Durga Puja 2021: অষ্টমীতে মা'কে ভোগ দেওয়া হয় আট রকমের ডাল ভাজা ও হলুদ-মুড়ি দিয়ে

প্রথমদিকে পটে আঁকা দুর্গার পুজো হলেও এখন নিমকাঠের তৈরি দুর্গামূর্তিতেই পুজো হয়।

Updated By: Sep 28, 2021, 08:39 PM IST
Durga Puja 2021: অষ্টমীতে মা'কে ভোগ দেওয়া হয় আট রকমের ডাল ভাজা ও হলুদ-মুড়ি দিয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাঙালিদের বারো মাসে তেরো পার্বণের মধ্যে অন্যতম এবং সব থেকে বড় উৎসব দুর্গোৎসব। দুর্গোৎসবে বাংলার প্রতিটি মানুষ আনন্দে মাতোয়ারা হয়ে ওঠেন।

এ বাংলায় প্রাচীনকাল থেকেই দুর্গোৎসব হয়ে আসছে। প্রাচীনত্বের দিক দিয়ে বিভিন্ন জায়গার বনেদিবাড়ির দুর্গোৎসবগুলি উল্লেখযোগ্য। এগুলির রীতিনীতিতে নানা ফারাক দেখা যায়। তবে প্রতিটি বনেদিবাড়িই তাদের এই নিজস্ব রীতিনীতি প্রাচীনকাল থেকেই বহন করে আসছে বংশপরম্পরায়। 

আরও পড়ুন: Durga Puja 2021: জঙ্গলে মোষ চরানোর সময়ে গাছতলায় ঘুমিয়ে পড়েন; ঘুম ভাঙে দেবীর স্বপ্নাদেশে

এমনই এক দুর্গাপুজোর সন্ধান পাওয়া গেল বীরভূমের দুবরাজপুর ব্লকের হেতমপুরে। এখানকার সেন বা মুন্সি বাড়ির দুর্গাপুজোয় মহাষ্টমীতে দেবীর ভোগ হয় হলুদ-মুড়ি, ৮ রকমের কলাই ভাজা এবং আদা কুচি দিয়ে। কেন এমন ভোগ-ব্যবস্থা এখানে? এই পরিবারের এক সদস্য জানান, মা দুর্গা অষ্টমীর দিন নিজেই হলুদ-মুড়ি, ৮ রকমের কলাই ভাজা এবং আদাকুচি চেয়ে নিয়েছিলেন। আর তারপর থেকে মহাঅষ্টমীতে এগুলি দিয়েই ভোগ হয় এ বাড়িতে। এই পুজোয় কুমারী পুজো হয় অষ্টমঙ্গলায়।

আনুমানিক ১২১০ সালে (বস্তুত আরও প্রাচীন বলেই দাবি) ঈশানচন্দ্র মুন্সি ওরফে কুচীলচন্দ্র সেন রাজনগরের রাজার মুন্সেফ থাকাকালীন এই পুজোর প্রতিষ্ঠা করেন। পরিবারসূত্রে জানা গিয়েছে, স্বপ্নাদেশ পেয়েই মুন্সি ঈশানচন্দ্র এই পুজো আরম্ভ করেছিলেন। যদিও আর্থিক কারণে তিনি প্রথমে রাজি হননি। কিন্তু মায়ের ইচ্ছে ছিল, সাধ্যমতোই তাঁকে পুজো করা হোক। তাই হল। পুজো করা হবে ঠিক হওয়ার পরে ভেদে গুসকরার সত্তার গ্ৰাম থেকে মাটি এনে প্রতিষ্ঠিত হল মুন্সি তথা সেনবাড়ির দুর্গা। পরে সত্তার থেকে হেতমপুরের সেনবাড়ির ভিটেতেই পূজিত হন দুর্গা। প্রথম দিকে পটে আঁকা দুর্গা পুজো হলেও এখন অবশ্য় নিমকাঠের তৈরি দুর্গামূর্তির পুজোই হয়।

পুজোর চারদিন শুধুমাত্র সেন পরিবারের সদস্যরাই নন, এই পুজোকে ঘিরে গ্ৰামবাসীদের উদ্দীপনাও চোখে পড়ার মতো। এই পরিবারের লোকজনের সংখ্যাই প্রায় ৩০০-র মতো। তবে আগের বছর করোনা এই পুজোয় সম্মিলনে কিছু লাগাম টেনেছিল। এবছর পরিস্থিতি অন্তত কিছুটা স্বাভাবিক হবে বলেই মনে করছেন এই পরিবারের সদস্যরা। তাঁরা পুজোর সময়ে আবার একত্রিত হবেন।

(Zee 24 Ghanta App : দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)

আরও পড়ুন: Durga Puja 2021: মেয়েদের শ্বশুরবাড়িতে পুজো শুরু করলেন কৃষ্ণচন্দ্রের স্ত্রী রানি ভবানী