ঘাড়ের উপর Impeachment-র খাঁড়া, Trump-কে ছেড়ে যাচ্ছেন আইনজীবীরা

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে ট্রাম্পের গোঁয়াড়তুমির সঙ্গে নেই তাঁর দলেরই অধিকাংশ সেনেটর।

Updated By: Jan 31, 2021, 04:17 PM IST
ঘাড়ের উপর Impeachment-র খাঁড়া, Trump-কে ছেড়ে যাচ্ছেন আইনজীবীরা

নিজস্ব প্রতিবেদন: হোয়াইট হাউস ছাড়ার পর আরও খারাপ সময় এখন  প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। মার্কিন সেনেটে তাঁর ইমপিচমেন্ট মামলার শুনানির আগে তাঁকে ছেড়ে যাচ্ছেন তাঁর আইনজীবীরা। 

মার্কিন সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট আনুযায়ী, ইমপিচমেন্ট(Impeachment) মোকাবিলায় তাঁর পক্ষে দাঁড়ানোর কথা ৫ আইনজীবীর। এদের সবাই ট্রাম্পের পাশ থেকে সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কারণ ট্রাম্প এখনও দাবি করে চলেছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তাঁর বিরুদ্ধে কারচুপি করা হয়েছে। অর্থাত্ কীভাবে মামলা লড়া হবে তা নিয়েই আইনজীবীদের সঙ্গে প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্টের(Donald Trump) বিবাদ। পাশাপাশি ট্রাম্পের ভুয়ো মামলায় তাঁর পাশে দাঁড়াতে রাজী হচ্ছেন না কেউ।

আরও পড়ুন-  'আমি ডিভোর্স চাই না, BJP তোমায় বোকা বানাচ্ছে, আমাকে দমানো যাবে না', Soumitra-কে চিঠি Sujata-র

ট্রাম্পের পক্ষে মামলায় নেতৃত্ব দেওয়ার কথা ছিল আইনজীবী বাচ বোয়ার্স ও আইনজীবী ডোবোরা বার্বিয়াররের।  সিএনএন সহ অন্যান্য মার্কিন সংবাদমাধ্যমের দাবি, ওইসব আইনজীবীরা তাঁর পাশ থেকে সরে যাচ্ছেন। ট্রাম্পের সঙ্গে কথা বলেই তাঁরা ওই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ট্রাম্পের পরামর্শদাতা জেসন মিলার জানিয়েছেন, আমরা নিজেদের মধ্যে অনেক আলোচনা করেছি। কিন্তু আইনজীবী দল নিয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি।

আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি ট্রাম্পের ইমপিচমেন্ট মামলা শুরু হওয়ার কথা। তার আগে আইনজীবীরা তাঁর পাশ থেকে সরে যাওয়ায় প্রবল বিপাকে ট্রাম্প। এখনও একটি আইনজীবী দল তৈরি করতে প্রবল বেগ পেতে হচ্ছে ট্রাম্পকে।

আরও পড়ুন-"কলকাতা-দক্ষিণ ২৪ পরগণা আরও ফাঁকা করব, Private কোম্পানির জন্য লোক থাকবে না": Suvendu 

এদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে ট্রাম্পের গোঁয়াড়তুমির সঙ্গে নেই তাঁর দলেরই অধিকাংশ সেনেটর। এমনকি বলা যায় ট্রাম্পের একতরফা সিদ্ধান্ত নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত রিপাবলিকান(Republican) শিবির। এমনটাও শোনা যাচ্ছে ১৭ রিপাবলিকান সেনেটর তাঁর বিরুদ্ধেও ভোট দিতে পারেন। রিপাবলিকান দলের শীর্ষ নেতা জন টিউন বলেছেন, নির্বাচন পরবর্তি পরিস্থিতি ও ক্যাপিটলে হামলা যেভাবে ট্রাম্প সামলেছেন তা একেবার গ্রহণযোগ্য় নয়। নির্বাচনের পর তিনি যেসব কথা বলেছেন তাতে দলের অনুমোদন নেই। এখন ভোট চুরি নিয়ে তাঁর যে অভিযোগ তা দেশের আইনই বলবে।