সপ্তাহের এক দিনের বেশি বাজারে নয়, মাইকিং করে নির্দেশ পুলিসকর্তার

আগেই নবান্ন থেকে ঘোষণা করেছিলেন, একসঙ্গে পাঁচ জনের বেশি কেউ বাজারে ঢুকতে পারবেন না ৷  মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশের পরও হাওড়া, ভাটপাড়া-সহ একাধিক এলাকায় অন্য ছবি ধরা পড়ে ৷  

Updated By: Apr 25, 2020, 10:48 AM IST
সপ্তাহের এক দিনের বেশি বাজারে নয়, মাইকিং করে নির্দেশ পুলিসকর্তার

নিজস্ব প্রতিবেদন: সপ্তাহে এক দিনের বেশি বাজার করা যাবে না। এবার মাইকিং করে এলাকাবাসীকে নির্দেশ দিল সোনারপুর থানার পুলিস। শনিবার সকাল থেকেই সোনারপুর এলাকায় থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক সঞ্জীব চক্রবর্তী।
লকডাউনের মধ্যেও অনেকের বাজার যাওয়ার প্রবণতা কমছে না। ঘরে থাকার জন্য বারবার সচেতন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু তাও বাজারগুলিতে গিয়ে দেখা যাচ্ছে. অনেকেই এখনও সচেতন হননি ৷  আর বাজার এলাকাগুলি সংকীর্ণ হওয়ায়, সেখানে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মানা যায় না ৷  কিছু এলাকায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা কার্যত অসম্ভব ৷  আবার অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায়, মাস্ক না পরেই প্রচুর মানুষ বাজারে চলে এসেছেন ৷  মূলত এলাকাগুলিকে নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য কড়া নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী ৷  আগেই নবান্ন থেকে ঘোষণা করেছিলেন, একসঙ্গে পাঁচ জনের বেশি কেউ বাজারে ঢুকতে পারবেন না ৷  মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশের পরও হাওড়া, ভাটপাড়া-সহ একাধিক এলাকায় অন্য ছবি ধরা পড়ে ৷  

হাসপাতালে বন্ধ মোবাইল! রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তকে চ্যালঞ্জ করে হাইকোর্টে অর্জুন
এবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুরে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ করে পুলিস প্রশাসন ৷  এক দিনের বেশি বাজার আসা যাবে না বলে এলাকায় ঘোষণা করেন স্থানীয় থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক ৷  শনিবার সকাল থেকেই মাইকিং করে এলাকাবাসীকে সচেতন করেন তিনি ৷  ছোটোখাটো জিনিসের জন্য  অযথা বাজারে ঘোরাঘুরি না করার পরামর্শ দেন পুলিসকর্তা ৷   
সকাল থেকেই স্থানীয় বাজারগুলির ওপর নজর রেখেছেন পুলিসকর্মীরা ৷  যাঁরা অকারণেই বাজারে ঘোরাফেরা করছেন, তাঁদের বাড়ি পাঠানো হয় ৷  এদিন সোনারপুর থানা এলাকার ভৌমিক পার্ক, সোনারপুর বাজার, ঘা্সিয়াড়া বাজার ও রাজপুর বাজারে রুটমার্চ হয় ৷