'বড় নেতা আনার নামে ৭-৮ লাখ টাকা লুঠ করেছে!' Arjun না আসায় ধুন্ধুমার BJP সভায়

" ২০১৭ সাল থেকে বার বার বড় বড় নেতা আসবে বলে স্থানীয় নেতৃত্ব টাকা তুলেছে। কিন্তু কোনও নেতা আজ পর্যন্ত আসেন না।"

Updated By: Feb 27, 2021, 08:00 PM IST
'বড় নেতা আনার নামে ৭-৮ লাখ টাকা লুঠ করেছে!' Arjun না আসায় ধুন্ধুমার BJP সভায়
নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন : বড় নেতা আসবে বলে লাখ লাখ টাকা তুলেছে। কিন্তু কোনও নেতা আসে না। এই অভিযোগে আজ কাটোয়ায় ধুন্ধুমার বেঁধে গেল বিজেপির (BJP) সভায়। সাংসদ অর্জুন সিংয়ের (Arjun Singh) সভায়  না আসা নিয়ে বিজেপির সভায় ব্যাপক গন্ডগোল বাঁধল। কর্মীদের ক্ষোভের মুখে পড়লেন কাটোয়া জেলা সভাপতি কৃষ্ণ ঘোষ। কোনওমতে পুলিসের সাহায্য নিয়ে সভাস্থল থেকে বের হন কৃষ্ণ ঘোষ। 

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়ার (Katwa) মঙ্গলকোটের কৈচর হাটতলায়। মারমুখী কর্মীদের ক্ষোভের হাত থেকে বাঁচতে বিজেপি (BJP) সাংগঠনিক সভাপতি তড়িঘড়ি গাড়িতে উঠে পড়েন। কিন্তু গাড়ি আটকেও বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন কর্মীরা। বিজেপি কর্মীদের অভিযোগ, ২০১৭ সাল থেকে বার বার বড় বড় নেতা আসবে বলে স্থানীয় নেতৃত্ব টাকা তুলেছে। কিন্তু কোনও নেতা আজ পর্যন্ত আসেন না। তাঁদের বিস্ফোরক অভিযোগ, "৭ থেকে ৮ লাখ টাকা জনগণের কাছ থেকে তুলে আত্মসাৎ করেছে স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব।" সেই টাকা কৃষ্ণ ঘোষকে ফেরত দিতে হবে বলেও দাবি জানাতে থাকেন বিক্ষোভকারীরা। 

আরও পড়ুন, ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণার পরদিনই TMC-র থেকে পঞ্চায়েত ছিনিয়ে নিল BJP

এদিকে এই সভায় উপস্থিত ছিলেন বিজেপিতে যোগদানকারী সাংসদ সুনীল মন্ডল (Sunil Mondal)। তিনি কর্মীদের ক্ষোভ যথার্থ বলে জানান। আরও জানান, "আমি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টা জানাব।" এর পাশাপাশি, কেন অর্জুন সিং (Arjun Singh) আজকের সভায় আসতে পারেননি, তার ব্যাখ্যা দেওয়ারও চেষ্টা করেন তিনি। কিন্তু ক্ষুব্ধ বিজেপি কর্মীরা সুনীল মন্ডলকে ঘিরে ধরেও বিক্ষোভ দেখান। একইসঙ্গে সভায় সুনীল মন্ডল ভুল ভাষণও দেন! বলেন, "একুশে তৃণমূলের সরকার গঠন হলে রাজ্য এবং কেন্দ্র একই সরকার হবে। একই সরকার হলে আপনারা ঘরে ঘরে উন্নয়ন পাবেন।"

আরও পড়ুন, 'জোড়হাতে' ক্ষমা চাইলেন Anubrata

এপ্রসঙ্গে মঙ্গলকোটের তৃণমূল ব্লক সভাপতি অপূর্ব চৌধুরী  দাবি করেন, "সুনীল মন্ডল ভাষণ ভুল দেওয়ায় বিজেপি কর্মীরা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। কয়েকটা গাড়িকে খুব স্পিডে বেরিয়ে যেতে দেখলাম। টাকা তুলে মেরে দিয়েছে বলে বিজেপি কর্মীরা নেতাদের মারধোর করতে গিয়েছিল। ওটাই ওদের কালচার।"

বড় খবর! ১৩০ আসনের সম্ভাব্য প্রার্থী কে কে, নাম প্রস্তাব রাজ্য BJP-র