close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

অবৈধ আর্থিক লেনদেনের অভিযোগে গ্রেফতার পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট জারদারি

‘ফেডেরাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি’র (FIA) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ২০১৫ সাল থেকে কোটি কোটি টাকার অবৈধ লেনদেনের সঙ্গে জড়িত জারদারি।

Sudip Dey | Updated: Jun 11, 2019, 09:09 AM IST
অবৈধ আর্থিক লেনদেনের অভিযোগে গ্রেফতার পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট জারদারি
পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট এবং পিপলস পার্টির সহ-সভাপতি আসিফ আলি জারদারি।

নিজস্ব প্রতিবেদন: ভুয়ো ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট এবং একাধিক অবৈধ আর্থিক লেনদেনের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার করা হল পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট এবং পিপলস পার্টির সহ-সভাপতি আসিফ আলি জারদারিকে। সোমবার জারদারির ইসলামাবাদের বাসভবন থেকেই তাঁকে গ্রেফতার করে সে দেশের ‘ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরো’র (NAB) তদন্তকারী আধিকারিকরা।

জারদারির বিরুদ্ধে ন্যাব-এর (NAB) অভিযোগ, ভুয়ো ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে পাকিস্তানের বাইরে একাধিক সংস্থার সঙ্গে প্রায় ৪০০ কোটিরও বেশি টাকা লেনদেন করা হয়েছে। একই অভিযোগ আনা হয়েছে জারদারির বোন ফারয়াল তালপুরের বিরুদ্ধেও।

আরও পড়ুন: পিরানহা-ভর্তি পুকুরে ফেলে জেনারেলকে মৃত্যুদণ্ড দিলেন কিম

২০০৮ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ছিলেন জারদারি। ‘ফেডেরাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি’র (FIA) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ২০১৫ সাল থেকে কোটি কোটি টাকার অবৈধ লেনদেনের সঙ্গে জড়িত জারদারি। এই লেনদেনের সঙ্গে জড়িত একাধিক সংস্থার প্রায় সাড়ে ১১ হাজার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট এবং ৯২৪ জন ‘অ্যাকাউন্ট হোল্ডার’কে চিহ্নিত করা হয়েছে। ২০১৯ সালের ১৪ মে তাঁর বিরুদ্ধে অবৈধ লেনদেনের অভিযোগে ৮টি মামলা দায়ের করে পাকিস্তানের দুর্নীতি দমন শাখা ন্যাব। এই মামলায় অভিযুক্ত জারদারি ও তাঁর বোনের অন্তর্বতীকালীন জামিনের মেয়াদ বাড়াতে অস্বীকার করে অভিযুক্তদের গ্রেফতারের অনুমতি দেয় ইসলামাবাদ হাইকোর্টের দুই বিচারপতির বেঞ্চ। আদালতের এই রায় ঘোষণার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই জারদারিকে গ্রেফতার করেন ন্যাবের ১৫ সদস্যের তদন্তকারী দল।