Mamata-র সাহায্য ছাড়াই কেন্দ্রীয় প্রকল্পের সুবিধা পাবেন বাংলার কৃষকরা: Dilip

৪০ হাজার বুথে কৃষক সুরক্ষা অভিযান কর্মসূচি ঘোষণা বিজেপির। 

Updated By: Jan 10, 2021, 09:02 PM IST
Mamata-র সাহায্য ছাড়াই কেন্দ্রীয় প্রকল্পের সুবিধা পাবেন বাংলার কৃষকরা: Dilip

নিজস্ব প্রতিবেদন: 'বাংলার ২৩ লক্ষ কৃষক কেন্দ্রীয় সরকারের পোর্টালে নাম নথিভুক্ত করেছেন। মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায় বুঝে গিয়েছেন, তিনি সহযোগিতা না করলেও কৃষকরা সুবিধা পেয়ে যাবেন।' প্রধানমন্ত্রী কৃষক সম্মান নিধি প্রকল্প ইস্যুতে মুখ্যমন্ত্রীকে (Mamata Banerjee) কটাক্ষ করলেন দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। তাঁর দাবি, 'নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে কৃষকদের স্বার্থে যে আইন পাস করেছে কেন্দ্রীয় সরকার, বাংলার কৃষকরা সেই আইনের সঙ্গে রয়েছেন।' রাজ্যের ৪০ হাজার বুথে কৃষক সুরক্ষা অভিযান কর্মসূচি ঘোষণা করল বঙ্গ বিজেপি (BJP)। 

উল্লেখ্য, নয়া কৃষি আইনের প্রতিবাদে কৃষকরা যখন দিল্লিতে আন্দোলন করছেন, তখন ফের বাংলায় ঘুরে গেলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা (JP Nadda)। কৃষকদের পাশে থাকার বার্তা দিয়ে গোটা একটি দিন কাটালেন পূর্ব বর্ধমান জেলায়। সেই প্রসঙ্গ তুলে দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) বলেন, 'পাঞ্জাবের কিছু কৃষককে ভুল বুঝিয়ে রাজনৈতিক স্বার্থে ব্যবহার করা হচ্ছে। তাঁদের সঙ্গে ভারতের কৃষকদের কোনও সম্পর্ক নেই'। তাঁর কটাক্ষ, 'এ রাজ্যের তথাকথিত কৃষকহিতৈষী সিপিএম-কংগ্রেস ও তৃণমূল নেতারা দিল্লিতে গিয়ে ছবি তুলে এসেছেন। কিন্তু এখানে কিছু করতে পারেননি'। বিজেপির রাজ্য সভাপতির আরও বক্তব্য, 'এ রাজ্যে পর্যাপ্ত হিমঘর নেই। তাই কৃষকরা কমদামে দালালদের ফসল বিক্রি করতে বাধ্য় হন। কেন্দ্রীয় সরকার প্রতিবছর ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বাড়াচ্ছে। কিন্তু রাজ্য় সরকারের অসহযোগিতার কারণে বাংলার কৃষক বঞ্চিত হচ্ছেন। রাজ্যের ৪০ হাজার গ্রামে কৃষক সুরক্ষা অভিযান চালাবেন বিজেপি কর্মীরা। গ্রামে গিয়ে চাল-ডাল সংগ্রহ করে খাওয়া-দাওয়া করবেন তাঁরা।'

আরও পড়ুন: হেস্টিংসে সাংগঠনিক বৈঠকে Sovan-Baishakhi, দুই নেতাকে স্বাগত জানাতে আগামিকাল মিছিল BJP-র

উল্লেখ্য, দীর্ঘ টালবাহানার পর অবশেষে কেন্দ্রের কিসান সম্মান নিধি যোজনায় (Kisan Samman Nidhi) সায় দিয়েছে রাজ্য সরকার। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) বলেছেন, 'আমি চাই কৃষকরা টাকাটা পাক। কেন্দ্র তালিকা দিলে যাচাই করে দেব।' তমলুকের সভা থেকে সেই প্রসঙ্গ তুলে মমতাকে কটাক্ষ করেছিলেন শুভেন্দু অধিকারীও।