মালদা জেলা পরিষদ দখল করে কংগ্রেসকে বড় ধাক্কা তৃণমূলের

গণি মিথ ভেঙে চুরমার। মালদায় জেলা পরিষদ দখল করে কংগ্রেসকে বড় ধাক্কা দিল তৃণমূল। ভাঙনের জেলায় দলের এই সর্বশেষ ভাঙন দেখে মুখে কুলুপ এঁটেছে কোতোয়ালি।

Updated By: Aug 22, 2016, 06:46 PM IST
মালদা জেলা পরিষদ দখল করে কংগ্রেসকে বড় ধাক্কা তৃণমূলের

ওয়েব ডেস্ক: গণি মিথ ভেঙে চুরমার। মালদায় জেলা পরিষদ দখল করে কংগ্রেসকে বড় ধাক্কা দিল তৃণমূল। ভাঙনের জেলায় দলের এই সর্বশেষ ভাঙন দেখে মুখে কুলুপ এঁটেছে কোতোয়ালি।

কোতোয়ালির এই বাড়ির সে দিন আর নেই। গণি খান চৌধুরীর দরবারে আসা মানুষের ভিড়ে যে বাড়ি একদিন সবসময় গমগম করত সেই বাড়িই এখন ফাঁকা। মালদার মিথ গণি খান সিপিএমকে বঙ্গোপসাগরে ছুঁড়ে ফেলার কথা বলতেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর স্বপ্ন পূরণ করেছেন! কিন্তু সেই তৃণমূলের থাবায় ভাঙনের জেলায় দ্রুত ক্ষয়ে যাচ্ছে কংগ্রেস।

আরও পড়ুন একটানা বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত রাজ্যের অনেক জায়গার জনজীবন

মালদহ জেলার দুই পুরসভা ইংরেজবাজার ও পুরাতন মালদহ তৃণমূলের দখলে। এ বার জেলা পরিষদও কংগ্রেসের হাত থেকে ছিনিয়ে নিল তৃণমূল। ২০১১-র বিধানসভা ভোটের আগেই মালদায় কংগ্রেসের ঘর ভাঙতে শুরু করে তৃণমূল। ভাঙন ধরে গণি পরিবারেও। ২০১১-র বিধানসভা ভোটের আগে তৃণমূলে যোগ দেন সাবিত্রী মিত্র। বিধানসভা ভোটের পর তৃণমূলে নাম লেখান গণি খান চৌধুরির ভাগ্নি শেহেনাজ কাদরি। ২০১৩-এ কংগ্রেস ছেড়ে ঘাসফুল শিবিরে যোগ দেন কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরী। ২০১৪-এ তৃণমূলে নাম লেখান গণি খান চৌধুরির ভাই আবু নাসের খান চৌধুরী।

গত বিধানসভা ভোটে মালদহে তৃণমূল একটিও আসন না পাওয়ায় কেউ কেউ অন্যরকম মনে করতে শুরু করেছিলেন। সব আশায় জল ঢেলে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী। জেলা পরিষদ দখল করার পর আগামী দিনে মালদহে কংগ্রেসকে আরও দুর্বল করার হুঙ্কার দিয়েছেন তিনি। হলদিয়ায় হাত পাকানোর পর এখন টি-টুয়েন্টির মেজাজে ব্যাটিং করছেন শুভেন্দু অধিকারী। বিরোধীরা তাঁর খেলায় মুকুল রায়ের ছায়া দেখছেন। মালদা জেলা পরিষদ দখলের কথা জানাতে তৃণমূলের সাংবাদিক বৈঠকে এ দিন উপস্থিত ছিলেন দু-জনেই। দল ভাঙানোয় বিরোধীরা তৃণমূলের বিরুদ্ধে অনৈতিক রাজনীতির অভিযোগ তুলছেন। বাম-কংগ্রেস দু-দলের নেতাদেরই তৃণমূলে নাম লেখানোর হিড়িক পড়ে যাওয়াকে আবার জোটের ব্যর্থতা হিসাবেই দেখছে রাজনৈতিক মহল। মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদ যাতে হাতছাড়া না হয় সে জন্য বামেদের নিয়ে বৈঠক করেছেন অধীর চৌধুরী। আর সেই বাম সদস্যরা তৃণমূলে ঢুকে পড়ায় মালদা জেলা পরিষদ কংগ্রেসের হাতছাড়া হওয়াটা নিশ্চিত হয়েছে। মুর্শিদাবাদ এবং মালদায় সফল অপারেশনের পর উত্তরবঙ্গে জলপাইগুড়ি জেলা পরিষদ এবং শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদ এ বার তাদের টার্গেট বলে তৃণমূলের অন্দরের খবর।

আরও পড়ুন মেদিনীপুর লাগোয়া হুগলির খানাকুল প্রতি বছর জলে ভাসে