Kapil Dev & Dhoni : 'ইচ্ছা থাকলেও যেতে পারি না', অম্বরীশের কাছে আক্ষেপ ধোনির

রাজস্থানের জয়পুরে গিয়েছিলেন একটি ব্র্যান্ডের প্রচারমূলক অনুষ্ঠানে। সেখানেই অভিনেতা অম্বরীশ ভট্টাচার্যের সঙ্গে হঠাৎ দেখা দুই বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়কের। তাঁরা হলেন কপিল দেব এবং মহেন্দ্র সিং ধোনি। তাঁদের সঙ্গে আলাপ তো হলই, গল্পও জমে উঠেছিল। সেসব কথাই Zee ২৪ ঘণ্টা ডিজিটালের সঙ্গে ভাগ করে নিলেন ছোটপর্দার 'পটকা'।

Reported By: সৌমিতা মুখার্জি | Edited By: রণিতা গোস্বামী | Updated By: Sep 26, 2022, 03:33 PM IST
Kapil Dev & Dhoni : 'ইচ্ছা থাকলেও যেতে পারি না', অম্বরীশের কাছে আক্ষেপ ধোনির

Kapil Dev, Dhoni, জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: রাজস্থানের জয়পুরে গিয়েছিলেন একটি ব্র্যান্ডের প্রচারমূলক অনুষ্ঠানে। সেখানেই অভিনেতা অম্বরীশ ভট্টাচার্যের হঠাৎ দেখা দুই পছন্দের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়কের সঙ্গে। তাঁরা হলেন কপিল দেব এবং মহেন্দ্র সিং ধোনি। তাঁদের সঙ্গে আলাপ তো হলই, গল্পও জমে উঠেছিল। সেসব কথাই Zee ২৪ ঘণ্টা ডিজিটালের সঙ্গে ভাগ করে নিলেন টেলিভিশনের 'পটকা'।

অম্বরীশ জানালেন, 'ধোনি অনেক বেশি কথা বললেন, অনেক গল্পও করলেন। উনি যখন খড়গপুরে থাকতেন, রেলে চাকরি করতেন, সেই সময়ের গল্পগুজব হল। ওঁর ঘরে ডাকলেন, খুবই বন্ধুত্বপূর্ণ ব্যবহার। আমি  হাওয়া মহল, নাহারগড় ফোর্ট দেখতে যাচ্ছি শুনে ধোনি বললেন, ওঁর ওই জায়গাগুলো এখনও দেখা হয়ে ওঠা হয়নি। আর এখন ইচ্ছা থাকলেও তা সম্ভব নয়। বললেন, খুব ইচ্ছা করে এই ঐতিহাসিক জায়গাগুলো দেখার, কিন্ত গেলে লোকজন ঘিরে ধরবে, ভিড় হতে পারে সেটাই ভয়। সঙ্গে ওঁর স্ট্রাগল পিরিয়ডের কথা, বিশ্বকাপ জেতার কথাও বললেন। খুবই ভালো, ভদ্র মানুষ। আমি জয়পুরের লক্ষ্মী মিষ্টান্ন ভান্ডার থেক মিষ্টি কিনে ওঁর বাড়ির জন্য় দেওয়ায় খুব খুশি হলেন, বললেন যোগাযোগ রাখতে। ভীষণ ভালো কেটেছে দুই বিশ্বকাপজয়ী ব্যক্তিত্বের সঙ্গে, দুর্লভ ও সুন্দর মুহূর্ত।' 

আরও পড়ুন-'ঢাকার সিদ্ধেশ্বরী কালীমন্দিরে ছোটবেলার সেই দুর্গাপুজোর স্মৃতি এখনও টাটকা!'

আরও পড়ুন-টুম্পা সোনার পর এবার পুজোয় নতুন ভাসানগীতি 'দুষ্টু প্রজাপতি'

কপিল দেবের সঙ্গে দেখা, কথা হওয়ার প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে অম্বরীশের স্মৃতির পাতা থেকে উঠে এল ৮৩-তে ভারত ক্রিকেট বিশ্বকাপজয়ের পরের সেই মুহূর্ত। বললেন, 'আমি তখন খুবই ছোট, ৮৩-র বিশ্বকাপ জয়ের সেই রাতের কথা মনে আছে। আমার বাবা, পাড়ার কাকুরা রাস্তায় বেরিয়ে রং-মশাল জ্বালিয়েছিলেন। সেই দিনটা শৈশবের সঙ্গে মিশে আছে। কপিল দেবের খেলা দেখব বলে একবার ইডেনেও গিয়েছিলাম, কিন্তু সেদিন কপিল দেব বাউন্ডারির কাছেই আসেননি। খুব কান্নাকাটি করেছিলাম। তখন আমার বয়স ৫-৬ বছর। আমি কপিল দেবকে সেই গল্প বললাম, খুব হাসছিলেন। কপিলজিও গাভাসকরের কথা বারবার বলছিলেন। বললেন, এই যে আজকাল ক্রিকেটাররা বলেন প্রেসার। ওঁর কথায় উনি এই প্রেসার শব্দে বিশ্বাস করেননা, ওঁর কাছে সবটাই প্লেজার। আমায় বললেন, আপনি অভিনেতা, আমি ক্রিকেটার, আমি তো এটার জন্যই জন্মেছি, তবে কীসের প্রেসার, সবটাই প্লেজার। এটা ভাবা গেলে বারবার বিশ্বকাপ জেতা যায়।' 

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)