ধর্ম পরিবর্তনের জন্য চাপ, কলেজ ছাত্রীকে প্রকাশ্যে গুলির পিছনে আসলে লভ জিহাদ!

নিকিতাকে সে ইসলাম ধর্ম গ্রহণের প্রস্তাব দিয়েছিল। 

Updated By: Oct 27, 2020, 06:04 PM IST
ধর্ম পরিবর্তনের জন্য চাপ, কলেজ ছাত্রীকে প্রকাশ্যে গুলির পিছনে আসলে লভ জিহাদ!

নিজস্ব প্রতিবেদন- দিনের আলোয় প্রকাশ্য রাস্তায় এক কলেজ ছাত্রীকে গুলি করে খুন। এমন হাড়হিম করা ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ফরিদাবাদের বল্লভপুরের এই ঘটনা আরও একবার এদেশে মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিল। নিকিতা তোমর নামের বি কম তৃতীয় বর্ষের এক কলেজ ছাত্রীকে দিনের আলোয় রাস্তার উপর খুব কাছ থেকে গুলি করেছে তৌসিফ নামের এক যুবক। তদন্তে নেমে পুলিস জানতে পেরেছে, বহুদিন ধরেই নিকিতাকে উত্যক্ত করত তৌসিফ। এর আগেও একাধিকবার তৌসিফের নামে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন নিকিতা। কিন্তু বারবার লোকলজ্জার ভয়ে নিকিতার বাবা সেই অভিযোগ প্রত্যাহার করেন। তাঁর সেই ভুলের জন্য মাসুল দিতে হল নিকিতাকে।

ফরিদাবাদের এই ঘটনায় এবার লভ জিহাদের অভিযোগ উঠল। কলেজ ছাত্রী নিকিতার পরিবারের একজন দাবি করেছেন, তৌসিফ নামের সেই যুবক নিকিতাকে বারবার ধর্ম পরিবর্তন করে বিয়ের জন্য চাপ দিত। তৌসিফ নামের যুবক মুসলিম সম্প্রদায়ের। আর তাই নিকিতাকে সে ইসলাম ধর্ম গ্রহণের প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু নিকিতা তার সেই প্রস্তাবে কখনো সাড়া দেননি। এরপরই তৌসিফ আরেক সঙ্গীকে সঙ্গে নিয়ে নিকিতাকে অপহরণ করতে আসে। কলেজ থেকে বেরনোর পর নিকিতাকে জোর করে গাড়িতে তোলার চেষ্টা করে তৌসিফ। তখন ওই এলাকায় ভিড় ছিল। আশেপাশে প্রচুর লোক থাকা সত্ত্বেও তাঁরা কেউই নিকিতাকে সাহায্য করার জন্য এগিয়ে আসেননি।

আরও পড়ুন-  অপহরণের চেষ্টা ব্যর্থ! দিনের আলোয় রাস্তার উপর কলেজ ছাত্রীকে গুলি করল যুবক

২০১৮ সালেও একবার নিকিতাকে অপহরণের চেষ্টা করেছিল তৌসিফ। সেবার নিকিতার পরিবারের তরফে পুলিসের কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয়। কিন্তু শেষমেশ লোক জানাজানি হওয়ার ভয়ে নিকিতার বাবা অভিযোগ প্রত্যাহার করেন। এরপর পুলিসও আর তৌসিফের বিরুদ্ধে কোনো তদন্ত করেনি। এতদিন পর নিকিতার বাবা আক্ষেপ করে বলেছেন, সেদিন তৌসিফের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলে আজ হয়তো তাঁর মেয়ে বেঁচে থাকত! পুলিস জানিয়েছে, নিকিতার উপর প্রচন্ড রেগে ছিল তৌসিফ। নিকিতাকে বারবার ফোন করেছিল সে। কিন্তু নিকিতা তার ফোন তোলেন নি এবং পরে তার নম্বর ব্লক করে দেন। সোমবার কলেজে পরীক্ষা দিতে এসেছিলেন নিকিতা। তারপরই এক বান্ধবীর সঙ্গে কলেজ গেটের বাইরে দাঁড়িয়েছিলেন। তৌসিফ জানত ঠিক কোন সময়ে গেলে নিকিতাকে কলেজের বাইরে পাওয়া যাবে।