ট্রাম্পের বানান ভুল হাসির খোরাক টুইটারে

তিনি ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পদপ্রার্থী। ডেমোক্র্যাট হিলারি ক্লিনটনকে হারালেই যিনি বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাশালী দেশের পয়লা নম্বর ব্যক্তি হয়ে যাবেন। এনাকে নিয়ে বিতর্ক, হাসিঠাট্টা একেবারে রোজকার ঘটনা। তিনি কিছু বললে খবর, হাসলে খবর, রেগে গেলে খবর। আবার কিছু না বললেও এমন ভাবভঙ্গিমা করেন সেটাও খবর হয়ে যায়। সেই চিরবিতর্কিত ট্রাম্প এবার বানান ভুল কাণ্ডে টুইটারে হাসির খোরাক হয়ে দাঁড়িয়েছেন।  

Updated By: Aug 1, 2016, 10:50 AM IST
ট্রাম্পের বানান ভুল হাসির খোরাক টুইটারে

ওয়েব ডেস্ক: তিনি ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পদপ্রার্থী। ডেমোক্র্যাট হিলারি ক্লিনটনকে হারালেই যিনি বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাশালী দেশের পয়লা নম্বর ব্যক্তি হয়ে যাবেন। এনাকে নিয়ে বিতর্ক, হাসিঠাট্টা একেবারে রোজকার ঘটনা। তিনি কিছু বললে খবর, হাসলে খবর, রেগে গেলে খবর। আবার কিছু না বললেও এমন ভাবভঙ্গিমা করেন সেটাও খবর হয়ে যায়। সেই চিরবিতর্কিত ট্রাম্প এবার বানান ভুল কাণ্ডে টুইটারে হাসির খোরাক হয়ে দাঁড়িয়েছেন।  

আরও পড়ুন-ট্রাম্পের জীবনের আরেক সত্যি

ক দিন আগেই ট্রাম্পকে আক্রমণ করে হিলারি বলছিলেন, পরমাণু অস্ত্র ভাণ্ডার ট্রাম্পের হাতে গেলে সেটা নিয়ে ক্ষতিকর কিছু করে বসতে পারেন এই ধনকুবের। তারই জবাব দিতে গিয়ে ট্রাম্প লেখেন, হিলারি ক্লিনটনের জাতীয় নিরাপত্তা নিয়ে কিছু বলার অধিকার নেই।  হিলারি ভুলভাল বকছেন। এটা লিখতে গিয়ে টুইটারে ট্রাম্প লেখেন,

 

Hillary Clinton should not be given national security briefings in that she is a lose cannon with extraordinarily bad judgement & insticts.

এই ২১ শব্দের টুইটে ট্রাম্পের তিনটে ভুল ধরল টুইটার বিশ্ব। আমেরিকান বানান অনুযায়ী‘lose’ শব্দটার সঠিক বানান হল ‘loose’‘। ‘instincts’ কথাটা ভুলভাবে বানান করে লেখেন insticts। আর judgement কথাটার মার্কিনরা লেখেন ‘judgment হিসেবে। স্থানীয় সাংবাদিকরা বলছেন, একজন মার্কিন রাষ্ট্রপতি পদপার্থী হিসেবে এতগুলো বানা ভুল বড্ড চোখে লাগছে।

আরও পড়ুন-