ভাড়াবাড়ির ঘর থেকে উদ্ধার যুবতীর রক্তাক্ত দেহ, আটক প্রেমিক ও ৩ রুমমেট

এদিন সকালে ৬টা নাগাদ কাজে বেরিয়ে যান বাকি ৩ জন।

Updated By: Jul 27, 2019, 05:11 PM IST
ভাড়াবাড়ির ঘর থেকে উদ্ধার যুবতীর রক্তাক্ত দেহ, আটক প্রেমিক ও ৩ রুমমেট

নিজস্ব প্রতিবেদন : এক যুবতীর রহস্যমৃত্যুকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল দুর্গাপুরে।  আজ সকালে ঘরের মধ্যে রক্তাক্ত অবস্থায় ওই যুবতীর দেহ উদ্ধার হয়। এই ঘটনায় ওই যুবতীর প্রেমিক ও তাঁর তিন বান্ধবীকে আটক করেছে পুলিস। দেহ উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিস।

নিহত যুবতীর নাম কাজল মুরারি। জানা গিয়েছে, একটি প্রসাধনী বিপণনি সংস্থার হয়ে মার্কেটিংয়ে কাজ করতেন ওই যুবতী। দুর্গাপুর কোক ওভেন থানা এলাকার রায়ডাঙা অঞ্চলে আরও ৩ যুবতীর সঙ্গে বাড়ি ভাড়া করে থাকতেন। এদিন সকালে ৬টা নাগাদ কাজে বেরিয়ে যান বাকি ৩ জন। এরপরই ৭টা নাগাদ উদ্ধার হয় কাজল মুরারির রক্তাক্ত দেহ।

আরও পড়ুন, জানলা ও ফ্যানের সাথে ফাঁস দেওয়া অবস্থায় মা-বাবা! সোদপুরে ঘর থেকে উদ্ধার দম্পতির ঝুলন্ত দেহ

যুবতীর রহস্যমৃত্যুর ঘটনায় প্রথমেই সন্দেহের তির গিয়ে পড়ে প্রেমিক সুবীর সর্দারের দিকে। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, ৭টা নাগাদ প্রেমিক সুবীর সর্দারই বাড়ি মালকিনকে ডাকেন। ঘরের মধ্যে প্রেমিকা কাজল মুরারির রক্তাক্ত দেহ পড়ে থাকার কথা তিনি-ই প্রথম বাড়ি মালকিনকে জানান। এরপর বন্ধুর সাহায্যে ওই যুবতীকে হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিত্সকরা যুবতীকে মৃত বলে ঘোষণা করলে, দেহ নিয়ে বাড়ি চলে আসেন।

আরও পড়ুন, ডাক্তার দেখানোর নামে ডেকে কাকিমাকে নিয়ে পালিয়ে যায় ভাইপো! তারপর

এই ঘটনা জানাজানি হতেই স্থানীয়রা দুই যুবককে আটকে রেখে পুলিসকে ফোন করে। পুলিস এসে দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠায়। এরপর ওই দুই যুবকের পাশাপাশি, ওই ৩ জন তরুণীকেও আটক করে পুলিস। যাদের সঙ্গে একইসঙ্গে ভাড়া ছিলেন কাজল মুরারি। যুবতীর রহস্যমৃত্যুতে কারও ভূমিকাই সন্দেহের ঊর্ধ্বে রাখছে না পুলিস। সবদিক খতিয়ে দেখে তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।