নজরে নয়া Covid Strain: রাজস্থানে আসা ৮০০ ব্রিটিশ পর্যটককে খুঁজতে নামল রাজ্য সরকার

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ যখন শুরু হয় তখন রাজস্থানে যাঁর প্রথম করোনা ধরা পড়ে তিনি ছিলেন এক ইটালির নাগরিক

Updated By: Dec 26, 2020, 12:50 PM IST
নজরে নয়া Covid Strain: রাজস্থানে আসা ৮০০ ব্রিটিশ পর্যটককে খুঁজতে নামল রাজ্য সরকার
প্রতীকী ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন: ব্রিটেনে করোনার নতুন প্রজাতি(Strain) নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে গোটা বিশ্বে। ইতিমধ্যেই ব্রিটেনের উড়ান নিষিদ্ধ করেছে ভারত। পাশাপাশি চলছে ব্রিটেন থেকে আগত যাত্রীদের খোঁজার কাজ। মহারাষ্ট্র সরকার ইতিমধ্যেই ব্রিটেন(UK) ও অন্যান্য দেশ থেকে আগত ৭৪৫ জন যাত্রীকে কোয়ারেন্টিনে রেখেছে। এবার সেই কাজে নামল রাজস্থান সরকার।

আরও পড়ুন-'PM Cares বক কচ্ছপ না বকচ্ছপ, দলিল সামনে আনুক কেন্দ্র,' বিবৃতি দিয়ে ৫ দফা প্রশ্ন সুখেন্দু শেখরের

গত  এক সপ্তাহে ব্রিটেনে থেকে রাজস্থানে এসেছেন ৮০০ পর্যটক। ফলে তাদের নিয়ে আতঙ্ক বাড়ছে অশোক গেহলট প্রশাসনে। কারণ ব্রিটেনের নতুন প্রজাতির করোনা ছড়ায় অত্যন্ত দ্রুত গতিতে। একবার তা শুরু হলে ভারতের মতো জনবহুল দেশে তাকে রোখা কঠিন।  ফলে ওইসব ব্রিটিশ পর্যটকদের খুঁজে বের করা, তাদের কোভিড টেস্ট করা ও সংক্রমিত রোগীদের কোয়ারেন্টিনে পাঠানোর কাজ শুরু করছে রাজ্য সরকার।

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের কাছে যে হিসেব রয়েছে তাতে গত এক সপ্তাহে জয়পুরে এসেছেন ৩৩৩ ব্রিটিশ পর্যটক। পাশাপাশি, যোধপুরে ৭৩, আজমেরে ৭০, আলওয়ারে ৪৮, উদয়পুরে ৪৩, কোটায় ৩৯, ঝুনঝুনুতে ২৪, গঙ্গানগরে ৩৮ ও রাসমন্দে এসেছেন ৩৫ ব্রিটিশ। এদের খুঁজে বের করাই এখন চ্যালেঞ্জ রাজস্থান সরকারের কাছে।

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের মুখ্যসচিব নরোত্তম শর্মা জানিয়েছেন, ' ওইসব ব্রিটিশ পর্যটকদের চিহ্নিতকরণের কাজ শুরু হয়েছে। আগামী ২-৩ দিনের মধ্যে জয়পুরে যারা এসছেন তাঁদের চিহ্নিত করে ফেলা যাবে।'  রাজ্য সরকার সূত্রে আরও খবর, ওইসব ব্রিটিশ পর্যটকদের খুঁজে বের করতে Rapid Response Team-কে কাজে লাগানো হয়েছে।

আরও পড়ুন-করোনার নতুন স্ট্রেন ফ্রান্স ও নাইজেরিয়ায়, ব্রিটেনের সঙ্গে সীমান্ত আংশিক বন্ধ করল ফ্রান্স 

উল্লেখ্য, দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ যখন শুরু হয় তখন রাজস্থানে যাঁর প্রথম করোনা ধরা পড়ে তিনি ছিলেন এক ইটালির নাগরিক। জয়পুরে বেড়াতে এসে তাঁর করোনা ধরা পড়ে গত ২ মার্চ। ফলে আতঙ্ক বাড়ছে রাজস্থানে। একথা মাথায় রেখে ওইসব ব্রিটিশ পর্যটককে চিহ্নিত করে তাদের আরটিপিসিআর টেস্ট করা হবে। করোনা পজিটিভ হলে তাদের রাখা হবে কোয়ারেন্টিনে।