পাকিস্তানে মেয়েদের ১২টি স্কুল পোড়ালো জঙ্গিরা

উত্তর পাকিস্তানের  কয়েক বছরে একের পর এক মেয়েদের স্কুলে হামলা চালিয়ে ধুলিসাত্ করে দিয়েছে জঙ্গিরা। ২০১১ সালে ডিসেম্বরে মেয়েদের দুটি স্কুলে বিস্ফোরণ ঘটায় জঙ্গিরা

Updated By: Aug 3, 2018, 07:26 PM IST
পাকিস্তানে মেয়েদের ১২টি স্কুল পোড়ালো জঙ্গিরা
ছবি- টুইটার

নিজস্ব প্রতিবেদন: গিলগিট-বাল্টিস্তানে মেয়েদের ১২টি স্কুল পুড়িয়ে দিল জঙ্গিরা। পাকিস্তানের গিলগিট থেকে ১৩০ কিলোমিটার দূরে চিলাস শহরে মেয়েদের একাধিক স্কুলে ভাঙচুর চালানো হয়। পুড়িয়ে দেওয়া হয় ১২টি স্কুলকে। তবে, কে বা কারা করেছে এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি। তদন্তে নেমেছে পুলিস।

আরও পড়ুন- হলিউডের কায়দায় চুরি সুইডেনের রাজপরিবারের সোনার মুকুট

স্থানীয়দের অভিযোগ, বৃহস্পতিবার রাতে ওই স্কুলগুলির উপর হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। তাদের শনাক্ত করতে পারেনি স্থানীয়রা। পাক সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, বেশি কিছু স্কুলে বিস্ফোরণও ঘটানো হয়। এই ঘটনার পর চিলাস শহরে সিদ্দিকি আকবর চকে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয় বাসিন্দারা। অবিলম্বে দুষ্কৃতীদের গ্রেফতারের দাবি জানান তাঁরা। গিলগিট বাল্টিস্তানের মতো পাকিস্তানের বিক্ষুব্ধ প্রদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উপর হামলা নতুন নয়। বিশেষ করে মেয়েদের স্কুলের উপর হামলা করতে দেখা গিয়েছে জঙ্গি সংগঠনগুলিকে।

আরও পড়ুন- ইমরানের দাওয়াত কি পাকা, তৈরি হচ্ছে সংশয়!

উত্তর পাকিস্তানের  কয়েক বছরে একের পর এক মেয়েদের স্কুলে হামলা চালিয়ে ধুলিসাত্ করে দিয়েছে জঙ্গিরা। ২০১১ সালে ডিসেম্বরে মেয়েদের দুটি স্কুলে বিস্ফোরণ ঘটায় জঙ্গিরা। চিলাস শহরেই ২০০৪ সালে মেয়েদের স্কুলগুলিকে ভেঙে দেওয়া হয়। মেয়েদের শিক্ষার প্রসারে ভীষণ রক্ষণশীল মনোভাব দেখিয়েছে সে দেশের মৌলাবাদী-সহ জঙ্গি সংগঠনগুলি। প্রায়শই তাদের হামলার শিকার হয়েছে স্কুলগুলি। এক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, গত দশ বছরে ১৫০০ স্কুল নিশ্চিহ্ন হয়ে গিয়েছে পাকিস্তান থেকে। ২০১২ সালে নোবেল শান্তি জয়ী মালালা ইউসুফজাই তালিবানের হাতে গুলিবিদ্ধ হন। স্কুলে যাওয়ার তাঁর প্রবল ইচ্ছাই ছিল একমাত্র অপরাধ! ১৫ বছরের কিশোরীর উপর এমন অমানবিক হামলায় সরব হয় বিশ্বের সব মহলে।

আরও পড়ুন- মেহুলকে ‘ক্লিন চিট’ দিয়েছে ভারতই, দাবি অ্যান্টিগা সরকারের