জম্মু-কাশ্মীরের মানচিত্রে সদ্দল গ্রাম এখন ইতিহাস

জম্মু-কাশ্মীরের রিয়াসি জেলার ছোট্ট গ্রাম সদ্দল। সেই গ্রাম যে কখনও ছিল তা বিশ্বাসই করা যাবে না। সদ্দল গ্রামে ছিল ৪০ ঘরের বাস। কিন্তু বন্যার পর এখন জম্মু-কাশ্মীরের মানচিত্র থেকেই মুছে গেছে সদ্দল।

Updated By: Sep 12, 2014, 11:35 AM IST
জম্মু-কাশ্মীরের মানচিত্রে সদ্দল গ্রাম এখন ইতিহাস

ওয়েব ডেস্ক: জম্মু-কাশ্মীরের রিয়াসি জেলার ছোট্ট গ্রাম সদ্দল। সেই গ্রাম যে কখনও ছিল তা বিশ্বাসই করা যাবে না। সদ্দল গ্রামে ছিল ৪০ ঘরের বাস। কিন্তু বন্যার পর এখন জম্মু-কাশ্মীরের মানচিত্র থেকেই মুছে গেছে সদ্দল।

পাহাড়ের কোলে গত ১০০ বছর ধরে গড়ে উঠেছিল সদ্দল গ্রাম। গত শনিবার বন্যার জলে ভেঙে পড়ে পাহাড়। গত পাঁচদিনের টানা বৃষ্টির পর সেই পাহাড়ও এখন নিশ্চিহ্ন। পড়ে আছে শুধু কিছু টিনের টুকরো, কোনও শিশুর ভাঙা শ্লেটের টুকরো, দরজার ভাঙা ফ্রেম, কাদামাখা কাপড়ের ছেঁড়া টুকরো, জুতো বা জলের তোড়ে ছিঁড়ে যাওয়া শরীরের অংশ। হারিয়ে গিয়েছে সদ্দল গ্রামে পৌছনোর রাস্তাটিও। ওই গ্রামেরই বাসিন্দা ছিলেন গনেশ সিং। ধ্বংসস্তূপের দিকে আঙুল দিয়ে সাংবাদিকদের দেখিয়ে দিলেন কোথায় ছিল তাঁর বাড়ি। আটজনের পরিবারের আজ বেঁচে আছেন মাত্র দুজন। বন্যার জল ঢোকার সময়ে গনেশ ছিলেন গ্রাম থেকে ১৭০ কিলোমিটার দূরে জম্মুতে। তাঁ বাবা কাজ করছিলেন মাঠে। শুধু তাঁরাই বেঁচে রয়েছেন। বন্যা কেড়ে নিয়েছে পরিবারের বাকি ৬ জনের প্রাণ।

সদ্দল গ্রামে এখন দিনরাত এক করে উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে কর্নেল তিওয়ারির দল। ধ্বংসস্তূপের মধ্যে থেকেই তাঁরা বের করে আনলেন একটি ছোট্ট টেবিল ঘড়ি। ১১টা বেজে ৫০ মিনিটে থেমে গিয়েছে সময়। ঘড়ির কাঁটাদুটি রয়েছে অক্ষত।