রাজ্যের মন্ত্রীদের ভোটের ফলাফল

রাজ্যজুড়ে ৯০টি কেন্দ্রে ভোট গণনা শুরু হয়ে গিয়েছে। বিধানসভা নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে তৃণমূল কংগ্রেসকে মোকাবিলা করতে হচ্ছে জোটের সঙ্গে। অন্যদিকে রয়েছে বিজেপি। ভোটের ময়দানে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই মন্ত্রীদের।

Updated By: May 19, 2016, 10:01 PM IST
রাজ্যের মন্ত্রীদের ভোটের ফলাফল

ওয়েব ডেস্ক: রাজ্যজুড়ে ৯০টি কেন্দ্রে ভোট গণনা শুরু হয়ে গিয়েছে। বিধানসভা নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে তৃণমূল কংগ্রেসকে মোকাবিলা করতে হচ্ছে জোটের সঙ্গে। অন্যদিকে রয়েছে বিজেপি। ভোটের ময়দানে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই মন্ত্রীদের।

রাজ্যের মন্ত্রীরা ভোটে কেমন ফলাফল করলেন দেখে নিন একনজরে।

হারলেন- ইসলামপুর থেকে আব্দুল করিম চৌধুরি, বাগদা থেকে উপেন্দ্রনাথ বিশ্বাস, মানিকচক থেকে সাবিত্রী মিত্র, বালুরঘাট থেকে শঙ্কর চক্রবর্তী, বিষ্ণুপুর থেকে শ্যামপ্রসাদ মুখার্জি, ইংরেজবাজার থেকে কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী, দমদম উত্তর থেকে চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, যাদবপুর থেকে মণীষ গুপ্ত।

 

মন্ত্রী

কেন্দ্র

ফলাফল

মমতা ব্যানার্জি (মুখ্যমন্ত্রী)

ভবানীপুর

জয়ী, ২৫ হাজার ৩০১ ভোটের ব্যবধানে

পার্থ চ্যাটার্জি (শিক্ষামন্ত্রী)

বেহালা পশ্চিম

জয়ী, ৮ হাজার ৮৯৬ ভোটের ব্যবধানে

অমিত মিত্র (অর্থমন্ত্রী)

খড়দহ

জয়ী, ২১ হাজার ২০০ ভোটের ব্যবধানে

ফিরহাদ হাকিম (পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী)

কলকাতা বন্দর

জয়ী, ২৬ হাজার ৫৪৮ ভোটের ব্যবধানে

সুব্রত মুখার্জি (পঞ্চায়েত মন্ত্রী)

বালিগঞ্জ

জয়ী, ১৫ হাজার ২২৫ ভোটের ব্যবধানে

আব্দুল করিম চৌধুরি (গ্রন্থাগার মন্ত্রী)

ইসলামপুর

পরাজিত, ৭ হাজার ৭১৮ ভোটের ব্যবধানে

সাধন পাণ্ডে (ক্রেতা সুরক্ষা বিষয়ক মন্ত্রী)

মানিকতলা

জয়ী, ২৫ হাজার ৩১১ ভোটের ব্যবধানে

উপেন্দ্রনাথ বিশ্বাস (অনগ্রসর মন্ত্রী)

বাগদা

পরাজিত, ১২ হাজার ২৩৬ ভোটের ব্যবধানে

সাবিত্রী মিত্র (পুনর্বাসন ও পুনর্বন্টন মন্ত্রী)

মানিকচক

পরাজিত, ১২ হাজার ৬০৩ ভোটের ব্যবধানে

জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক (খাদ্যপ্রক্রিয়াকরণ মন্ত্রী)

হাবড়া

জয়ী, ৪৫ হাজার ৯৪৭ ভোটের ব্যবধানে

শান্তিরাম মাহাতো (স্বনির্ভর মন্ত্রী)

বলরামপুর

জয়ী, ১০ হাজার ২০৪ ভোটের ব্যবধানে

হায়দার আজিজ সফি (কারাগার মন্ত্রী)

উলুবেড়িয়া

জয়ী, ১৬ হাজার ২৬৯ ভোটের ব্যবধানে

পূর্ণেন্দু বসু (শ্রমমন্ত্রী)

রাজারহাট-গোপালপুর

জয়ী, ৬ হাজার ৮৭৪ ভোটের ব্যবধানে

ব্রাত্য বসু (পর্যটন মন্ত্রী)

দমদম

জয়ী, ৯ হাজার ৩১৬ ভোটের ব্যবধানে

রচপাল সিং (পরিকল্পনা মন্ত্রী)

তারকেশ্বর

জয়ী, ২৭ হাজার ৬৯০ ভোটের ব্যবধানে

বিনয়কৃষ্ণ বর্মন (বনমন্ত্রী)

মাথাভাঙা

জয়ী, ৩১ হাজার ৯১৮ ভোটের ব্যবধানে

গৌতম দেব (উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী)

ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ি

জয়ী, ২৩ হাজার ৮১১ ভোটের ব্যবধানে

শঙ্কর চক্রবর্তী (পূর্তমন্ত্রী)

বালুরঘাট

পরাজিত, ১ হাজার ৪৫০ ভোটের ব্যবধানে

সুদর্শন ঘোষদস্তিদার (পরিবেশ মন্ত্রী)

মহিষাদল

জয়ী, ১৬ হাজার ৭০৯ ভোটের ব্যবধানে

উজ্জ্বল বিশ্বাস (প্রযুক্তি শিক্ষামন্ত্রী)

কৃষ্ণনগর দক্ষিণ

জয়ী, ১২ হাজার ৮১৪ ভোটের ব্যবধানে

শ্যামপ্রসাদ মুখার্জি (বস্ত্রমন্ত্রী)

বিষ্ণুপুর

পরাজিত, ৮৯১ ভোটের ব্যবধানে

সোমেন মহাপাত্র (জলসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী)

পিংলা

জয়ী, ২৪ হাজার ২১৮ ভোটের ব্যবধানে

অরূপ রায় (কৃষি বিপণন মন্ত্রী)

হাওড়া মধ্য

জয়ী, ৫২ হাজার ৯৯৪ ভোটের ব্যবধানে

অরূপ বিশ্বাস (যুবকল্যাণ মন্ত্রী)

টালিগঞ্জ

জয়ী, ৯ হাজার ৮৯৬ ভোটের ব্যবধানে

মলয় ঘটক (কৃষিমন্ত্রী)

আসানসোল উত্তর

জয়ী, ২৩ হাজার ৮৯৭ ভোটের ব্যবধানে

চন্দ্রনাথ সিংহ (ফিশারি মন্ত্রী)

বোলপুর

জয়ী, ৫০ হাজার ২৭ ভোটের ব্যবধানে

কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরি (উদ্যানপালন মন্ত্রী)

ইংরেজবাজার

পরাজিত, ৩৯ হাজার ৭২৭ ভোটের ব্যবধানে

রাজীব ব্যানার্জি (সেচমন্ত্রী)

ডোমজুর

জয়ী, ১ লক্ষ ৭ হাজার ৭০১ ভোটের ব্যবধানে

চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য (আইন ও স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী)

দমদম উত্তর

পরাজিত, ৬ হাজার ৫৪৯ ভোটের ব্যবধানে

মন্টুরাম পাখিরা (স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত সুন্দরবন উন্নয়নমন্ত্রী)

কাকদ্বীপ

জয়ী, ২৪ হাজার ৯১৯ ভোটের ব্যবধানে

পুণ্ডরীক্ষ সাহা (জনস্বাস্থ্য কারিগরী প্রতিমন্ত্রী)

নবদ্বীপ

জয়ী, ৩৫ হাজার ৭৯৬ ভোটের ব্যবধানে

গিয়াসউদ্দিন মোল্লা (সংখ্যালঘু ও মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী)

মগরাহাট পশ্চিম

জয়ী, ১৫ হাজার ৮৮৯ ভোটের ব্যবধানে

শশী পাঁজা (স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত নারী ও শিশুকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী)

শ্যামপুকুর

জয়ী, ১৩ হাজার ১৫৫ ভোটের ব্যবধানে

আশিষ ব্যানার্জি (আয়ুশ স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী)

রামপুরহাট

জয়ী, ২১ হাজার ১৯৯ ভোটের ব্যবধানে

জাভেদ খান (দমকল মন্ত্রী)

কসবা

জয়ী, ১১ হাজার ৮৮৪ ভোটের ব্যবধানে

রবিরঞ্জন চট্টোপাধ্যায় (বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী)

বর্ধমান দক্ষিণ

জয়ী, ২৯ হাজার ৪৩৮ ভোটের ব্যবধানে

সুকুমার হাঁসদা (পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন মন্ত্রী)

ঝাড়গ্রাম

জয়ী, ৫৫ হাজার ২২৮ ভোটের ব্যবধানে

মণীশ গুপ্ত (বিদ্যুত্‌মন্ত্রী)

যাদবপুর

পরাজিত, ১৪ হাজার ৯৪২ ভোটের ব্যবধানে

মদন মিত্র (প্রাক্তন ক্রীড়া ও পরিবহণ মন্ত্রী)

কামারহাটি

পরাজিত, ৪ হাজার ১৯৮ ভোটের ব্যবধানে