নাইট ডিউটিতে স্বামী, মালঞ্চে বধূর খাটেরতলায় লুকিয়ে থাকা প্রেমিককে ধরিয়ে দিল জুতো

সোনারপুরে মালঞ্চে থাকেন পেশায়  ক্যাবচালক তপন সাউ। বছরখানেক আগে প্রেম করে বিয়ে করেন মৌসুমীকে।

Updated By: Sep 3, 2019, 05:53 PM IST
নাইট ডিউটিতে স্বামী, মালঞ্চে বধূর খাটেরতলায় লুকিয়ে থাকা প্রেমিককে ধরিয়ে দিল জুতো

নিজস্ব প্রতিবেদন: রাতের বেলায় ঘরে ঢুকে পড়েছে চোর। খোঁজ করতেই খাটের তলা থেকে বেরোল বৌমার প্রেমিক। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুরে। গৃহবধূ ও তাঁর প্রেমিককে গ্রেফতার করেছে পুলিস।      

বাড়ির বাইরে পড়ে রয়েছে চটি জোড়া। অথচ পরিবারের কারও নয় সেটি। সন্দেহ হয় স্বপন সাইয়ের। স্ত্রীকে ডাকেন। খোঁজ শুরু হয় ঘরজুড়ে। ডাকা হয় ছোট ভাই তপন সাউয়ের স্ত্রী মৌসুমী। পেশায় ট্যাক্সিচালক তপনবাবু তখন বাড়ির বাইরে। চোর ধরতে নেমে পড়েন মৌসুমীও। আর ঠিক তখনই তাঁর ঘরের খাট থেকে বেরিয়ে এলেন সুভাস দাস। যিনি আবার তপন সাউয়ের বন্ধু। বন্ধুর স্ত্রীর সঙ্গে প্রেমপর্ব চালিয়ে যাচ্ছেন সুভাস।      

সোনারপুরে মালঞ্চে থাকেন পেশায়  ক্যাবচালক তপন সাউ। বছরখানেক আগে প্রেম করে বিয়ে করেন মৌসুমীকে। তিনি পেশায় টেলিকলার। বছর ঘুরতে না ঘুরতেই স্বামীর বন্ধু সুভাস দাসের সঙ্গে বিবাহ বর্হিভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন মৌসুমী। স্বামী রাতে গাড়ি নিয়ে বেরিয়েছিলেন। সেই সুযোগেই প্রেমিককে ঘরে ডেকে নিয়েছিলেন মৌসুমী। কিন্তু একটা ভুল করে ফেলেন সুভাস। চটি খুলে ঘরে ঢোকেন। রাতে শৌচালয়ে যেতে গিয়ে চটিজোড়া নজরে আসে তপনের দাদা স্বপন সাউয়ের। বাড়িতে চোর ঢুকেছে বলে সন্দেহ হয় তাঁর। খোঁজাখুঁজি শুরু হতেই ছোটভাইয়ের ঘরের খাটের তলা থেকে বেরিয়ে আসে প্রেমিক।                  

হাতেনাতে ধরা পড়ার পর স্বপন সাউ ও তাঁর স্ত্রীর উপরে হামলার অভিযোগ উঠেছে মৌসুমী ও সুভাসের বিরুদ্ধে। তাঁদের গ্রেফতার করে সোনাপুর পুলিস। দুজনকে জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন বারুইপুর আদালতের বিচারক। গোটা ঘটনায় হতবাক মৌসুমীর স্বামী তপন সাউ।  বিশ্বাসের এমন দাম যে পাবেন, ভেবেই দিশেহারা তিনি!  

আরও পড়ুন- 'আমাকে খুনের ষড়যন্ত্র!' মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে FIR দায়ের করছেন অর্জুন সিং