যুদ্ধবিরতির চুক্তি ভেঙে ডোনেটস্ক বিমানবন্দরে কাছে ফের বিস্ফোরণ

দুদিন আগে যুদ্ধবিরতির চুক্তি পরও পূর্ব ইউক্রেনের ডোনেটস্কে উত্তেজনা ছড়াল। রবিবার সকালে ডোনেটস্কের বিমানবন্দরের কাছে বিস্ফোরণ হয়। এই উত্তেজনাপ্রবণ এলাকায় মে মাস থেকে উচ্চ নিরাপত্তায় সরকারি সেনা মোতায়েন রয়েছে। এরপর থেকে রুশপন্থী জঙ্গিরা আক্রমণ করতে সাহস পায়নি। প্রশ্ন উঠছে তবে হঠাত নিশ্চিদ্র নিরাপত্তার মধ্যে কিভাবে ব্যস্ত শহরে বিস্ফোরণ ঘটে।

Updated By: Sep 7, 2014, 05:13 PM IST
যুদ্ধবিরতির চুক্তি ভেঙে ডোনেটস্ক বিমানবন্দরে কাছে ফের বিস্ফোরণ

ওয়েব ডেস্ক: দুদিন আগে যুদ্ধবিরতির চুক্তি পরও পূর্ব ইউক্রেনের ডোনেটস্কে উত্তেজনা ছড়াল। রবিবার সকালে ডোনেটস্কের বিমানবন্দরের কাছে বিস্ফোরণ হয়। এই উত্তেজনাপ্রবণ এলাকায় মে মাস থেকে উচ্চ নিরাপত্তায় সরকারি সেনা মোতায়েন রয়েছে। এরপর থেকে রুশপন্থী জঙ্গিরা আক্রমণ করতে সাহস পায়নি। প্রশ্ন উঠছে তবে হঠাত নিশ্চিদ্র নিরাপত্তার মধ্যে কিভাবে ব্যস্ত শহরে বিস্ফোরণ ঘটে।

শনিবার যুদ্ধবিরতি আপদকালীন স্তগিত থাকে। কিন্তু রাশিয়ান বিচ্ছিন্নতাবাদীদের অভিযোগ ইউক্রেনের সেনারা যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে গুলি চালিয়েছে। সাত জন সেনা মারা যায় বলে দাবি করেছে তারা। তবে প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানিয়েছেন, উইক্রেন সেনাবাহিনীদের উদ্দ্যেশে গোলাবর্ষণ শুরু হয় মারিয়পোল শহরের ও প্রান্ত থেকে। মারিয়পোল শহর অবস্থিত আজভ সমুদ্রের তীরবর্তী। সেখানেই জঙ্গিরা আস্তানা করে রাশিয়া ও ক্রিমিন উপদ্বীপের মধ্যবর্তী জায়গাকে দখল করে।

গত ৫ সেপ্টেম্বর চার মাসের রক্তাত্ত যুদ্ধ চলার পর মিনস্কে রাশিয়া, ইউক্রেন এবং ক্রিম্লিন বিচ্ছিন্নতাবাদীদের মধ্যে যুদ্ধবিরতি চুক্তি স্বাক্ষর হয়। কিন্তু একদিনও না কাটতেই শুরু হয় পরস্পরের প্রতি দোষারোপ। যুদ্ধবিরতির শর্ত অনুযায়ী ইউক্রেন এবং বিরোধীদের মধ্যে বন্দি প্রত্যর্পণ ছাড়াও মূল যুদ্ধস্থল থেকে সেনা ও জঙ্গিদের সরে আসতে হবে৷ রাশিয়াও পূর্ব ইউক্রেনে ত্রাণসামগ্রী পাঠাতে পারবে৷ পশ্চিমি দুনিয়ার শীর্ষ নেতারা অবশ্য এই যুদ্ধবিরতি নিয়ে আশাবাদী নন৷