SAvsIND: সিরিজ হারতেই স্টাম্প মাইক ইস্যুতে ব্যাকফুটে Virat Kohli, কিন্তু কেন?

দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে টিম ইন্ডিয়ার প্রাপ্তি একমাত্র অনাবশ্যক বিতর্ক।     

Updated By: Jan 14, 2022, 08:41 PM IST
SAvsIND: সিরিজ হারতেই স্টাম্প মাইক ইস্যুতে ব্যাকফুটে Virat Kohli, কিন্তু কেন?
এই কান্ডের জন্য প্রবল ভাবে সমালোচিত হচ্ছেন বিরাট কোহলি। ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: একে তো লজ্জাজনক ভাবে সিরিজ হার। এর মধ্যে আবার ‘স্টাম্প মাইক গেট’ বিতর্কে জড়িয়ে আইসিসি-র (ICC) রোষানলে পড়েছেন। তাই এই ইস্যু নিয়ে মন্তব্য করে নিজের ও দলের সমস্যা বাড়াতে রাজি নন বিরাট কোহলি (Virat Kohli)।

ম্যাচের শেষে ভার্চুয়াল সাংবাদিক সম্মেলনে কোহলি বলেন, “এটা নিয়ে আমি আর কোনও মন্তব্য করতে চাই না। মাঠে ঘটে যাওয়া ইস্যু নিয়ে নতুন করে বিতর্ক তৈরি করতে রাজি বাস্তবটা হল আমরা দক্ষিণ আফ্রিকার উপর ধারাবাহিক ভাবে যথেষ্ট চাপ প্রয়োগ করতে পারিনি।“

ম্যাচ ও সিরিজ জিতলে কোহলি হয়তো তাঁর অবস্থান বদল করতেন। কিন্তু তাঁর দল তো অনভিজ্ঞ দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে নাস্তানাবুদ হয়েছে। এর সঙ্গে আবার স্টাম্প মাইকের সামনে গিয়ে প্রতিবাদ জানানোর জন্য আইসিসি তাঁকে ও টিম ইন্ডিয়াকে শাস্তি দিচ্ছে না। বরং সতর্ক করে ছেড়ে দিয়েছে। শোনা গিয়েছে বেসরকারি ভাবে সতর্ক করার জন্য নাকি আইসিসি সেই ঘটনার কোনও রেকর্ড রাখেনি।

তবে কোহলি এখন প্রবল চাপের মুখে ব্যাকফুটে চলে গেলেও, এই ইস্যু নিয়ে বিতর্ক থামছেই না। গৌতম গম্ভীরের মত প্রাক্তন কোহলির মানসিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন। টেস্ট অধিনায়ককে অপরিণত বলে কটাক্ষ করেছেন গম্ভীর। এমনকি কেপটাউন টেস্টের তৃতীয় দিন কোহলি ও তাঁর একাধিক সতীর্থের এমন কাজ দেখে ক্রিকেট বিশ্বের অনেকেই হতবাক।

আরও পড়ুন: SAvsIND: 'দেশ এগারো জনের বিরুদ্ধে খেলছে'! স্টাম্প মাইকে ক্ষোভ উগরে বিতর্কে Virat Kohli

আরও পড়ুন: SAvsIND: কেন Virat Kohli-কে অপরিণত বললেন Gautam Gambhir? জানতে পড়ুন

দক্ষিণ আফ্রিকা ইনিংসের ২০.৪ ওভারে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের (Ravichandran Ashwin) বলে এলগারকে এলবিডব্লিউ আউট দেন আম্পায়ার মারিয়াস এরাসমাস। সঙ্গে সঙ্গে রিভিউ নেন এলগার। বল পিচড করা থেকে ইমপ্যাক্ট পর্যন্ত সব কিছুই আম্পায়ারের সিদ্ধান্তকে সমর্থন করছিল। তবে ট্র্যাকিংয়ে হঠাৎই দেখা যায় যে বল স্টাম্পের উপর দিয়ে চলে যাচ্ছে। আর এরপরেই গর্জে ওঠেন অধিনায়ক কোহলি।

আম্পায়ার মারিয়াস ইরাসমাসের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে রিভিউ নেন এলগার। সেখানে দেখা যায় বল এলগারের পা ছুঁলেও উইকেটের উপর দিয়ে চলে যাচ্ছে। উইকেটে লাগার কোনও সম্ভাবনাই ছিল না বলের। তৃতীয় আম্পায়ার আল্লাহুডিয়েন পালেকর, ইরাসমাসকে নির্দেশ দেন সিদ্ধান্ত বদল করার জন্য। সঙ্গে সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে বিরক্তি ফুটে ওঠে। সকলে অবাক হয়ে যান। বল এলগারের পায়ের যেখানে লেগেছে সেখান থেকে এতটা উপরে কী করে যাওয়া সম্ভব বুঝতেই পারছিলেন না আম্পায়াররা। খোদ ইরাসমাস বলে ওঠেন, ‘অসম্ভব!’

আর এরপরেই মেজাজে হারিয়ে কোহলি স্টাম্প মাইকের কাছে গিয়ে কথা শুরু করে দেন ‘দারুণ ডিআরএস, খুব ভাল খেললে।‘ কে এল রাহুল আবার বলেন, ‘গোটা দেশ খেলছে ১১ জনের বিরুদ্ধে।‘ কোহলিকে ফের বলতে শোনা যায়, ‘তোমাদের দল যখন বল পালিশ করে, তখন তাদের উপরেও ক্যামেরা তাক করো। শুধু বিপক্ষ খেলোয়াড়দের উপর নয়।’ পরে কোহলিকে স্টাম্প থেকে দূরে সরে যাওয়ার সময় এও বলতে শোনা যায় যে, ‘ব্রডকাস্টাররা এভাবেই অর্থ উপার্জন করে।’ কোহলি কটাক্ষের সুরে বলেন, ‘ওয়েল ডান ডিআরএস।’

একদিকের স্টাম্পে যখন এই ধরনের কথা উঠে আসছে, সেই সময় উল্টো দিকের উইকেটে কথা বলতে শোনা যায় অশ্বিনকে। তাঁর অভিযোগের তির দক্ষিণ আফ্রিকার সম্প্রচারকারী সংস্থার (সুপারস্পোর্ট) বিরুদ্ধে। তিনি বলেন, ‘অন্য ভাবে জেতার পথ খোঁজা উচিত সুপারস্পোর্টের।’

তবে খেলার চলার সময় স্টাম্প মাইকের সামনে গিয়ে প্রতিবাদ করলেও,সিরিজ হারের পর পরিস্থিতি একেবারে বদলে গিয়েছে। তাই প্রবল চাপে থাকা কোহলি এখন ব্যাকফুটে। কয়েক ঘন্টা আগে অনাবশ্যক বিতর্ককে ভুলে গিয়ে তিনি ও তাঁর টিম ইন্ডিয়া এখন সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চান!

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)