করোনা আক্রান্ত বাড়তেই মালদায় ফের লকডাউন, আজ নবান্নে বৈঠকে নজরে আরও ৪ জেলা

মূলত অতি প্রয়োজনীয় নিত্যসামগ্রী ও খাদ্যসামগ্রী দোকান ছাড়া সব-ই বন্ধ থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মালদা জেলাপ্রশাসন।  কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা ও হাওড়ায় প্রতিদিন-ই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। 

Edited By: সুতপা সেন | Updated By: Jul 7, 2020, 10:40 AM IST
করোনা আক্রান্ত বাড়তেই মালদায় ফের লকডাউন, আজ নবান্নে বৈঠকে নজরে আরও ৪ জেলা
ফাইল ফোটো

নিজস্ব প্রতিবেদন : জেলাজুড়ে করোনা সংক্রমণ বাড়ায় সোমবার সন্ধ্যায় ফের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে মালদায়। মালদার দুটি ব্লকে লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে জেলা প্রশাসন। অন্যদিকে, রাজ্যের আরও ৪ জেলার করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে আজ নবান্নে স্বাস্থ্যকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন মুখ্যমন্ত্রী। সূত্রের খবর কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা ও হাওড়া নিয়ে সেই বৈঠকে আলোচনা হবে। মালদার মতো এই ৪ জেলাতেও কি ফের লকডাউনের পথে হাঁটবে প্রশাসন? চূড়ান্ত হতে পারে এই বৈঠকে। আর তাই এখন সেইদিকেই তাকিয়ে রাজ্য।

প্রসঙ্গত, কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা ও হাওড়ায় প্রতিদিন-ই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। বিশেষ করে কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনায় প্রতিদিনই কমপক্ষে ২০০ জন করে করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। বাকি দুই জেলা, হাওড়া ও দক্ষিণ ২৪ পরগনাতেও গড়ে ১০০ জন করে আক্রান্ত হচ্ছেন। তাই আজ মুখ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে বৈঠকে কী সিদ্ধান্ত হয়, সেদিকে তাকিয়ে রাজ্য। চলুন দেখে নেওয়া যাক, সোমবারের সরকারি বুলেটিন অনুযায়ী এই ৪ জেলার করোনা পরিস্থিতিটা ঠিক কী রকম? আক্রান্ত-মৃতের পরিসংখ্যান কত? হাসপাতাল থেকে কতজন ছাড়া পেয়েছেন? হাসপাতালে কতজন সক্রিয় আক্রান্ত চিকিৎসাধীন আছেন?

উল্লেখ্য, মালদায় এখনও পর্যন্ত ৮০০ জনের বেশি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক থেকে ব্লক আধিকারিক আক্রান্ত হয়েছেন করোনাভাইরাসে। বাদ নেই পুলিশ কর্মীরাও। করোনায় মৃত্যুও হয়েছে ৪ জনের। জেলাজুড়ে করোনার সংক্রমণের হার বাড়তেই উদ্বেগ বাড়ে জেলা প্রশাসনিক কর্তাদের। গোষ্ঠী সংক্রমণ রুখতে সোমবারই তড়িঘড়ি জরুরি বৈঠকে বসেন প্রশাসনিক কর্তারা। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যকর্তারাও। জেলা প্রশাসনিক ভবনে সেই বৈঠকের পরই সিদ্ধান্ত হয় যে আগামী বুধবার থেকে লকডাউন করা হবে মালদার দুটি ব্লক ইংরেজবাজার ও পুরাতন মালদায়। এপ্রসঙ্গে জেলাশাসক জানান, রাজ্য সরকার অনুমোদন  করলেই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হবে। মূলত অতি প্রয়োজনীয় নিত্যসামগ্রী ও খাদ্যসামগ্রী দোকান ছাড়া সব-ই বন্ধ থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জেলাপ্রশাসন।

আরও পড়ুন, নাবালিকা সহ ৬ জনকে ধর্ষণ ও খুন, কালনার সিরিয়াল কিলার 'চেনম্যান'কে মৃত্যুদণ্ড