শূন্য বিভ্রাটে ১০ হাজার হলো ১ লাখ! হোম কোয়ারেন্টাইন নিয়ে স্বাস্থ্য দফতরের ভুল তথ্য

বুলেটিনে বলা হয়েছে একদিনে রাজ্যের হোম কোয়ারেন্টাইনে ১,০০,৩৪১ জন। কিন্তু আসলে সংখ্যাটি হবে ১০,৩৪১ জন।

Reported By: তন্ময় প্রামাণিক | Edited By: সুদেষ্ণা পাল | Updated By: Apr 1, 2020, 01:24 PM IST
শূন্য বিভ্রাটে ১০ হাজার হলো ১ লাখ! হোম কোয়ারেন্টাইন নিয়ে স্বাস্থ্য দফতরের ভুল তথ্য

নিজস্ব প্রতিবেদন : লাখ নয়। সংখ্যাটা হবে হাজার। একদিনে রাজ্যের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা মানুষের সংখ্যা নিয়ে স্বাস্থ্য দফতরের প্রকাশিত বুলেটিনে প্রকাশিত তথ্য ভুল। একটা শূন্যের ভুলে যে সংখ্যাটা হওয়ার কথা ১০ হাজার, সেটাই প্রকাশিত হয়েছে ১ লাখ। একদিনে রাজ্যের ১ লাখ মানুষ হোম কোয়ারেন্টাইনে, স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিনে এই খবর প্রকাশিত হতেই হইচই পড়ে যায়।  আতঙ্কে চরমে পৌঁছয়। কিন্তু তারপরই সামনে আসে আসল ঘটনা।

জানা যায়, একটা শূন্যের ভুলেই এতবড় বিভ্রাট ঘটে গিয়েছে। বুলেটিনে বলা হয়েছে একদিনে রাজ্যের হোম কোয়ারেন্টাইনে ১,০০,৩৪১ জন। কিন্তু আসলে সংখ্যাটি হবে ১০,৩৪১ জন। অর্থাৎ হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে ১০ হাজার ৩৪১ জনকে।

কী করে এত বড় ভুল হল? কার গাফিলতি? তা নিয়ে ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে চাপানউতর। পরিসংখ্যান নিয়ে এমন বিভ্রাটে চূড়ান্ত ক্ষুব্ধ নবান্ন। কেন এমন ভুল? কীভাবে এই ভুল হল? তা জানতে চেয়েছে নবান্ন। প্রসঙ্গত, কাল স্বাস্থ্য দফতর হোম কোয়ারেন্টাইন নিয়ে তথ্য পেশ করতেই হকচকিয়ে যায় সবাই।

খবরও হয়। একদিকে রাজ্যে একের পর এক নতুন করে আক্রান্তের খবর, মৃত্যুর খবর, সঙ্গে 'একদিনে এক লাখ' মানুষ হোম কোয়ারেন্টাইনে এই তথ্যে আতঙ্কের মাত্রা চরমে গিয়ে পৌঁছয় রাজ্যবাসীর মনে। উল্লেখ্য, মঙ্গলবার নতুন করে ১০ জনের শরীরে নোভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মিলেছে। 

আক্রান্তের সংখ্যা একলাফে বেড়ে গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৩৭। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে প্রাণ হারিয়েছেন ৬ জন। বুধবার সকালে নতুন করে বেলঘড়িয়ার জেনিথ হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে করোনায় আক্রান্ত এক রোল বিক্রেতার।