Durga Puja 2021: লর্ড কার্জন এসেছিলেন প্যারীমোহনের এই পুজো দেখতে

মায়ের স্বপ্নাদেশ অনুসারে সন্ধিপুজোয় দেবীকে পরানো হয় রঙ্গন ফুলের সুদীর্ঘ এক মালা।

Updated By: Oct 5, 2021, 02:07 PM IST
Durga Puja 2021: লর্ড কার্জন এসেছিলেন প্যারীমোহনের এই পুজো দেখতে

নিজস্ব প্রতিবেদন: দেবীর স্বপ্নাদেশ পেয়ে অপুত্রক জমিদার প্যারীমোহন বন্দ্যোপাধ্যায় দুর্গা পুজোর সূচনা করলেন পূর্ব বর্ধমানের কুমীরকোলা গ্রামে। তারপর একে একে চারপুত্র দুর্গাপ্রসাদ, সারদাপ্রসাদ, বরদাপ্রসাদ, অন্নদাপ্রসাদ এবং কৃপাময়ী ও ব্রক্ষময়ী নামে দুই কন্যা লাভ করেন প্যারীমোহন।

এই বংশের প্রতিষ্ঠাতা নন্দরাম ব্রক্ষচারী প্রায় সাড়ে তিনশো বছর আগে হুগলি থেকে বিধর্মীদের অত্যাচারে পালিয়ে কুমীরকোলা গ্রামে দামোদরের ধারে গভীর অরণ্যে প্রতিষ্ঠা করেন বলরাম-রেবতী মন্দির। বলরাম-রেবতী বন্দ্যোপাধ্যায় পরিবারের গৃহদেবতা। তাই দুর্গা পুজোর চারদিন বলরাম-রেবতী দুর্গামন্দিরেই অবস্থান করেন।

আরও পড়ুন: Durga Puja 2021: অষ্টমীতে ৮ মণ, নবমীতে ৯ মণ চালের ভোগ তৈরি হত, সন্ধিপুজোয় দাগা হত কামান

তবে এখন জাঁকজমক কম, জমিদারি ঠাটবাট নেই। মন্দিরের শিল্পকর্ম ও বসতবাড়িও জরাজীর্ণ। তবে এখনও প্রাচীন ঐতিহ্য মেনেই সব কিছু হয় এখানে। দুশো বছর ধরে দেবীর মূর্তি গড়ে আসছেন পাত্রসায়রের কুম্ভকার পরিবার। পুরোহিত স্থানীয় রূপসা গ্রামের মুখোপাধ্যায় পরিবার। গুরু বংশ হল বাঁকুড়ার ইন্দাসের তান্ত্রিক মাধব সিদ্ধান্ত ও গৌরী সিদ্ধান্ত। এঁরাই পুজো পরিচালনা করেন। এখানে দেবীর কাঠামোয় প্রথম মাটি পড়ে রথের দিন। দ্বিতীয় মাটি দেওয়া হয় জন্মাষ্টমীতে। প্রতিমা এক চালার। ডাকের সাজে সোনালি জরি দিয়ে মাকে সাজানো হয়। দেবী তপ্তকাঞ্চনবর্ণা। অষ্টমীতে সন্ধি পুজোয় দেবী চামুণ্ডার নামে ১ মণ ১ সের চালের নৈবেদ্য দেওয়া হয়। মায়ের স্বপ্নাদেশ অনুসারে সন্ধিপুজোয় দেবীকে পরানো হয় সুদীর্ঘ রঙ্গন ফুলের মালা। বিজয়া দশমীর দিন এখানে সিঁদুর খেলা হয় না। সন্ধি পুজো শেষ হলে বাড়ির মেয়ে-বউ-সহ গ্রামবাসীরা সিঁদুর খেলায় মেতে ওঠেন। কুমারী পুজো হয় দশমীর দিন সকালে।

এককালে এই এলাকা ছিল আদিবাসী প্রধান। তাই এখনো এ পুজোয় আদিবাসী, দলিত এবং নিম্নবর্গের মানুষজনের অবাধ অধিকার। জমিদার প্যারীমোহনই এই প্রথা চালু করেছিলেন। সব ধর্ম ও বর্ণের মানুষ, বিশেষ করে মুসলমান সম্প্রদায়ের মানুষজন এ পুজোয় হাজির থাকেন। কথিত আছে, প্রথম জীবনে দরিদ্র প্যারীমোহন এক মৌলবীর সাহায্যে মাদ্রাসায় পড়াশোনা করেন। তাই তিনি সব সম্প্রদায়কেই তাঁর পুজোয় সামিল করেন। এ পুজোয় আগে বলি হত। কিন্তু দেবীর নির্দেশে পরে বলি বন্ধ হয়। নবমীর দিন গ্রামের ভবানীতলার কালীমন্দিরে ছাগ বলি দেওয়া হয়। 

শোনা যায়, লর্ড কার্জন প্যারীমোহনের এই পুজো দেখতে এসেছিলেন।

(Zee 24 Ghanta App : দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)

আরও পড়ুন: Durga Puja 2021: জল থেকে উঠে শ্রীমন্তের হাতটি ধরলেন 'ছেলে-ধরা দুর্গা'!