বাগান ছেড়ে পুণে এফসি-র পথে টোলগে

মোহনবাগান ছেড়ে সম্ভবত পুণে এফ সি-তে যোগ দিচ্ছেন অসি গোলমেশিন টোলগে ওজবে। আগামী মরসুমে সম্ভবত ডেম্পোর কোচ হচ্ছেন আর্থার পাপাস। তাই ডেম্পোতেও যেতে পারেন টোলগেকে পেতে আগ্রহী। অসি স্ট্রাইকারের সঙ্গে আরও একবছর চুক্তি ছিল মোহনবাগানের। কিন্তু বাজেট সমস্যায় তাঁকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হচ্ছেন সবুজ-মেরুন কর্তারা।

বাজেট সমস্যায় টোলগেকে ছাড়ছে মোহনবাগান!

বাজেট সমস্যায় মোহনবাগান। টাকার অভাবে দল গড়তে নেমে মহা ফাঁপরে পড়েছেন সবুজ-মেরুন কর্তারা। আগামী মরসুমে দল গড়ার প্রাথমিক স্তরে চার বিদেশি হিসাবে টোলগে, ওডাফা, ইচে আর কাটসুমির নাম ঠিক করে ছিলেন মোহনবাগান কর্তারা। টোলগের সঙ্গে আগেই দুবছরের চুক্তি ছিল। নতুন করে চুক্তি করা হয় ওডাফার সঙ্গে। কাটসুমির সঙ্গেও চুক্তি প্রায় পাকা মোহনবাগানের। আর এখানেই সমস্যা দেখা দিয়েছে।

ওডাফা-টোলগের ইগো সামলেই বাজিমাত করিমের

মরসুমের প্রথম টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচের পরই শুরু হয় দুই নায়কের ইগোর লড়াই। টোলগে-ওডাফার মন কষাকষি নিয়ে সরগরম ছিল গোটা ময়দান। আর এই লড়াই ধামাচাপ দিতে ব্যর্থ হওয়ায় চাকরি যায় কোচ সন্তোষ কাশ্যপের। বাগানের সংসারে করিম আসার পর এই দুই তারকাকে নিপুন হাতে সামলানোই ছিল মরক্কোন কোচের একমাত্র চ্যালেঞ্জ। কখনও চোট,কখনও কার্ড, কখনও অসুস্থ হওয়ার জন্য টোলগে-ওডাফাকে একসঙ্গে পাচ্ছিলেন না কোচ করিম।

ওডাফা, টোলগেদের গোল খিদেয় কাঙাল স্পোর্টিং

গোয়ায় আছড়ে পড়ল মোহনবাগান সুনামি। সেই সুনামিতে ভেসে গেল স্পোর্টিং ক্লাব দ্য গোয়া। আই লিগে অবনমন বাঁচানোর চ্যালেঞ্জে নেমে জ্বলে উঠল করিম বেঞ্চারিফার দল। মাপুসার দুলের স্টেডিয়ামে ওডাফার দুরন্ত হ্যাটট্রিকে ভর করে মোহনবাগান জিতল ৫-১ গোলে। ওডাফার হ্যাটট্রিকের পাশাপাশি জোড়া গোল করলেন টোলগে।

গুড ফ্রাইডের আগে`ব্যাড থার্সডে` মোহনবাগানের

কল্যাণী স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবারের আই লিগ ম্যাচটা হতে পারে এক রকম আর বাস্তবে হল অন্যরকম। লাজংয়ের কাছে পয়েন্ট হারিয়ে আই লিগে অবনমনের `বিপদঘণ্টা` জোরাল হল মোহনবাগানে। ম্যাচের প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকার পর হোলির দিন টোলগেদের খেলা দেখে মনে হচ্ছিল সব রঙ মাঠের বাইরে খেলে এসেছেন, তাই এতটা বর্ণহীন। তবে বিরতির পরে দশ মিনিট দারুণ খেলে গোল তুলে নেয় মোহনবাগান।

জয় অধরাই বাগানে

আই লিগে জয় ফের অধরাই থাকল মোহনবাগানের। নির্বাসনের শাস্তি কাটিয়ে উঠে ফেরার পর আবার ড্র করল করিম বেঞ্চারিফার দল। রবিবার কল্যাণী স্টেডিয়ামে ম্যাচের একেবারে শেষের দিকে গোল খেয়ে জেতা ম্যাচ ড্র করল মোহনবাগান। ম্যাচের ৮৮ মিনিট পর্যন্ত এক গোল এগিয়ে থাকা করিমের দল তিন পয়েন্ট থেকে বঞ্চিত হল র‍্যান্টি মার্টিন্সের দুরন্ত গোলে। যার মানে দাঁড়াল অবনমনের ভূত আরও চেপে বসলে মোহনবাগানের কাঁধে।

কালকের ম্যাচে অনিশ্চিত টোলগে, সতর্ক র‌্যান্টি

রবিবার প্রয়াগ ইউনাইটেড ম্যাচে হঠাত্‍ই অনিশ্চিত হয়ে পড়লেন টোলগে ওজবে। এদিন সকাল থেকেই হ্যামস্ট্রিংয়ে ব্যথা অনুভব করেন অসি স্ট্রাইকার।গোটা দল যখন অনুশীলন করছে,তখন ফিজিও জোনাথন কর্নারের কাছে রিহ্যাবে ব্যস্ত ছিলেন টোলগে।বল পায়ে অনুশীলনেই নামেননি তিনি। কোচ করিম অবশ্য বলছেন চোট গুরুতর নয়। তবে রবিবার সকালে ফিটনেস টেস্ট নিয়েই মাঠে নামানো হবে টোলগেকে।  

বাগানের নির্বাসনে হতাশায় ডুবে ব্যারেটো, টোলগে

একজন অতীত আর একজন বর্তমান। মোহনবাগানের নির্বাসনের পর ক্লাবের অতীত আর বর্তমান একই দুনিয়ায় বাস করছে। তা হল হতাশা। গোটা বিশ্ব, গোটা দেশ, গোটা রাজ্য যখন বর্ষবরণের আলোয় ভেসেছে, তখন মোহনবাগানের পৃথিবীতে শুধুই অন্ধকার। আর এই অন্ধকারের দুনিয়ায় ডুবে টোলগে, ব্যারেটোর।

টোলগের গোল, বাগানে স্বস্তির জয়

ইদানিং হারটা এত অভ্যাস হয়ে গেছে যে কোনও দিন মোহনবাগানের জয়ের খবরটা ব্রেকিং নিউজে অনায়াসে জায়গা পেয়ে যাবে। আর সেই জয়ে যদি গোলদাতার নাম হিসাবে টোলগে থাকেন তাহলে কথাই নেই। বডদিনের পরদিন কলকাতা প্রিমিয়ার লিগের খেলায় ঠিক তাই হল। মোহনবাগান বড় জয় পেল। তার চেয়েও বড় কথা কোটি টাকার স্ট্রাইকার যাকে নিয়ে মরসুমে আগে একেবারে যুদ্ধ করতে হল সেই টোলগে গোল পেলেন। মোহনবাগান ৪-০ গোল জিতল পুলিস এসির বিরুদ্ধে।

ফের চোট পেলেন টোলগে

চোট কাটিয়ে ফিরে এসে আবার চোটের কবলে চোলগে। মহমেডান স্পোর্টিং ম্যাচে কামব্যাক করেছিলেন দুমাস পর। শুক্রবার আবার অনুশীলনের সময় পায়ে আবার নতুন করে চোট পান টোলগে। নতুন করে অসি গোলমেশিনের চোট নিয়ে চিন্তা বাড়ে মোহনবাগানে। শনিবার থেকে আলাদা অনুশীলন করেন টোলগে।

মোহনবাগানে হাজির সান্তা, উপহার ফিট টোলগে

ক্রমাগত বিতর্ক আর খারাপ পারফরম্যান্সে জেরবার মোহনবাগান। এর মধ্যেই সবুজ বাগানে যেন নতুন বার্তা নিয়ে এলেন সান্তা। সামনেই বড়দিন। তার বেশ কয়েকদিন আগেই উপহার নিয়ে মোহনবাগানে হাজির সান্তাক্লজ। উপহার তুলে দিলেন মোহনবাগানের দুই তারকা ওডাফা আর টোলগের হাতে। এই মরসুমে সবচেয়ে বেশি আলোচনা হয়েছে টোলগে আর ওডাফার ইগোর লড়াই নিয়ে। সান্তা যেন নিজের ক্যারিশমা দিয়ে মিলিয়ে দিলেন দুই মহাতারকাকে।

চোট সারিয়ে অবশেষে ফিরছেন টোলগে

যাবতীয় জল্পনার অবসান ঘটিয়ে শহরে ফিরছেন টোলগে ওজবে ।আগামী সপ্তাহের শুরুতেই কলকাতায় আসছেন অসি স্ট্রাইকার। পুণেয় হাঁটুতে চোট পেয়েছিলেন তিনি। তারপর চোট সারাতে দেশে ফিরে যান তিনি। এখন অবশ্য অনেকটাই সুস্থ টোলগে। যদিও এখনও অনুশীলন শুরু করেননি তিনি। ই মেলে টোলগে জানাচ্ছেন কলকাতায় ফেরার আগেই সম্ভবত তিনি অনুশীলন শুরু করে দেবেন। দীর্ঘসময় মাঠের বাইরে রয়েছেন। তবে ইন্টারনেটে নিয়মিত আই লিগের সমস্ত খবরাখবর রাখেন তিনি। দীর্ঘ বিশ্রামের পর চোট কাটিয়ে মাঠে নামার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন তিনি।

টোলগেকে নিয়ে অসন্তোষ বাড়ছে বাগানে

সতীর্থদের কাছে গোপন রেখে হঠাত্‍ই অস্ট্রেলিয়ায় অস্ত্রোপচারের জন্য উড়ে গিয়েছিলেন টোলগে। পরের দিন অনুশীলনে এসে ফুটবলার এমনকি কোচও জানতে পারেন তিনি এখন এদেশে নেই। টোলগের এই আচরণ ভালভাবে নেননি তাঁর সতীর্থরা। মুখে এই অসন্তোষের কথা বলে বিতর্ক বাড়াতে চাইছেন না মোহনবাগানের কোনও ফুটবলারই। পরিসংখ্যান বলছে, টোলগে ছাড়াই মোহনবাগানের পারফরম্যান্স বেশি ভাল। তিনটি ম্যাচে জয় ও একটি ড্র। বিশেষ সূত্রের খবর, ক্লাবের কোনও ফুটবলার এখনও পর্যন্ত টোলগের সঙ্গে যোগাযোগও করেননি।

বাগানে সুখবর, করিমের সঙ্গে ফিরছেন টোলগে

ঘরোয়া ও আইলিগ মিলে টানা তিনটি ম্যাচে জয়। মোহনবাগানের চাকা খানিকটা হলেও উল্টোপথে ঘুরছে। কাকতালীয়ভাবে করিম বেঞ্চিরিফার নাম ঘোষণার পর থেকেই জয়ের রাস্তায় ফিরেছে মোহনবাগান। সহকারী কোচ মৃদুল বন্দ্যোপাধ্যায় ও হেমন্ত ডোরার তত্বাবধানে মোহনবাগান জয় পেলেও বারবারই সাফল্যের কাণ্ডারি হিসেবে উঠছে করিমের নাম। সোমবার অনুশীলন শেষে কোচ হেমন্ত ডোরার সাফ জবাব,এয়ার ইন্ডিয়া ম্যাচ ছাড়া কোনও ম্যাচের আগে করিমের সঙ্গে তাঁদের কথা হয়নি। তিনি ও কোচ মৃদুল ম্যাচ অনুযায়ী স্ট্র্যাটেজি তৈরি করেছেন।

অভিষেকেই বাগানে ফুল ফোটালেন টোলগে

মোহনবাগানের জার্সি গায়ে প্রথম ম্যাচে খেলতে নেমেই জোড়া গোল করলেন টোলগে। কলকাতা ময়দানের সবচেয়ে বড় বিতর্কের অধ্যায় কাটিয়ে টোলগে বুঝিয়ে রাখলেন তিনি বাগানের জার্সি গায়ে উজাড় করে দেবেন।

শেষমুহুর্তে বাতিল টোলগে-ইস্টবেঙ্গল বৈঠক

বৈঠকে সম্ভবত ইস্টবেঙ্গল বা টোলগেকে ডাকা হচ্ছে না। আইএফএ জমা দেওযা দুপক্ষের কাগজপত্র দেখেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। টোলগের দেওয়া ৩টি শর্তের মধ্যে একটা মেনে নিয়েছে রাজ্য ফুটবল সংস্থা। ইস্টবেঙ্গলের তরফ থেকে বৈঠকে হাজির থাকতে পারেন ফুটবল সচিব বাবু ভট্টাচার্য আর অন্যতম শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকার।