২৯টি বিপজ্জনক অ্যাপকে Play Store থেকে মুছে ফেলল Google! এগুলি আপনার মোবাইলে নেই তো?

এই অ্যাপগুলির জন্য কখনও কখনও নিজে থেকেই মোবাইলের ইন্টারনেট ডেটা বন্ধ হয়ে চালু হয়ে যেতে পারে Wi-Fi। ফোনের অন্যান্য প্রয়োজনীয় অ্যাপকেও আনইনস্টল করে দিতে পারে এই অ্যাপগুলি।

Edited By: সুদীপ দে | Updated By: Jul 30, 2020, 02:33 PM IST
২৯টি বিপজ্জনক অ্যাপকে Play Store থেকে মুছে ফেলল Google! এগুলি আপনার মোবাইলে নেই তো?
—প্রতীকী চিত্র।

নিজস্ব প্রতিবেদন: স্মার্টফোনে স্টোর করা যাবতীয় তথ্য হাতিয়ে নিতে পারে, এমন ২৯টি বিপজ্জনক অ্যাপকে Play Store থেকে মুছে ফেলল Google! সম্প্রতি ‘হোয়াইট অপ্স সাতোরি’ নামের একটি থ্রেট ইনটেলিজেন্স সংস্থা এই বিপজ্জনক অ্যাপগুলিকে চিহ্নিত করেছে। তার পরই বিষয়টি Google-এর নজরে আসে।

জানা গিয়েছে, Play Store থেকে মুছে ফেলা এই অ্যাপগুলি মূলত ফটো এডিটিং অ্যাপ। এই অ্যাপগুলিতে ‘অ্যাড ওয়্যার’ থাকায় তা অনায়াসেই স্মার্টফোনের ক্ষতি করতে সক্ষম। কারণ, এই ২৯টি অ্যাপেই রয়েছে ‘ব্লার’ অপশন। সাইবার বিশেষজ্ঞদের মতে, এটাই স্মার্টফোনের তথ্য হাতানোর মূল হাতিয়ার। তাই এই ২৯টি বিপজ্জনক অ্যাপ Play Store থেকে ইতিমধ্যেই মুছে ফেলেছে Google!

তবে চিন্তার বিষয় হল, এ পর্যন্ত প্রায় ৩৫ লক্ষ মানুষ এই ২৯টি বিপজ্জনক অ্যাপ ডাউনলোড করে ফেলেছেন নিজেদের মোবাইলে। সাইবার বিশেষজ্ঞদের মতে, এই অ্যাপগুলি ডাউনলোড হওয়ার পর অনেক সময় স্ক্রিনে সেগুলির আইকন খুঁজে পাওয়া যায় না। Play Store-এ গিয়েও এগুলিকে ওপেন করা যায় না। এই অ্যাপগুলি স্মার্টফোনে হঠাৎ হঠাৎ বিজ্ঞাপন ফুটিয়ে তোলে। এই অ্যাপগুলির জন্য কখনও কখনও নিজে থেকেই আনলক হয়ে যায় স্মার্টফোন, মোবাইলের ইন্টারনেট ডেটা বন্ধ হয়ে চালু হয়ে যেতে পারে Wi-Fi। ফোনের অন্যান্য প্রয়োজনীয় অ্যাপকেও আনইনস্টল করে দিতে পারে।

আরও পড়ুন: ফের "ডিজিটাল স্ট্রাইক!"আরও ৪৭ টি চিনা অ্যাপ ব্যান করল ভারত, নজরদারিতে পাবজিও

Play Store থেকে মুছে ফেলা এই অ্যাপগুলির তালিকায় রয়েছে, ব্লার ফটো এডিটর, সুপার কল ফ্ল্যাশ, ব্লার ইমেজ, ইজি ব্লার, ইমেজ ব্লার, অটো পিকচার কাট, ম্যাজিক কল ফ্ল্যাশ, স্কোয়্যাল ব্লার মাস্টার-সহ বেশ কিছু ফটো অ্যাপ। এই অ্যাপগুলির প্রসঙ্গে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ হল, এগুলি ইতিমধ্যে ডাউনলোড করা হয়ে গিয়ে থাকলে তা আনইনস্টল করে দেওয়াটাই বুদ্ধিমানের কাজ! ভবিষ্যতে কোনও অ্যাপ ডাউনলোডের আগে সেটির রিভিউ অবশ্যই ভাল করে দেখে নেওয়া জরুরি।