'ভারতের 'কুৎসিত ভাষা' কী?' সার্চের পর উত্তর দিয়ে ক্ষমা চাইতে হল Google-কে

হঠাৎই এমন প্রশ্ন সার্চ করা এবং রাতারাতি গুগলের কাছ থেকে তাঁর জবাবের স্ক্রিনশট, ভিডিও, ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। 

Updated By: Jun 3, 2021, 11:17 PM IST
'ভারতের 'কুৎসিত ভাষা' কী?' সার্চের পর উত্তর দিয়ে ক্ষমা চাইতে হল Google-কে

নিজস্ব প্রতিবেদন: ক্ষমা চাইল গুগল (Google)। এক প্রকার চাপে পড়েই ক্ষমা চাইতে হল গুগলকে। কান্নাড়া (Kannada Language) ভাষাকে ভারতে "ugliest language" অর্থাৎ কুৎসিত ভাষার অধীনে রাখার জন্য আইনি নোটিস জারি করা হয়েছে তার বিরুদ্ধে। গুগলে (Google) ভারতের কুৎসিত ভাষা কী সার্চ করলে, সার্চ ইঞ্জিন দেখাচ্ছে Kannada। যা দুঃখ দিয়েছে কান্নাড়া (Kannada) ভাষাভাষীর মানুষকে।  

হঠাৎই এমন প্রশ্ন সার্চ করা এবং রাতারাতি গুগলের (Google) কাছ থেকে তাঁর জবাবের স্ক্রিনশট, ভিডিও, ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। কর্ণাটকের (karnatak) সরকার আইনি নোটিস পাঠায় গুগলকে। বলা হয়, তাঁদের ভাষাকে অপমান করা হয়েছে। তারকা থেকে রাজনীতিবিদ, সাধারণ মানুষ সকলেই গুগলের কাছে এমন ভুলের কৈফিয়ত চান। কটূক্তি করতে থাকেন গুগল সম্পর্কে। গুগলের সিইও একজন দক্ষিণ ভারতের মানুষ হওয়া সত্ত্বেও এমনটা হতে পারে? প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে। 

 

এরপর কর্ণাটকের সাংস্কৃতি এবং বন দফতরের মন্ত্রীরা টুইট করে গুগলকে ক্ষমা চাইতে বলেন। তাঁরা জানায়, গুগল হয়ত জানে না, কান্নাড়া ভাষার (History of Kannada Language)  নিজস্ব একটা ইতিহাস আছে। ২ হাজার ৫০০ বছরের পুরোনো এই ভাষা। এই ভাষা আমাদের গর্ব। 

আরও পড়ুন: হাতে গোনা কয়েকটা দেশের মধ্যে ভারতকে টিকা পাঠাচ্ছে আমেরিকা, Modi-কে ফোন কমলার

এরপরই ক্ষমা চায় গুগল। গুগলের (Google) তরফ থেকে জানান হয়, "কখনও কখনও, ইন্টারনেটে যেভাবে বিষয়বস্তু বর্ণনা করা হয়, তা সঠিক হয় না। বেশ কিছু প্রশ্নে অবাক করা উত্তর দিয়ে থাকে। আমরা জানি এইটা কখনই সঠিক নয়। তবে আমরা আরও সচেতন হওয়ার চেষ্টা করছি। ক্রমাগত আমাদের অ্যালগোরিদমগুলি উন্নত করার জন্য কাজ করে যাচ্ছি, এই ঘটনার পর আমরা দ্রুত সংশোধনমূলক পদক্ষেপ করেছি"

এরপর আরও জানায়,"ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে এবং কারও অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার জন্য আমরা ক্ষমা চাইছি,"।