Diamond Harbour: দোকানের সামনে বাইক কেন? তরুণ-তরুণীকে 'বেধড়ক মার' সিভিক ভলান্টিয়ারের

অভিযোগ না নিয়ে থানায় বসিয়ে রাখা হল 'আক্রান্ত'দের!

Updated By: Dec 2, 2021, 09:42 PM IST
Diamond Harbour: দোকানের সামনে বাইক কেন? তরুণ-তরুণীকে 'বেধড়ক মার' সিভিক ভলান্টিয়ারের

নিজস্ব প্রতিবেদন: দোকানের সামনে বাইকে কেন? ডায়মন্ড হারবারে সিভিক ভলান্টিয়ারের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ উঠল। স্রেফ তরুণই নন, রেহাই পেলেন না তরুণীও! তাঁদের দাবি, থানায় অভিযোগ জানাতে গিয়েছিলেন। কিন্তু পুলিসের তরফে কার্যত কোনও সহযোগিতাই পাওয়া যায়নি।

জানা গিয়েছে, বেহালার গোপাল মিশ্র রোডের বাসিন্দা অনীশ সাহা। বুধবার রাতে বিয়ের কেনাকাটা করতে গিয়েছিলেন ডায়মন্ড হারবার স্টেশন রোডে। সঙ্গে ছিলেন তাঁর আত্মীয় রিম্পা চক্রবর্তীও। ওই তরুণ-তরুণীর দাবি, ডায়মন্ড হারবারে স্টেশন রোডে একটি দোকানের সামনে বাইক রেখে কেনাকাটা করছিলেন দু'জনেই। ঠিক তখনই দোকানের সামনে চলে আসেন একজন সিভিক ভলান্টিয়ার।  কেন? বেহালার অনীশ ও রিম্পার অভিযোগ, ওই সিভিক ভলান্টিয়ার জানতে চান, দোকানের সামনে কেন বাইক রাখা হয়েছে? বাইকটি সরিয়ে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছিলেন তাঁরা। কিন্তু তারপরেও এভাবে বাইক রাখা বেআইনি বলে রীতিমতো শাসাতে থাকেন অভিযুক্ত সিভিক ভলান্টিয়ার। শুরু হয়ে যায় কথা কাটাকাটি। বচসা চলাকালীন ঘটনাস্থলে জড়ো হন পুরুষ ও মহিলা মিলিয়ে সাত থেকে আটজন সিভিক ভলান্টিয়ার।

আরও পড়ুন: Group C Recruitment: ফের বেতন বন্ধের নির্দেশ হাইকোর্টের, মধ্যশিক্ষা পর্ষদের কাছে হলফনামা তলব

তারপর? অভিযোগ, কোনও কথা না শুনে অনীশ ও রিম্পাকে কার্যত টানতে টানতে নিয়ে যাওয়া হয় ট্রাফিক গার্ডের অফিসে। দরজা বন্ধ করে চলে বেধড়ক মারধর। এরপর কোনওরকমে পালিয়ে ডায়মন্ড হারবার হাসপাতালে পৌঁছন দু'জনে। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর থানায় অভিযোগ জানাতে যান তাঁরা। আক্রান্তদের দাবি, কোনও সহযোগিতা তো পানই না, উল্টে থানায় দীর্ঘক্ষণ বসিয়ে রাখা হয়।  

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)