বিনামূল্যে রেশন দেবে রাজ্যসরকার, মিলগুলিতে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় কাজে নেমেছেন শ্রমিকরা

যে সমস্ত শ্রমিক বাড়ি যেতে পারেনি তাদের নিখরচায় খাওয়ার ব্যবস্থা হয়েছে। সমস্তরকম সহযোগীতায় কাযত খুশি শ্রমিকরা।

Updated By: Apr 14, 2020, 01:38 PM IST
বিনামূল্যে রেশন দেবে রাজ্যসরকার, মিলগুলিতে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় কাজে নেমেছেন শ্রমিকরা

নিজস্ব প্রতিবেদন: ঘরবন্দি মানুষদের জন্য চালের যোগান দিতে রাতদিন এক করে খেটে চলেছেন চাল মিলের শ্রমিকরা। করোনার ভয়াবহ পরিস্থিতিতে লড়াই চালিয়ে যেতেই শ্রমিক ও মালিকদের নিরলস এই প্রচেষ্টা বলে জানিয়েছেন তাঁরা।  করোনার এই আকালে আগামী ছয় মাস দরিদ্র মানুষদের বিনামূল্যে রেশনের কথা ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার। কাজেই মিলগুলিতে দিন রাত এক করে চলছে চাল ঝাড়াই বাছাই-এর  কাজ। 

প্রতিমাসে মাথাপিছু চাল গম মিলিয়ে পাঁচ কেজি রেশন দেওয়া হবে। সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত প্রত্যেক মানুষ এই সুবিধা পাবে। ইতিমধ্যে প্রায় দুই মাসের চাল মিল থেকে নিয়ে গিয়ে খাদ্য দপ্তরে গোডাইনে মজুত রাখা হয়েছে। পূর্ব মেদিনীপুরের জনসংখ্যা প্রায় পঞ্চাশ লক্ষ। জেলার প্রায় ২৭ টি মিলেই সরকারি গাইড লাইন মেনেই  চলছে চাল তৈরি কাজ। লকডাউনে কাজের যাতে কোনো ব্যাঘাত না ঘটে তার জন্য রাজ্য সরকার সমস্ত রকম সাহায্য পৌঁছেছে মিলগুলোয়।

খাদ্য দপ্তর থেকে পরিচয়পত্র করে দেওয়া হয়েছে শ্রমিকদের, এতে যাতায়াতে কোনও সমস্যায় পড়তে হবে না তাঁদের।  তেমনি মিল চালাতে বেশ কিছু যন্ত্রপাতি প্রায়োজন, সেটাও পাঠিয়েছে রাজ্য সরকার। যে সমস্ত শ্রমিক বাড়ি যেতে পারেনি তাদের নিখরচায় খাওয়ার ব্যবস্থা হয়েছে। সমস্ত সহযোগীতায় কাযত খুশি শ্রমিকরা।