‘হামারে পাস মোদী হ্যায়’, বিরোধীদের বিঁধতে রাম মাধবের মুখে দিওয়ারের সংলাপ

তাঁর প্রশ্ন, বিরোধীদের প্রধানমন্ত্রীর মুখ কে? মাধবের বক্তব্য, মহাজোটে কোনও নেতা নেই। কারণ, সেখানে সবাই প্রধানমন্ত্রী হতে চান।

Updated By: Apr 14, 2019, 06:00 PM IST
‘হামারে পাস মোদী হ্যায়’, বিরোধীদের বিঁধতে রাম মাধবের মুখে দিওয়ারের সংলাপ

নিজস্ব প্রতিবেদন: নরেন্দ্র মোদী বনাম সমস্ত বিরোধী। এবারের লোকসভা নির্বাচনের লড়াইয়ের মূল প্রতিপাদ্য এটাই। একদিকে বিজেপি ও তার শরিকরা লড়াই করছে মোদীর নেতৃত্বে কেন্দ্রের ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য। অন্যদিকে বিরোধীরা লড়াই করছে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে মোদীকে উত্খাত করার জন্য।

 

কিন্তু মোদীর বদলে কে হবেন প্রধানমন্ত্রী? কংগ্রেসের রাহুল গান্ধী নাকি অন্য বিরোধী দলগুলির কেউ, সেটা জানা যায়নি এখনও। আর এটাকেই ইস্যু করে বারবার বিরোধীদের তোপ দাগছে বিজেপি।

আরও পড়ুন: ‘মিত্রোঁ’ সম্বোধন করে বিজেপিকে রোখার বার্তা বন্দি লালুর

রবিবার কাশ্মীরের মাটিতে দাঁড়িয়ে এই একই ইস্যুকে খুঁচিয়ে তুললেন বিজেপি নেতা রাম মাধব। বিরোধীদের খোঁচা দিতে গিয়ে তিনি তুলে আনলেন সাতের দশকের ব্লকবাস্টার হিন্দি সিনেমা দিওয়ারের বিখ্যাত সেই সংলাপ।

সিনেমার রবি (শশী কাপুর) যেভাবে ভাই বিজয়কে (অমিতাভ বচ্চন) বলেছিলেন, “মেরে পাস মা হ্যায়।” সেভাবেই রাম মাধব বললেন, “হামারে পাস মোদী হ্যায়।” একই সঙ্গে তাঁর প্রশ্ন, বিরোধীদের প্রধানমন্ত্রীর মুখ কে? মাধবের বক্তব্য, মহাজোটে কোনও নেতা নেই। কারণ, সেখানে সবাই প্রধানমন্ত্রী হতে চান।

আরও পড়ুন: টিডিপি-র ‘ইভিএম বিশেষজ্ঞ’-এর বিরুদ্ধেই ইভিএম চুরির অভিযোগ কমিশনের, ব্যাকফুটে নায়ডু

এদিন জম্মুর রেসাই জেলায় নির্বাচনী জনসভায় হাজির হয়েছিলেন রাম মাধব। সেখানে তিনি মোদী সরকারের সাফল্যের কথাও বলেছেন। মোদীর নেতৃত্বে গত পাঁচ বছরে দেশ দুর্নীতিমুক্ত হয়েছে। দেশ এখন সন্ত্রাসমুক্ত হয়েছে বলেও তিনি এদিন দাবি করেন।

এদিন কাশ্মীরে প্রচারে গিয়েছিলেন মোদীও। তিনি এদিন প্রচার সভা করেন কাঠুয়ায়। সেখান থেকে তিনি কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন বিরোধীদের। ভারত ভাগ হতে দেবেন না বলেও দাবি করেন মোদী।

আরও পড়ুন: টানা আট ঘণ্টার চেষ্টা, মথুরায় ১১০ ফুট গভীর কূপ থেকে উদ্ধার ৫ বছরের শিশু

একই সঙ্গে কাশ্মীরের ভোটারদের প্রশংসা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। প্রথম দফায় সন্ত্রাসবাদীদের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে ভোট দেওয়ার জন্য তিনি প্রশংসা করেছেন কাশ্মীরের ভোটারদের। মোদীর মতে, আর এভাবে ভোটাররা শুধু সন্ত্রাসবাদীদের বার্তা দেননি। একই সঙ্গে বিরোধীদের ও মহাজোটকে ভোটাররা বার্তা দিয়েছেন বলে মোদীর দাবি।