CORONAVIRUS বাতাসে ছড়ানোর সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে না : WHO

হু-এর কোভিড নাইন্টিন বিশ্বমারীর টেকনিক্যাল লিড মারিয়া ভ্যান কেরখোভ এ বিষয়ে মঙ্গলবার নিজের বক্তব্য জানান। সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, "আমরা বাতাসের মাধ্যমে কোভিড নাইন্টিন ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করছি।"

Updated By: Jul 8, 2020, 01:39 PM IST
CORONAVIRUS বাতাসে ছড়ানোর সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে না : WHO
হু-এর কোভিড নাইন্টিন বিশ্বমারীর টেকনিক্যাল লিড মারিয়া ভ্যান কেরখোভ

নিজস্ব প্রতিবেদন : করোনাভাইরাস বায়ুবাহিত হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন বিশ্বের ৩২ টি দেশের ২৩৯ জন গবেষক। তাঁরা এই মর্মে সম্মিলিতভাবে হু-এর কাছে আলোচনা ও গাইডলাইনে বদলের প্রস্তাবও দিয়েছিলেন। এবার সেই প্রস্তাবই বিবেচনা করে দেখা হচ্ছে বলে জানাল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। 

হু-এর কোভিড নাইন্টিন বিশ্বমারীর টেকনিক্যাল লিড মারিয়া ভ্যান কেরখোভ এ বিষয়ে মঙ্গলবার নিজের বক্তব্য জানান। সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, "আমরা বাতাসের মাধ্যমে কোভিড নাইন্টিন ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করছি।"

উল্লেখ্য, এর আগে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছিল যে করোনাভাইরাস হাঁচি বা কাশির সময়ে ৬ ফুট দূর পর্যন্ত ছিটকে যেতে পারলেও এটি বায়ুবাহিত নয়। তবে, বিভিন্ন ক্ষেত্রে এটি বাতাসের মাধ্যমে ছড়ানোর সম্ভাবনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও জানায় হু। তবে, এ ক্ষেত্রে প্রচুর সংখ্যক সংক্রমণের ঘটনার ডেটা অ্যানালিসিস করা প্রয়োজন। যা যথেষ্ট সময়সাপেক্ষ ও কঠিন। 

হু-এর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার আঞ্চলিক প্রধান ক্ষেতরপল সিং জানান, "এখনও পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্যের মাধ্যমে এবং অন্যান্য ধরনের করোনাভাইরাসের বিষয়ে আমাদের অভিজ্ঞতা অনুযায়ী, আক্রান্ত ব্যক্তির শ্বাসনালি নিঃসৃত ড্রপলেট(হাঁচি, কাশি) ইত্যাদির মাধ্যমে সংক্রমণ ঘটতে পারে।" একইভাবে আক্রান্ত ব্যক্তির স্পর্শ থেকেও ছড়াতে পারে ভাইরাস, জানান তিনি। "আর ঠিক এই কারণেই হু সবাইকে মাস্ক পরতে ও বারবার হাত ধুতে অনুরোধ করছে," বলেন তিনি।

তবে মঙ্গলবার, 'বাতাসের মাধ্যমে করোনাভাইরাস ছড়াতে পারে'-এমন আশঙ্কা প্রকাশ করে বিশ্বের ৩২টি দেশের ২৩৯ জন গবেষক হু-কে খোলা চিঠি দেয়। তাঁদের দাবি, বায়ুবাহিত হলে আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে না এসেই কেবল শ্বাস গ্রহণের মাধ্যমেই করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঘটতে পারে। 

সোমবার এই চিঠিটি ক্লিনিক্যাল ইনফেকশাস ডিজিজ জার্নালেও প্রকাশিত হয়। আর তারপরেই জোর আলোচনা শুরু হয় বিশ্বজুড়ে। হু-এর গাইডলাইনে কি তবে আবার বদল আসতে পারে? সেই নিয়েই শুরু হয়েছে জল্পনা।

চিঠির তত্ত্বটি যে একেবারেই উড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে না, সে বিষয়ে জানিয়েছে হু। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, "সব ক্ষেত্রর মতোই করোনাভাইরাস বিশ্বমারীতেও প্রতিনিয়ত নতুন নতুন সম্ভাবনা ও তার প্রমাণ মিলছে।" 

আরও পড়ুন : মুক্তির দিন নিয়ে ধোঁয়াশার মধ্যেই শুরু হচ্ছে ভারতের করোনা টিকা Covaxin-এর হিউম্যান ট্রায়াল!