মোদীর সঙ্গে উদ্ধবের সম্পর্ক ‘ছোটো ভাইয়ের’ মতো, শপথগ্রহণের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই সেনার বার্তা

দলের মুখপত্র ‘সামনায়’ প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছাবার্তা প্রসঙ্গে শিবসেনা জানায়, বিজেপি-সেনার মধ্যে তিক্ত সম্পর্ক তৈরি হলেও মোদী এবং উদ্ধবের সঙ্গে ভ্রাতৃত্ব সম্পর্ক অটুট রয়েছে

Updated By: Nov 29, 2019, 12:05 PM IST
মোদীর সঙ্গে উদ্ধবের সম্পর্ক ‘ছোটো ভাইয়ের’ মতো, শপথগ্রহণের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই সেনার বার্তা
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: মহারাষ্ট্রে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে প্রথমবারের জন্য শপথ নিলেন উদ্ধব ঠাকরে। শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত না থাকলেও শুভেচ্ছা বার্তা পাঠিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মহারাষ্ট্রের ভবিষ্যত উজ্বল করতে উদ্ধব কাজ চালিয়ে যাবেন বলে আশাবাদী প্রধানমন্ত্রী। গত শনিবার দেবেন্দ্র ফডণবীস যখন শপথ নেন এই একই বার্তাই দিয়েছিলেন নমো।

দলের মুখপত্র ‘সামনায়’ প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছাবার্তা প্রসঙ্গে শিবসেনা জানায়, বিজেপি-সেনার মধ্যে তিক্ত সম্পর্ক তৈরি হলেও মোদী এবং উদ্ধবের সঙ্গে ভ্রাতৃত্ব সম্পর্ক অটুট রয়েছে। তাই, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হওয়া ছোটো ভাইকে সহযোগিতা করা প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব। শপথ গ্রহণের ২৪ ঘণ্টা পেরোয়নি। এর মধ্যেই ‘সামনায়’ উদ্ধব ঠাকরে এবং নরেন্দ্র মোদীর অটুট সম্পর্ক তোলায় স্বভাবতই বিতর্ক তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। অস্বস্তিতে শরিক এনসিপি এবং কংগ্রেস।

আরও পড়ুন- মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ উদ্ধব ঠাকরের, মন্ত্রিত্ব পেলেন কংগ্রেস, এনসিপি, সেনার ৬ বিধায়ক

তবে, মোদী সরকারের বিরুদ্ধে কটাক্ষও করা হয়েছে ‘সামনায়’। বলা হয়েছে, মহারাষ্ট্রবাসীর সিদ্ধান্তকে সম্মান করা উচিত নয়া দিল্লির। রাজ্য সরকারের স্থায়িত্ব বজায় রাখার দায়িত্ব কেন্দ্রেরই। মহারাষ্ট্রে উন্নয়ন এবং কৃষকদের সমস্যা সমাধানে কেন্দ্রের সহযোগিতা প্রয়োজন বলে জানানো হয়েছে ‘সামনায়’। পাশাপাশি কেন্দ্রকে মনে করিয়ে দেওয়া হয়, দিল্লি দেশের রাজধানী হতে পারে। কিন্তু মহারাষ্ট্র দিল্লির দাস নয়। বালাসাহেব ঠাকরের পুত্র উদ্ধব ঠাকরে যখন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন, তখন সরকারের মেরুদণ্ড সোজা থাকবে।