বাড়িতেই নরবলির চেষ্টা, পরিবারের হাত থেকে পালিয়ে বাঁচল গৃহকর্তা

বাড়িতে থাকতেন তার স্ত্রী সরস্বতী সুত্রধর,  ছেলে ব্রজগোপাল  ও মেয়ে কাঞ্চন সুত্রধর।সুধাকর পরম বৈষ্ণব। হরিনাম করে দিন কাটান। তবে তাঁর বাড়িতে অন্যরা ঘোর শাক্ত।

Updated By: Feb 22, 2020, 05:44 PM IST
বাড়িতেই নরবলির চেষ্টা, পরিবারের হাত থেকে পালিয়ে বাঁচল গৃহকর্তা

নিজস্ব প্রতিবেদন: অমাবস্যার রাত্রে বাড়িতে বাবাকে বলি দেওয়ার চেষ্টা করল ছেলে। কোনক্রমে পাঁচিল টপকে পালিয়ে নিজের প্রাণ বাঁচালেন বৃদ্ধ। এমন ভয়াবহ অভিযোগে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বীরভূমের সাঁইথিয়ায়। বৃদ্ধের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে বৃদ্ধের স্ত্রী ও মেয়েকে। পালিয়েছে বৃদ্ধের ছেলে। 

আরও পড়ুন: বিয়ে করলে তবেই জামিন, এই শর্তে মুক্তি পেল 'ধর্ষণকারী'

বীরভূমের সাঁইথিয়ার দশ নম্বর ওয়ার্ডের  শিবতলা এলাকার বাসিন্দা সুধাকর সুত্রধর। বাড়িতে থাকতেন তার স্ত্রী সরস্বতী সুত্রধর,  ছেলে ব্রজগোপাল  ও মেয়ে কাঞ্চন সুত্রধর।সুধাকর পরম বৈষ্ণব। হরিনাম করে দিন কাটান। তবে তাঁর বাড়িতে অন্যরা ঘোর শাক্ত।

তাঁর দাবি, গত একবছর ধরে  তিনি গৃহবন্দি ছিলেন। পড়শিরা গত একবছর ধরে জানতেন বৃদ্ধ সুধাকর বৃন্দাবন গেছেন নামগান করতে। আদতে পড়শিদের এমনটাই বলেছিলেন বৃদ্ধর বাড়ির লোকজন। কিন্তু বৃদ্ধ বাড়ির পাঁচিল টপকে বাইরে এসে জানিয়েছেন অন্য কথা। তাঁর অভিযোগ বিগত ১ বছর ধরে তাঁকে গৃহবন্দি করে রাখে তাঁর পরিবার। অমাবস্যার দিন দেখে তাঁকে বালি দিচ্ছিল স্ত্রী, মেয়ে ও ছেলে মিলে। বৃদ্ধ সুধাকর সূত্রধরের অভিযোগে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে সাঁইথিয়া জুড়ে। 

আরও পড়ুন: ইস্পাত কলোনির পার্কে বিজেপি নেতাকে মারধর, চলল গুলি, অভিযোগ তৃণমূলের দিকে

অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয়েছে বৃদ্ধের স্ত্রী ও মেয়েকে।  তবে নরবলির বিষয়টি  অস্বীকার করেছেন বীরভূমের পুলিস সুপার ,তিনি বলছেন, ঘটনায়  একটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে। যদিও, অভিযোগকারী অভিযোগে নরবলির কথা লেখেননি। আমরা ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করেছি অভিযুক্তদের ৷  বাকিটা আমরা তদন্ত করে দেখছি।"