ইকোপার্কে ফুচকা-আলুকাবলি খেতে খেতে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে মেট্রো জট খুলতে রাজি : বাবুল

বাবুল সুপ্রিয়র উপর মেট্রো (Kolkata Metro) দেখভালের দায়িত্ব দিয়েছেন পীযূষ গয়াল।

Reported By: শ্রেয়সী গঙ্গোপাধ্যায় | Edited By: সুদেষ্ণা পাল | Updated By: Feb 14, 2020, 09:17 PM IST
ইকোপার্কে ফুচকা-আলুকাবলি খেতে খেতে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে মেট্রো জট খুলতে রাজি : বাবুল

নিজস্ব প্রতিবেদন : "নিমন্ত্রণ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী অসত্য বলছেন। বঞ্চনা কেন হবে? ওনারা তো কোনও মিটিংয়ে যান না, রিপোর্ট দেন না। তাহলে টাকা পাবেন কী করে? তবে যেসব ক্ষেত্রে টাকা পান, সেগুলোর কথা তো বলেন না। যেমন ইলেকট্রিক বাস যেগুলো চলছে, সেখানে ৬০ শতাংশ টাকা কেন্দ্রের।" ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর (East West Metro) উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের খবর তাঁকে দেওয়া হয়নি বলে বিধানসভায় এদিন দুঃখপ্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। বলেন, "তখন ইউপিএ সরকারে ছিলাম। কষ্ট লাগে। চোখের জল ফেলতে হয়েছিল প্রকল্পের টাকা জোগাড় করতে। আমার ছবির দরকার ছিল না। একটা খবর তো দিতে পারত।" তাঁর এই দাবির প্রেক্ষিতেই বাবুল সুপ্রিয়র (Babul Supriyo) পাল্টা দাবি, মুখ্যমন্ত্রী মিথ্যে বলছেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যেয় বাবুল সুপ্রিয়কে নিয়ে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর উদ্বোধন করেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গয়াল। বাবুল সুপ্রিয়র উপর মেট্রো (Kolkata Metro) দেখভালের দায়িত্ব দেন তিনি। ইস্ট-ওয়েস্টের উদ্বোধন মঞ্চে দাঁড়িয়ে পীযূষ গয়াল গতকাল বলেছিলেন, "কিছু জায়গায় জমি সমস্যা আছে। কিছু জায়গায় রাজ্য সরকারের সাহায্য দরকার। আশা করব, সরকার সাহায্য করবে। ভালো সাহায্য পেলে বাকি মেট্রো প্রকল্পগুলি তাড়াতাড়ি শেষ করতে পারব।"  রাজ্য সরকারের সঙ্গে কথা বলে সমস্যা মেটানোর জন্য বলেন বাবুলকে।

সেইপ্রসঙ্গে এদিন বাবুল বলেন, মেট্রো প্রকল্পের জমি নিয়ে সমস্যা মেটাতে প্রয়োজনে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তিনি আবার যাবেন। এমনকি মুখ্যমন্ত্রী যদি তাঁকে নবান্নে সময় দিতে না পারেন, তাহলে ইকোপার্ক বা গাড়িতে মিটিং করতেও আপত্তি নেই তাঁর। ফুচকা বা আলুকাবলি খেয়ে ইকোপার্ক বা গাড়ি, যেকোনও জায়গায় মিটিং করতে প্রস্তুত তিনি। আরও বলেন, "ওনার ইগো হার্ট হলে উনি অনেকসময় সাহায্য করেন না। আশা করি এক্ষেত্রে এরকম কিছু হবে না। কারণ ইস্ট-ওয়েস্টের অনেক কাজ বাকি আছে।"

আরও পড়ুন, 'বিধানসভায় ভাঙচুর করেছিলেন... প্রমাণ করুন, নইলে কথা ফেরত নিন', সুজন-মমতা তুমুল তর্কাতর্কি

আরও পড়ুন, 'কালিদাসের মতো ডাল কাটছেন?' বিধানসভায় বিজেপিকে তুলোধনা মমতার

প্রসঙ্গত, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র মধ্যে 'ফুচকা-ঝালমুড়ি' সৌজন্য সুবিদিত। ২০১৫-র ৯ মে  রাজ্য সফরে এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। অনুষ্ঠান ছিল নজরুল মঞ্চে। সেদিন নজরুল মঞ্চ থেকে বেরিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গাড়িতে রাজভবনে আসেন বাবুল। সেইসময় রাজভবনে আসার পথে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের সামনে গাড়ি থেকে নেমে একসঙ্গে ঝালমুড়ি ও ফুচকা খেয়েছিলেন মমতা ও বাবুল। রাজ্য রাজনীতিতে যা নিয়ে জোর চর্চা হয়।