উত্তরপ্রদেশের নৃশংস ঘটনার বিচার চাইলেন বিরাট কোহলি

ভারত অধিনায়ক টুইটারে লেখেন, "হাথরাসে যা হয়েছে তা অমানবিক। চরম নৃশংসতার সীমাকেও ছাড়িয়ে গিয়েছে। আশা করি, এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত দোষীরা যথাযথ সাজা পাবে।"

Updated By: Sep 30, 2020, 07:10 AM IST
উত্তরপ্রদেশের নৃশংস ঘটনার বিচার চাইলেন বিরাট কোহলি

নিজস্ব প্রতিনিধি: যোগীর রাজ্যে গণধর্ষণের শিকার দলিত তরুণী। উত্তরপ্রদেশের হাথরাসের ঘটনায় নিন্দার ঝড় উঠেছে। টানা ১৪ দিন লড়াই চালিয়েও শেষরক্ষা করতে পারেননি ওই তরুণী। নৃশংস ঘটনার প্রতিবাদ সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে। সমাজের সমস্ত স্তরের মানুষ এই নৃশংস ঘটনার নিন্দায় সরব হয়েছেন।  হাথরাসের অমানবিক ঘটনার প্রতিবাদে এবার মুখ খুললেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। 

 

আরও পড়ুন- জিভে গভীর ক্ষত; দুটি পা-ই অসাড়, ১৪ দিনের লড়াই শেষ উত্তরপ্রদেশের গণধর্ষিতা দলিত তরুণীর

 

টুইটারে সেই নৃশংস ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে দোষীদের শাস্তি চান কোহলি। ভারত অধিনায়ক টুইটারে লেখেন, "হাথরাসে যা হয়েছে তা অমানবিক। চরম নৃশংসতার সীমাকেও ছাড়িয়ে গিয়েছে। আশা করি, এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত দোষীরা যথাযথ সাজা পাবে।"

 

 

 

আইপিএলে খেলতে ব্যস্ত রয়েছেন বিরাট কোহলি। এই নৃশংস ঘটনা তাকেও নাড়িয়ে দিয়েছে। তাই আর চুপ থাকতে পারেননি ভারত অধিনায়ক। টুইটারেই নিজের ক্ষোভ উগরে দিয়ে দোষীদের ন্যায্য শাস্তির বিচার চেয়েছেন ভারত অধিনায়ক।

 

আরও পড়ুন- IPL 2020: দিল্লিকে হারিয়ে আইপিএলে প্রথম জয় পেল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ

 

পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে গণধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে খুন করার চেষ্টা হয় ১৯ বছরের ওই তরুণীকে। সেসময় তার জিভের একাধিক জায়গা কেটে যায়। তার দুটি পা ও একটি হাতে কোনও সাড় ছিল না বলে জানিয়েছে আলিগড়ের হাসপাতাল। তার পরেও ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে দেওয়া বয়ানে ধর্ষকদের নাম বলে গিয়েছে সে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ৩০৭ ও ৩৭৬ডি ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১৪ সেপ্টেম্বর মায়ের সঙ্গে মাঠে গিয়েছিল ওই তরুণী। তখনই তাকে অপহরণ করে নির্মম অত্যাচার চালায় অভিযুক্তরা। ইতিমধ্য়েই ৪ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিস। ওই চারজনই উচ্চবর্ণের।