close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

মেয়ে সৌন্দর্যের সঙ্গীতের অনুষ্ঠানে জমিয়ে নাচলেন রজনীকান্ত

 ২০১৯-এ তাই আরও একটা গর্জিয়াস বিয়ের সাক্ষী হতে চলেছেন চলচ্চিত্র জগৎ নিয়ে উৎসুক ব্যক্তিরা।

Updated: Feb 11, 2019, 01:19 PM IST
মেয়ে সৌন্দর্যের সঙ্গীতের অনুষ্ঠানে জমিয়ে নাচলেন রজনীকান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদন:  দক্ষিণী তারকা রজনীকান্তের ছোট মেয়ে সৌন্দর্যের মেয়ের বিয়ে বলে কথা। তাই আড়ম্বর যে হবে সেটাই স্বাভাবিক। ২০১৯-এ তাই আরও একটা গর্জিয়াস বিয়ের সাক্ষী হতে চলেছেন চলচ্চিত্র জগৎ নিয়ে উৎসুক ব্যক্তিরা।

সোমবার হতে চলেছে সৌন্দর্যের বিয়ের অনুষ্ঠান। তবে তার আগে রবিবার ছিল সৌন্দর্যের মেহেন্দি ও সঙ্গীতের অনুষ্ঠান। সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সৌন্দর্যের বাবা রজনীকান্ত, ছেলে ( প্রথম পক্ষে স্বামী অশ্বিন ও তাঁর সন্তান) এবং দ্বিতীয় পক্ষের হবু বর বিশাগণ ভানাঙ্গামুদি ও তাঁর পরিবার। পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন বর ও কন্যা পক্ষের আত্মীয় ও বন্ধু-বান্ধবরা। 

আরও পড়ুন-উত্তম কুমারকে ঘায়েল করে ছেড়েছিলেন সেদিনের এই মিস শেফালি

মেয়ে সৌন্দর্যর সঙ্গীতের অনুষ্ঠানে জমিয়ে নাচতে দেখা গেল দক্ষিণী সুপারস্টার রজনীকান্তকে। তাঁর নিজেরই তামিল ছবি 'মুথু'-র গান অরুভান অরুভান মুদাল্লাল গানের সঙ্গে নাচতে দেখা যায় থালাইভা রজনীকান্তকে। 

আরও পড়ুন-সরস্বতী পুজোয় ভক্তদের ম্যাজিক দেখালেন মুমতাজ সরকার

 
 
 
 

 
 
 
 
 
 
 
 
 

 
 
 
 

 
 
 
 
 
 
 
 
 

প্রসঙ্গত, রজনীকান্তের ছোট মেয়ে সৌন্দর্যের তাঁর কেরিয়ার শুরু করেন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসাবে। বহু খ্যতনামা দক্ষিণী ছবিতে গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসাবে কাজ করেছেন সৌন্দর্য। অন্যদিকে সৌন্দর্যের হবু বর বিশাগণ ভানাঙ্গামুদি অ্যাপেক্স ল্যাবরেটরি প্রাইভেট লিমিটেডের মালিক এস এস ভানাঙ্গামুদিরর ছেলে। ২০১৮ সালে তামিল ছবির মাধ্যমে বিশাগণ ভানাঙ্গামুদি তাঁর অভিনয় জীবন শুরু করেন। এই বিয়েটি সৌন্দর্য ও বিশাগণ ভানাঙ্গামুদির উভয়েরই দ্বিতীয় বিয়ে। ২০১০ সালে সোন্দর্য বিয়ে করেছিলেন শিল্পপতি অশ্বিন রামকুমারকে। ২০১৬ সালে সৌন্দর্য বিবাহ-বিচ্ছেদের আবেদন করেন। অশ্বিন ও সৌন্দর্যের এক ছেলেও রয়েছে, যে সৌন্দর্যের সঙ্গেই থাকে। অন্যদিকে বিশাগণ ভানাঙ্গামুদি প্রথমবার এক ম্য়াগাজিনের এডিটর কণিকা কুমারণকে বিয়ে করেন। পরে তাঁদের বিবাহ-বিচ্ছেদ হয়। 

আরও পড়ুন-বীরেন্দ্রকৃষ্ণ-উত্তম বিতর্ক উস্কে দিল 'মহালয়া'