close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

হারের পর এলাকার দখল নিতে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে ট্রিগার হ্যাপি পুলিস: মুুকুল

এদিন নবান্নে জরুরি বৈঠকে বসেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছিলেন মুখ্যসচিব মলয় দে। 

Updated: Jun 20, 2019, 05:45 PM IST
হারের পর এলাকার দখল নিতে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে ট্রিগার হ্যাপি পুলিস: মুুকুল

নিজস্ব প্রতিবেদন: ভাটপাড়ায় মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে গুলি চালিয়েছে পুলিস। এমনটাই অভিযোগ করলেন মুকুল রায়। একইসঙ্গে তদন্তের দাবিও তুলেছেন বিজেপি নেতা। তাঁর কথায়, ''ট্রিগার হ্যাপি পুলিস। খেটে মানুষকে হত্যা করেছে। চারজন মানুষ আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। সব দায়িত্ব নিতে হবে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে''।         

আজ নতুন থানা উদ্বোধনের আগে বোমা-গুলির তাণ্ডবে রণক্ষেত্র ভাটপাড়া। থানার ২০০ গজের মধ্যে চলে বোমাবাজি। শূন্যে ১৫ থেকে ২০ রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে পুলিস। গুলিবিদ্ধ হয়ে ২ জনের মৃত্যু হয়। মুকুল রায়ের দাবি, বারাকপুরে লোকসভা ভোটে হারার পর যেনতেন প্রকারে অশান্তি সৃষ্টি করতে চাইছেন পুলিস। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশেই গুলি চালিয়েছে তারা। ভাটপাড়া নিয়ে সাংসদ অর্জুন সিংয়ের সঙ্গেও কথা হয়েছে মুকুলের। বিজেপি নেতা বলেন,''অর্জুন সংসদে রয়েছেন। ওখান থেকে লোকজনের সঙ্গে যোগাযোগ করে শান্তি ফেরানোর চেষ্টা করছে''।         

মুকুল রায়ের অভিযোগ, পুলিসের গুলিতে মৃত্যু হয়েছে। নিরীহদের উপরে কেন গুলি চালানো হল, তার জবাব দিতে হবে মুখ্যমন্ত্রী। উনি হার মেনে নিতে পারছেন না। পুলিসকে দিয়ে ভাটপাড়ার দখল নিতে চাইছেন মমতা। ভাটপাড়ায় গুলি চালানোর ঘটনায় নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি করেছেন বিজেপি নেতা। 

এদিন নবান্নে জরুরি বৈঠকে বসেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছিলেন মুখ্যসচিব মলয় দে। কেন অচলাবস্থা কাটছে না ভাটপাড়ায়? প্রশ্ন করেন ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী। নির্দেশ দেন,"রং না দেখে গ্রেফতার করুন। যাঁকে যাঁকে প্রয়োজন গ্রেফতার করুন। তিন দিনের মধ্যে স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনতে হবে। কোনও রং দেখার প্রয়োজন নেই।"         

আরও পড়ুন- 'পুলিস এক রাউন্ডও গুলি চালায়নি, বাবা-ছেলে মিলে এসব করছে ভাটপাড়ায়', অর্জুনকে জবাব জ্যোতিপ্রিয়র