কী করবেন, কী করবেন না: কোভিড প্রোটোকল প্রকাশ করল রাজ্যের স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ দপ্তর

কী ভাবে চিকিৎসা হবে তার একটা রূপরেখা নির্দেশ করে দেওয়া হয়েছে এই প্রোটোকলে।

Updated By: Apr 18, 2021, 05:41 PM IST
কী করবেন, কী করবেন না: কোভিড প্রোটোকল প্রকাশ করল রাজ্যের স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ দপ্তর

নিজস্ব প্রতিবেদন: ল্যাবরেটরি টেস্ট যেসব রোগীকে কোভিড-১৯ রোগী হিসাবে কনফার্ম করবে তাঁদের কাদের কোথায় কীভাবে রেখে চিকিৎসা করানো হবে এ বিষয়ে রবিবার এক নির্দেশিকা প্রকাশ করল রাজ্যের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তর।

যেসব রোগী asymptomatic,যাঁদের কোমরবিডিটি ফ্যাক্টর আছে, যাঁদের কোনও কোমরবিডিটি ফ্যাক্টর নেই, যাঁদের মাইল্ড  symptom দেখা যাচ্ছে, যাঁদের জ্বর কম, কোনও শ্বাসকষ্ট নেই, রক্তচাপ ও অন্যান্য কিছু কিছু বিষয়ে কোনও সমস্যা না থাকলে তাঁদের বাড়িতেই রাখতে হবে।

এবং সেক্ষেত্রে হোম-আইসোলেশনে এই বিষয়গুলির উপর খেয়াল রাখতে হবে: রোগীর দেহের তাপমাত্রা, পালস, রক্তচাপ, অক্সিজেন লেভেল নিয়মিত পরীক্ষা করতে হবে। ইসিজি, সিবিজি, সেরাম ক্রিয়েটিনিন ইত্যাদি পরীক্ষার ব্যবস্থা রাখতে হবে। 

আরও পড়ুন: WB assembly election 2021: করোনার কারণে পশ্চিমবঙ্গে ভোটসফর বাতিল করলেন রাহুল গান্ধী

মাস্ক, (MASK) স্যানিটাইজার, ফিজিক্যাল ডিসট্যান্সিং যথাযথ রক্ষা করে চলতে হবে। জ্বর এলে এবং গায়ে ব্যথা হলে প্যারাসিটামল খেতে হবে। 

কিন্তু কোন কোন ক্ষেত্রে বিশেষ নজর রাখতে হবে?

শ্বাসকষ্ট হলে, বারবার জ্বর (FEVER) এলে বা বেশি জ্বর উঠলে, বুকে ব্যথা হলে, কাশি হলে, অক্সিজেন স্যাচুরেশন ৯৫ শতাংশের নীচে নামলে এবং এসব ছাড়াও কোনও নতুন উপসর্গ দেখা দিলেই সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করে তাঁদের কোভিড ওয়ার্ডে ভর্তি করতে হবে। 

symptomatic রোগী যাঁদের কোমর্বিডিটি ফ্যাক্টর কাজ করে তাঁদের ক্ষেত্রে দেখতে হবে বয়স যদি ৬০-এর বেশি হয়, যদি copd-র সমস্যা থাকে, লিভারের সমস্যা থাকে, ওবেসিটি থাকে তাহলে তাঁদের হাসপাতালে ভর্তি করতে হবে। এঁদের যদি অক্সিজেন দিতে হয় তবে রাখতে হবে কোভিড ওয়ার্ডে। না হলে এইচডিইউ বা আইসিইউ-তে ভর্তি করতে হবে। 

symptomatic রোগী, কিন্তু যাঁদের কোমর্বিডিটি ফ্যাক্টর নেই, তাঁদের ক্ষেত্রে দেখতে হবে, জ্বর বেশি উঠছে কিনা, শ্বাসকষ্ট কতটা, রক্তচাপের অবস্থা কেমন, অক্সিজেন স্যাচুরেশন লেভেল কতটা। বুকে ব্যথা থাকলেও ভর্তি করতে হবে। 

রোগীদের ক্ষেত্রে নিউমোনিয়ার সমস্যা আছে কিনা, দেখতে হবে তা-ও। মোটকথা, করোনা সংক্রমিত এবং অক্সিজেনের (OXYGEN) প্রয়োজনীয়তা রয়েছে এমন রোগীদের ক্ষেত্রে চূড়ান্ত সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

আরও পড়ুন: COVID-19: টিকা,ওষুধ ও অক্সিজেন চেয়ে Mamata চিঠি লিখলেন PM Modi কে