মেহুল চোকসিকে 'অত্যাচার', শরীরে ক্ষতচিহ্ন, বিস্ফোরক অভিযোগ আইনজীবীর

'স্বেচ্ছায় নয়, ডমিনিকা যেতে বাধ্য করা হয়েছিল'

Updated By: May 28, 2021, 07:51 AM IST
মেহুল চোকসিকে 'অত্যাচার', শরীরে ক্ষতচিহ্ন, বিস্ফোরক অভিযোগ আইনজীবীর

নিজস্ব প্রতিবেদন: অ্যান্টিগা থেকে ডমিনিকায় যেতে মেহুল চোকসিকে (Mehul Choksi) বাধ্য করা হয়েছে। তাঁর শরীরে মিলেছে একাধিক ক্ষতচিহ্নও। বৃহস্পতিবার এমনই বিস্ফোরক অভিযোগ সামনে আনলেন চোকসির আইনজীবী বিজয় আগরওয়াল। তিনি বলেন, স্বেচ্ছায় নয়, অ্যান্টিগা থেকে জোর করে নৌকোয় তোলা হয় চোকসিকে। জলি হারবার থেকে কয়েকজন লোক তাঁকে নৌকো করে ডমিনিকায় যেতে বাধ্য করেন। সেই ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার কথা চোকসি তাঁকে জানিয়েছেন বলে দাবি আইনজীবীর।

ডমিনিকায় নিয়ে গিয়ে তাঁকে আইনজীবীদের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ রাখতে দেওয়া হয়নি বলেও অভিযোগ। এ ব্যাপারে সেখানের আদালতে একটি পিটিশনও জমা দিয়েছে আইনজীবীরা। মেহুল চোকসিকে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে জানান অ্যান্টিগার প্রধানমন্ত্রী গ্যাস্টন ব্রাউন। কিন্তু তাতে কার্যত জল ঢেলে বৃহস্পতিবার ডমিনিকান রিপাবলিকের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানায় চোকসিকে অ্যান্টিগার পুলিসের হাতেই তুলে দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন: অ্যান্টিগায় ফেরত পাঠানো হবে Mehul Choksi-কে, জানিয়ে দিল ডমিনিকা

প্রসঙ্গত, ৬২ বছর বয়সী এই পলাতক হিরে ব্যবসায়ী পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কে আর্থিক কেলেঙ্কারি (PNB Scam) মামলায় অন্যতম অভিযুক্ত। ১৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকা ঋণখেলাপি মামলায় অভিযুক্ত সে। ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে ভারত ছাড়েন এই হিরে ব্যবসায়ী। ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের ছোট দেশ অ্যান্টিগায় গিয়ে নাগরিকত্ব নেন মেহুল চোকসি।

আরও পড়ুন: করোনার উৎস জানতে এবার গোয়েন্দাদের নির্দেশ বাইডেনের