close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

বাংলাদেশে বাজেটে সংখ্যালঘুদের প্রতি বৈষম্যের অভিযোগ, মাথাপিছু বরাদ্দ মাত্র ৪ টাকা

রানাবাবু বলেন, 'বাংলাদেশে ৬৪টি জেলায় ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র তৈরির জন্য গত ৩ বছরে সরকার খরচ করেছে ৮৯১ কোটি টাকা। সেখানে সংখ্যালঘুদের জন্য এই খাতে কোনও বরাদ্দই করা হয়নি।'

Updated: Jun 24, 2019, 04:09 PM IST
বাংলাদেশে বাজেটে সংখ্যালঘুদের প্রতি বৈষম্যের অভিযোগ, মাথাপিছু বরাদ্দ মাত্র ৪ টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাংলাদেশের ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রকের বাজেট প্রস্তাবের বিরোধীতা করেছে সেদেশের সংখ্যালঘুরা। তাদের সংগঠনের পক্ষে দাবি করা হয়েছে, এই প্রস্তাবে দেশটিতে সংখ্যালঘুদের প্রতি রাষ্ট্রীয় অবজ্ঞা, অবহেলা আরও স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। 

 

বাংলাদেশের সংখ্যালঘুদের সংগঠন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশগুপ্ত লিখিত বিবৃতি পাঠ করে জানিয়েছন, বাজেটে সেদেশের সংখ্যাগুরু সম্প্রদায়ের জন্য মাথাপিছু বরাদ্দ হয়েছে ১১-১২ টাকা। সেখানে সংখ্যালঘু হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টানদের জন্য মাথাপিছু বরাদ্দ ৩ টাকা। 

রানাবাবু বলেন, 'বাংলাদেশে ৬৪টি জেলায় ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র তৈরির জন্য গত ৩ বছরে সরকার খরচ করেছে ৮৯১ কোটি টাকা। সেখানে সংখ্যালঘুদের জন্য এই খাতে কোনও বরাদ্দই করা হয়নি।' 

বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন কালচিনির তৃণমূল বিধায়ক উইলসন চম্প্রমারি

বাংলাদেশের সংখ্যালঘু সংগঠনটির দাবি, সেদেশের সংখ্যালঘুদের প্রতিনিধিত্ব আনুপাতিক নয়। বিষয়টি নিশ্চিত করতে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান পরিষদ গঠন করা হোক। বাজেট বৈষম্য অবসানে এককালীন ২০০ কোটি বাংলাদেশি টাকা বরাদ্দের দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।