সাংগঠনিক রদবদল থেকে সরকারি কাজ নিয়ে ক্ষোভ, 'বেসুরো' বিধায়ক Prabir Ghosal

"উন্নয়নে ঘাটতি থেকে গিয়েছে। সেটা মানুষের মধ্যে একটা বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি করেছে। এগুলোর সমাধান করতে না পারলে একুশের লড়াই কঠিন হবে।"

Updated By: Jan 15, 2021, 08:22 PM IST
সাংগঠনিক রদবদল থেকে সরকারি কাজ নিয়ে ক্ষোভ, 'বেসুরো' বিধায়ক Prabir Ghosal

নিজস্ব প্রতিবেদন : এবার 'বেসুরো' আরেক তৃণমূল (TMC) বিধায়ক। দলের সাংগঠনিক রদবদল থেকে সরকারি প্রকল্পের কাজ নিয়েও ক্ষোভপ্রকাশ করলেন হুগলি জেলার উত্তরপাড়ার তৃণমূল বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল (Prabir Ghosal)। 

দলের সংগঠনে বদল আনা হলেও, তা আদপে কতটা ফলপ্রসূ হয়েছে? তা নিয়ে সংশয়ে বিধায়ক। এর পাশাপাশি রাস্তা না হওয়ায় সরকারি কাজ নিয়েও ক্ষোভ দেখালেন উত্তরপাড়ার বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল (Prabir Ghosal)। তিনি বলেন,"উন্নয়নে ঘাটতি থেকে গিয়েছে। সেটা মানুষের মধ্যে একটা বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি করেছে।" আর সেটা শুধু তাঁর কেন্দ্রে নয়, বিভিন্ন জায়গাতেই বলে দাবি করেছেন প্রবীর ঘোষাল। একইসঙ্গে তাঁর স্পষ্ট বক্তব্য, "এগুলোর সমাধান করতে না পারলে একুশের লড়াই কঠিন হবে।"

প্রবীর ঘোষালের (Prabir Ghosal) এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে পাল্টা হুগলি তৃণমূল (TMC) জেলা সভাপতি দিলীপ যাদব বলেন, "উনি আমাদের দলের বিধায়ক। উনি যদি কিছু যদি বলে থাকেন, তাহলে দলের মধ্যে ফোরাম আছে, সেখান থেকে তার প্রতিক্রিয়া দেওয়া হবে। তবে মুখ্যমন্ত্রী গত ১০ বছরে যা কাজ করেছেন, তা কেউ করেনি, ভাবেওনি। আর তারপরেও যদি কিছু বাকি আছে বলে উনি বলে থাকেন, নিশ্চিতভাবে দলের ফোরাম থেকে নির্দেশ এলে, সেটা করা হবে।"

আরও পড়ুন, Shatabdi পুরনো বন্ধু, গল্প হল, আমার সামনেই ফোন আসে Mukul-দার: Kunal

প্রসঙ্গত, এর আগেও জেলায় দলের কাজ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন প্রবীর ঘোষাল (Prabir Ghosal)। দলের মধ্যে দিলীপ বিরোধী বলেই পরিচিত উত্তরপাড়ার বিধায়ক। ২০১৯ লোকসভা ভোটে হুগলিতে খারাপ ফলের পর তপন দাশগুপ্তকে সরিয়ে উত্তরপাড়া পুরসভার চেয়ারম্যান দিলীপ যাদবকে জেলা সভাপতি করে দল। তারপর থেকেই সংগঠনের কাজ নিয়ে মুখ খোলেন প্রবীর ঘোষাল, বেচারাম মান্না, অপরূপা পোদ্দাররা। তাঁদের দলীয় কর্মসূচিতে ডাকা হয় না বলেও অভিযোগ করেন।

আরও পড়ুন, মানভঞ্জনে Shatabdi-কে ফোন Sougata-র, বাড়িতে Kunal, পাল্টা খোঁচা Anubrata-র

দলের অভ্যন্তরীণ এই কলহ মেটাতে শ্রীরামপুরের সাংসদ কল্যাণ বন্দোপাধ্যায়কে (Kalyan Banerjee) চেয়ারম্যান করে মন্ত্রী-বিধায়কদের নিয়ে একটি কোর কমিটিও গড়ে দেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। তবে তাতেও যে দ্বন্দ্ব মেটেনি, অন্তত প্রবীর ঘোষালের আজকের মন্তব্য থেকে তা সুস্পষ্ট।

আরও পড়ুন, 'কাল দিল্লি যাব, অমিত শাহের সঙ্গে দেখা হতেই পারে', বললেন Shatabdi

চিঠি দিয়েও কোনও লাভ হয়নি উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রীকে, 'আবেগতাড়িত' গৌতম দেব