই বারাকপুর কেন্দ্র থেকে প্রার্থী করতে চলেছেন তিনি। তবে অর্জুনকে তিনি রাজ্যের মন্ত্রিত্ব দেওয়ার প্রস্তাব দেন। নবান্ন থেকে হাসি মুখে বেরোলেও তার পর থেকেই বেসুরো ছিলেন অর্জুন। 

তৃণমূলে বড় ভাঙন, আজই বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন ভাটপাড়ার বিধায়ক অর্জুন সিং

এর পরই বিজেপিতে যোগদানের তোড়জোড় শুরু করেন তিনি। মুকুল রায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করেন তিনি। বুধবার সন্ধ্যা দিল্লির বিমানে ওঠেন তিনি। তার পরই চরমে ওঠে জল্পনা। সূত্রের খবর, গভীর রাত পর্যন্ত কৈলাস বিজয়বর্গীয়র সঙ্গে বৈঠক করেন অর্জুন। বারাকপুরে তাঁকে প্রার্থী করা হবে, নিশ্চিত হতেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন তিনি। সূত্রের খবর, অর্জুনকে বিজেপিতে সব করমের সাহায্য করার আশ্বাস দিয়েছেন মুকুল রায়।