শহরে একের পর এক রহস্যমৃত্যু, ফের বন্ধ ঘর থেকে উদ্ধার এক অধ্যাপকের দেহ

জানা গিয়েছে, বছর ৩৬-এর এই ব্যক্তি ডায়মন্ড হারবার মেডিকেল কলেজ হাপাতালের সহকারী অধ্যাপক ছিলেন।

Reported By: সুকান্ত মুখোপাধ্যায় | Edited By: Priyanka Dutta | Updated By: Jun 30, 2020, 11:24 PM IST
শহরে একের পর এক রহস্যমৃত্যু, ফের বন্ধ ঘর থেকে উদ্ধার এক অধ্যাপকের দেহ
ছবিটি প্রতীকী

নিজস্ব প্রতিবেদন: শহরে একেরপর এক রহস্য মৃত্যু। খাস কলকাতায় ফের মৃত দেহ উদ্ধার। এবার ঘটনাস্থল ফুলবাগানের সুরেন সরকার রোড। মঙ্গলবার বিকেলে এই এলাকার একটি ফ্ল্যাট থেকে এক ব্যক্তির দেহ উদ্ধার করে পুলিস। জানা গিয়েছে, বছর ৩৬-এর এই ব্যক্তি ডায়মন্ড হারবার মেডিকেল কলেজ হাপাতালের সহকারী অধ্যাপক ছিলেন।

আরও পড়ুন: ময়নাতদন্তের রিপোর্টেও স্পষ্ট নয় যাদবপুরের কিশোরীর মৃত্যুর কারণ, ধোঁয়াশায় পুলিস

পুলিসসূত্রে জানা গিয়েছে, খবর পেয়েই ফুলবাগানের এই ফ্ল্য়াটে পৌঁছয় পুলিস। এদিন ফ্ল্যাট থেকে ব্যক্তির দেহ উদ্ধার করা হয়। পুলিস জানিয়েছে তাঁর মুখ থেকে গ্যাঁজলা বের হচ্ছিল এ দিন। দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে এলেই মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

উল্লেখ্য, এ দিন ফ্ল্যাট থেকে কোনও সুইসাইড নোট পায়নি পুলিস। কাজেই আত্মহত্যা  নাকি অন্য কোনও কারণে তাঁর মৃত্যু হয়েছে তা এখনও স্পষ্ট নয়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস। স্থানীয়দের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: সমস্ত রেকর্ড ভেঙে রাজ্যে একদিনে করোনা সংক্রমিত ৬৫২, আক্রান্তের সংখ্যা ১৮,৫৫৯

এই ঘটনাটি আদৌ আত্মহত্যা কিনা এখনও তা স্পষ্ট নয়। তবে এ ক্ষেত্রে চোখ রাখতে হবে গুরুত্বপূর্ণ একটি পরিসংখ্যানে। সবমিলিয়ে যেখানে দেখা যাচ্ছে, গত ১ জুন থেকে এখনও পর্যন্ত শুধু কলকাতাতেই ৫০ জনের বেশি আত্মহত্যা করেছেন। 

আত্মহত্যার চেষ্টার ঘটনাও কম নয়। মৃতদের মধ্যে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়েছে। রয়েছে ঝাঁপ, আগুনে পুড়ে মৃত্যুর ঘটনাও। রবিবারই এক কিশোরীর রহস্য মৃত্যু হয়েছে। এখনও তার মৃত্যু কিনারা করতে পারেনি পুলিস।