close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

সব সময় রক্তচাপ কমে যাওয়ার আশঙ্কায় ভোগেন? কাজে লাগান এই ঘরোয়া টোটকাগুলি

চিকিৎসকের কাছে পৌঁছানোর আগে পর্যন্ত নিম্ন রক্তচাপের সমস্যা সামাল দেওয়ার জন্য কী কী ঘরোয়া উপায় অবলম্ব করা উচিত, তা জেনে রাখা ভাল...

Sudip Dey | Updated: Apr 26, 2019, 01:11 PM IST
সব সময় রক্তচাপ কমে যাওয়ার আশঙ্কায় ভোগেন? কাজে লাগান এই ঘরোয়া টোটকাগুলি
--প্রতীকী চিত্র।

নিজস্ব প্রতিবেদন: আমাদের অনেকেরই ক্লিনিকে গিয়ে নিয়মিত রক্তচাপ পরীক্ষা করানোর সুযোগ হয় না। তবে নিয়মিত রক্তচাপ পরীক্ষা করানো বা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখাটাও অত্যন্ত জরুরি। অনেকেই মনে করেন, উচ্চ রক্তচাপের চেয়ে নিম্ন রক্তচাপ তুলনামূলক কম ভয়ের। কিন্তু এ ধারণা একেবারেই সঠিক নয়। চিকিৎসকদের মতে, উচ্চ রক্তচাপের মতো নিম্ন রক্তচাপও হৃদযন্ত্রের উপর যথেষ্ট প্রভাব ফেলে।

নিম্ন রক্তচাপে বুক ধড়ফড় করা, বমি বমি ভাব, শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা, অজ্ঞান হয়ে যাওয়া, চোখে অন্ধকার দেখা ইত্যাদি উপসর্গ দেখা দেয়। এ ক্ষেত্রে যত দ্রুত সম্ভব চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করুন, তাঁর পরামর্শ মেনে চিকিত্সা শুরু করুন। তবে চিকিৎসকের কাছে পৌঁছানোর আগে পর্যন্ত নিম্ন রক্তচাপের সমস্যা সামাল দেওয়ার জন্য কী কী ঘরোয়া উপায় অবলম্ব করা উচিত, তা জেনে রাখা ভাল। আসুন এ বিষয়ে সবিস্তারে জেনে নেওয়া যাক...

১) চিকিৎসকদের মতে, নিম্ন রক্তচাপে বুক ধড়ফড় করা, বমি বমি ভাব, শ্বাস-প্রশ্বাসের কষ্টের মতো সমস্যা শুরু হলে প্রথমেই রোগীকে এক গ্লাস জলে ২-৩ চা চামচ চিনি ও এক চামচ নুন মেশিয়ে খেতে দিন। নুনের সোডিয়াম আর চিনির শর্করা রক্তচাপ দ্রুত নিয়ন্ত্রণে আনতে সাহায্য করে। তবে ডায়াবিটিস থাকলে আক্রান্তকে শুধু নুন-জল দিন।

২) নিম্ন রক্তচাপের সমস্যায় রোগীর চোখে-মুখে, ঘাড়ে, কানের লতির দু’পাশে ঠাণ্ডা জলের ঝাপটা দিলে দ্রুত শারীরিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসে।

৩) ক্যাফিন আছে এমন পানীয় তাড়াতাড়ি রক্তচাপ বাড়িয়ে দিতে পারে। কফি প্রেশার বাড়াতে অত্যন্ত কার্যকর। তাই নিম্ন রক্তচাপের সমস্যায় কড়া করে খফি খেতে পারলে দ্রুত উপকার মিলবে।

আরও পড়ুন: জেনে নিন ধূমপান ও দূষণ থেকে ফুসফুসের স্বাস্থ্য রক্ষার অব্যর্থ টোটকা

৪) নিম্ন রক্তচাপের সমস্যায় যষ্টিমধু অত্যন্ত কার্যকর। যষ্টিমধু রক্তচাপের ভারসাম্যও বজায় রাখতে সাহায্য করে। বাড়িতে যষ্টিমধু থাকলে ১ কাপ জলে ১০০ গ্রামের মতো যষ্টিমধু মিশিয়ে রেখে দিন। ২-৩ ঘণ্টা পর রোগীকে জলটি খেতে দিন। উপকার পাবেন।

৫) শরীরে প্রয়োজনীয় প্রোটিনের মাত্রা কমে গেলেও রক্তচাপের উপর তার প্রভাব পড়ে। দুধ বা ডিমে উচ্চ মাত্রায় প্রোটিন রয়েছে। তাই নিম্ন রক্তচাপের সমস্যা হলে রোগীকে পথ্য হিসাবে দিন ডিমের কুসুম বা এক গ্লাস দুধ।